AB Bank
ঢাকা মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

চাকরি হারানোর শঙ্কায় টেন হাগ


Ekushey Sangbad
স্পোর্টস ডেস্ক
০২:১৫ পিএম, ২২ এপ্রিল, ২০২৪
চাকরি হারানোর শঙ্কায় টেন হাগ

ইংলিশ ফুটবলের মর্যাদাপূর্ণ প্রতিযোগিতা এফএ কাপ। এই প্রতিযোগিতাটির কোয়ার্টার ফাইনালে চির প্রতিদ্বন্দ্বী লিভারপুলকে হারিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট কাটে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। সেমিফাইনালে দলটির প্রতিপক্ষ ছিল লিগের দ্বিতীয় স্তরের ক্লাব কভেন্ট্রি।অনেকেই তখন ভেবেছিলেন, ইউনাইটেডের ফাইনালে যাওয়া সময়ের ব্যাপার মাত্র। তবে রোববার (২১ এপ্রিল) দ্বিতীয় সারির দল কভেন্ট্রিকে হারাতে গিয়ে রেড ডেভিলদের রীতিমতো যুদ্ধ করতে হয়েছে। 

ওয়েম্বলিতে এফএ কাপের সেমিফাইনালে ৭০ মিনিট অবধি ৩-০ তে এগিয়ে ছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এ অবস্থাতেও হারতে বসেছিল দলটি। অতিরিক্ত সময় শেষে টাইব্রেকারে গিয়ে রক্ষা হয় এরিক টেন হাগের শিষ্যদের। এমন জয়ের পর আনন্দের চেয়ে অস্বস্তিতেই বেশি রেড ডেভিল সমর্থকরা। 

৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকার পর শেষ ২০ মিনিটে তিন গোল হজম করা তাও আবার চ্যাস্পিয়নশিপের টিমের কাছে! শেষ পর্যন্ত ভাগ্যের জোড়েই ম্যাচটি অতিরিক্ত সময়ে নিতে পেরেছে ইউনাইটেড। এই জয়কে ভরাডুবি উল্লেখ করে টেন হাগকে চাকরিচ্যুতি করার দাবি জানিয়েছেন অনেকে।

অতিরিক্ত সময়েও স্বস্তিতে ছিল না রেড ডেভিলসরা। সেখানেও যেকোন মুহূর্তে গোল খাওয়ার সম্ভাবনা ছিল ক্যাসেমিরো-ব্রুনো ফার্নান্দেজদের। টাইব্রেকারে আবার নিজের শটে গোল করতে ব্যর্থ হন ক্যাসেমিরো। তবে বাকিগুলোতে গোল আদায় করে ৪-২ ব্যবধানে জয় তুলে নেয় তারা।

লিভারপুল ও ইংল্যান্ডের সাবেক ডিফেন্ডার জেমি ক্যারাঘার মনে করেন, এই গ্রীষ্মের পর ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে কোন ভাবেই টেন হাগকে রাখা উচিত হবে না। এর আগে কভেন্ট্রি ম্যানেজার মার্ক রবিনস ১৯৯০ সালে এফএ কাপে একটি গোল দিয়ে স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের ইউনাইটেডের চাকরি বাঁচিয়েছিলেন।

সেই ঘটনার প্রতি ইঙ্গিত করে স্কাই স্পোর্টসকে ক্যারাঘার বলেন, ‘আমরা সেখানে শেষ দিকে দেখছিলাম এবং মার্ক রবিনস বিখ্যাতভাবে ম্যান ইউনাইটেডের ম্যানেজারকে চাকরিতে রেখেছিলেন। তবে আমি মনে করি আজকের (গতকালের) ফলাফলটি ইউনাইটেড ম্যানেজারের চাকরি হারানোর কারণ হিসেবে যথেষ্ঠ।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি ফুটবলের সমর্থক হিসেবে তাকে আর ম্যানইউতে দেখতে চাই না যদিও আমি মনে করি না তাকে রাখবে। আমার মনে হয়, ড্রেসিংরুমে তাকে সম্ভবত সবচেয়ে বিব্রতকর পড়তি হচ্ছে। কারণ তারা মনে করতেই পারে না তারা শেষ কোন বড় ম্যাচ জিতেছে। দ্বিতীয় সারির দল হলেও জয়টা কষ্ঠার্জিত।’

ক্যারাঘার যোগ করেন, ‘আপনি যখন ড্রেসিংরুমে যাবেন তখন তারা সবাই একে অপরের দিকে তাকিয়ে বসে আছে। তারা উদযাপন করবে কিনা তা জানে না। এটি কি বড় বিষয় যে আপনি একটি কাপ ফাইনালে আছেন এবং উত্তীর্ণ হয়েছেন? তারা সম্ভবত সবাই সেখানে বসে একে অপরের দিকে তাকিয়ে আছে।’

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কিংবদন্তি রয় কিনও তার সাবেক দলের সমালোচনা করে আইটিভি স্পোর্টকে বলেন, ‘তারা আসলে বাচ্চাদের মতো খেলে, তারা সবসময় আপনাকে সুযোগ দিবে। চলতি মৌসুমের এফএ কাপেই উইগান ও নিউপোর্ট কাউন্টির বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে তারা তা দেখিয়েছি।’

রয় কিন আরো বলেন, ‘আমি প্রায় প্রতি ম্যাচে তাদের কিছু বাজে অভ্যাস দেখছি। গোলরক্ষক ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে সময় নষ্ট করছেন। খেলায় নামুন এবং আপনার শরীরের আড়মোরা ভাঙুন। আমি আশা করব তারা আজ রাতে কাপ ফাইনালে ওঠা উদযাপন করবে না।’

 

একুশে সংবাদ/এস কে  

Link copied!