AB Bank
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

ব্যাটে-বলে ম্যাচ জেতালেন আজমতউল্লাহ


Ekushey Sangbad
স্পোর্টস ডেস্ক
০৫:৪২ পিএম, ৬ জুলাই, ২০২৪
ব্যাটে-বলে ম্যাচ জেতালেন আজমতউল্লাহ

ধুন্ধুমার ক্রিকেট লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগে। শুক্রবার ডাম্বুলায় ব্যাট-বলের রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের সাক্ষী থাকেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। প্রথমে ব্যাট হাতে রীতিমতো ঝড় তুলে গল মার্ভেলসকে লড়াইয়ের রসদ এনে দেন টিম সেফার্ত। তবে প্রাক্তন নাইট তারকার একক লড়াই ব্যর্থ করেন আজমতউল্লাহ ওমরজাই। ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত পারফর্ম্যান্স উপহার দিয়ে আফগান তারকা ম্যাচ জেতান জাফনা কিংসকে। অবশ্য জাফনার জয়ে ব্যাট হাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন প্রোটিয়া তারকা রিলি রসউ।  

ডাম্বুলায় চলতি লঙ্কা প্রিমিয়র লিগের ষষ্ঠ ম্যাচে সম্মুখসমরে নামে গল মার্ভেলস ও জাফনা কিংস। টস হেরে শুরুতে ব্যাট করতে নামে গল। টিম সেফার্তের দুর্দান্ত শতরানে ভর করে তারা নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটের বিনিময়ে ১৮৭ রান সংগ্রহ করে।

কিউয়ি তারকা সেফার্ত ৬টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ৪১ বলে ব্যক্তিগত হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। তিনি শতরানের গণ্ডি টপকে যান ১১টি চার ও ৬টি ছক্কার সাহায্যে ৬২ বলে। অর্থাৎ, হাফ-সেঞ্চুরি থেকে সেঞ্চুরিতে পৌঁছতে সেফার্ত খরচ করেন মোটে ২১টি বল। শেষমেশ ১২টি চার ও ৬টি ছক্কার সাহায্যে ৬৩ বলে ১০৪ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। সেফার্ত চার ও ছক্কার সাহায্যে মোট ৮৪ রান সংগ্রহ করেন। লঙ্কা প্রিমিয়র লিগের একটি ইনিংসে বাউন্ডারির সাহায্যে সব থেকে বেশি রান সংগ্রহ করার রেকর্ড এটি।

এছাড়া নিরোশন ডিকওয়েলা ১২, অ্যালেক্স হেলস ২৩ ও ভানুকা রাজাপক্ষে ২৮ রানের যোগদান রাখেন। জাফনার হয়ে ৪ ওভারে ৩৩ রান খরচ করে ২টি উইকেট তুলে নেন আজমতউল্লাহ ওমরজাই। ১টি করে উইকেট নেন প্রমোদ মদুশান ও ফ্যাবিয়ান অ্যালেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে জাফনা কিংস শেষ ওভারের থ্রিলারে জয় তুলে নেয়। তারা ১৯.৪ ওভারে ৫ উইকেটের বিনিময়ে ১৯১ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায়। অর্থাৎ ২ বল বাকি থাকতে ৫ উইকেটে জয় নিশ্চিত করে জাফনা। রিলি রসউ দাপুটে হাফ-সেঞ্চুরি করেন। তিনি ৪২ বলে ৬৭ রান করে আউট হন। মারেন ৮টি চার ও ৩টি ছক্কা।

১৬ বলে ৩০ রান করেন কুশল মেন্ডিস। তিনি ৫টি চার মারেন। ১৩ বলে ৩৫ রানের ধুমধাড়াক্কা ইনিংস খেলে নট-আউট থাকেন আজমউল্লাহ ওমরজাই। তিনি ৪টি চার ও ২টি ছক্কা মারেন। এছাড়া পাথুম নিশঙ্কা ১২, আবিষ্কা ফার্নান্ডো ১৪, অ্যালেক্স রস ১৩ ও চরিথ আশলঙ্কা ১৪ রানের যোগদান রাখেন।

গলের হয়ে ৩৩ রানের বিনিময়ে ২টি উইকেট নেন জাহুর খান। ১টি করে উইকেট নেন ডোয়েন প্রিটোরিয়াস, ইসুরু উদানা ও মাহিশ থিকশানা। ম্যাচের সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জেতেন আজমত।

একুশে সংবাদ/ এস কে

 

Link copied!