AB Bank
ঢাকা মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুতি শুরু পিএসজির


Ekushey Sangbad
স্পোর্টস ডেস্ক
০৪:১০ পিএম, ২৭ মে, ২০২৪
চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুতি শুরু পিএসজির

শনিবার লিঁওকে ফ্রেঞ্চ কাপের ফাইনালে পরাজিত করে ঘরোয়া ডাবল জয়ের মধ্য দিয়ে মৌসুম শেষ করেছ প্যারিস সেইন্ট-জার্মেই। কিন্তু এখন তাদের আরো একবার পরবর্তী চ্যাম্পিয়ন্স লিগের জন্য যথাযথ প্রস্তুতি গ্রহণে মনোযোগী হতে হবে। এ বছর চ্যালেঞ্জটা যে একটু বেশী তা সকলেই উপলব্ধি করছে, দলের প্রাণভোমরা কিলিয়ান এমবাপ্পে যে এবার আর তাদের সাথে নেই।

ফরাসি এই অধিনায়ক লিঁওর বিপক্ষে জয়ের ম্যাচ দিয়ে পিএসজির সাথে সাত বছরের সম্পর্কের অবসান ঘটিয়েছেন। ফাইনালে ওসমানে ডেম্বেলে ও ফাবিয়ান রুইজের গোলে পিএসজির শিরোপা নিশ্চিত হয়। এমবাপ্পে অবশ্য তার ক্লাব-রেকর্ড ২৫৬ গোলকে আর বাড়াতে পারেননি। মৌসুমের দ্বিতীয়ভাগে ফ্রান্সের সেরা দল হিসেবে নিজেদের প্রমান করা লিঁওর বিপক্ষে পিএসজির এই জয়টা প্রাপ্য ছিল। ডিসেম্বরে টেবিলের তলানির দল থেকে লিঁও ষষ্ঠ স্থানে থেকে লিগ শেষ করেছে।

ফরাসি ফুটবলে পিএসজি এই ক্রমবর্ধমান প্রাধান্য অন্য ক্লাবগুলোর তুলনায় তাদের আর্থিক উন্নতিরও একটি কারন হয়ে দেখা দিয়ছে। অতি সম্প্রতি প্রকাশিত এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে পিএসজির ২০২২/২৩ মৌসুমে আনুমানিক যা আয় ছিল সেটা ফ্রান্সের পরবর্তী পাঁচ ধনী ক্লাব মার্সেই, লিঁও, মোনাকো, রেনে ও লিলির একত্রিত আয়ের সমান। দীর্ঘদিন ধরেই পিএসজির একটাই লক্ষ্য, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয় করা। যে শিরোপাটি এখনো অধরা রয়ে গেছে। সাম্প্রতিক কয়েক বছরে শুধুমাত্র এই একটি শিরোপা জয়ের জন্য এমবাপ্পের সাথে লিওনেল মেসি, নেইমার, জøাটান ইব্রাহিমোভিচের মত সুপারস্টারদের দলে ভিড়িয়েও সফল হতে পারেনি পিএসজি। বিশেষ করে এমবাপ্পেকে নিয়ে তারা এই শিরোপা উপভোগ করতে পারলো না, এই হতাশা সবসময়ই পিএসজির থেকে যাবে।

কোচ লুইস এনরিকে নিজেও জানেন এমবাপ্পেকে ছাড়া এই কঠিন কাজ আরো কঠিন হয়ে গেল। শনিবারের ফাইনালের পর এনরিকে বলেছেন, ‘সে অবশ্যই ভিন্নধর্মী একজন খেলোয়াড়। কোন একক খেলোয়াড় দিয়ে আমরা তার জায়গা পূরণ করতে পারবো না। কিলিয়ানের কোন বদলী খেলোয়াড় নেই। আমরা পুরো দল মিলে তার অভাব পূরনের চেষ্টা করবো। হতে পারে চার, পাঁচ কিংবা ছয়জন নতুন খেলোয়াড় দলে আসতে পারে।’

ভিক্টর ওশিমেন কিংবা রাফায়েল লিয়াওর মত তারকা খেলোয়াড়দের দিকে পিএসজির নজড় আছে। কিন্তু একইসাথে তারা হয়তো ২০১৭ সালে নেইমাররের বিদায়ে বার্সেলোনা যা করেছিল সেই কৌশলও হাতে নিতে পারে। টটেনহ্যাম হটস্পারও রিয়াল মাদ্রিদের কাছে গ্যারেথ বেলকে ছেড়ে দিয়ে একই কৌশল অবলম্বন করেছিল। বড় কোন তারকার পরিবর্তে অপেক্ষাকৃত তরুণদের দিয়ে দল সাজানোর চেষ্টা এই ক্লাবগুলো করেছিল। বার্সেলোনা ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টারের পরিবর্তে বেশ কিছু বড় তারকার পিছনে ছুটলেও শেষ পর্যন্ত সফল হতে পারেনি। টটেনহ্যামও শেষ পর্যন্ত হতাশ হয়ে ট্রান্সফার মার্কেটে নিজেদের গুটিয়ে নিয়েছিল।

এনরিকে বলেন, ‘এখানে যে সমস্ত খেলোয়াড় আসতে চায় তাদের জন্য চ্যালেঞ্জটা অনেক বড়। এই ক্লাব আজ না হয় কাল অবশ্যই একদিন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয় করবে। কিন্তু এই শিরোপা জয় করা অনেক কঠিন। বছরের পর বছর হয়তো লেগে যেতে পারে। কিন্তু ভবিষ্যতে পিএসজির কাছে এই শিরোপা আসবে, এনিয়ে কোন শঙ্কা নেই।’

কাতারি মালিকানাধীন ক্লাবটি চায়না সফরের মধ্য দিয়ে আগামী মৌসুমের প্রস্তুতি শুরু করতে যাচ্ছে। আগস্টে শুরুতে মৌসুমের উদ্বোধনী ম্যাচ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে মোনাকোর বিপক্ষে মাঠে নামবে। লিগ ওয়ানের নতুন মৌসুম ১৬ আগস্ট থেকে শুরু হবে, সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝিতে শুরু হবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ।

এমবাপ্পেকে ছাড়া এনরিকে ক্লাবের বাকি তারকা ডেম্বেলে, আচরাফ হাকিমি, পর্তুগীজ মিডফিল্ডার ভিটিনহা ও টিনএজ সেনসেশন ওয়ারেন জাইরে-এমেরির উপর আস্থা রাখছেন। এ সম্পর্কে এনরিকে বলেছেন, ‘এই মৌসুম শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু স্কোয়াড শক্তিশালী করার জন্য আলোচনা ও সম্ভাবনার কাজ ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে। ক্লাব কি অর্জণ করতে পারবে সেটা বিবেচনা করেই আকর্ষণীয় একটি প্রকল্প নতুন মৌসুমে মুরু হতে যাচ্ছে।’

আগামী কিছুদিন গ্রীষ্মকালীন ছুটিতে এনরিকে পরিবারকে সময় দিবেন, একইসাথে ঘরে বসে টেলিভিশনে ইউরো ২০২৪ এর ম্যাচ উপভোগ করবেন।ফরাসি ফুটবলের অপর ক্লাবগুলোও নতুন মৌসুমকে সামনে রেখে নিজেদের পরিকল্পনা সাজাচ্ছে।। লিঁও কোচ পিয়েরে সাগের অধীনে মৌসুমের দ্বিতীয়ভাগটা দুর্দান্ত কাটিয়েছে। যে কারনে কোচের সাথে চুক্তি নবায়নের আলোচনা চলছে।  

এদিকে বাজে মৌসুম কাটানোর পর মার্সেই নতুন কোচের সন্ধানে রয়েছে। ইউরোপে খেলতে ব্যর্থ হওয়া মার্সেই বেশ হতাশ । মোনাকোও দুর্দান্ত ফর্মে থাকা ব্রেস্ট চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মাঠে নামার জন্য মুখিয়ে আছে। তবে আগামী মৌসুমে বেশ কিছু চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারে লিগ ওয়ান। এখনো আগামী মৌসুমের জন্য কোন সম্প্রচার স্বত্ত হয়নি। সব মিলিয়ে এমবাপ্পে পরবর্তী ফরাসি ফুটবলের যুগ কতটা এগিয়ে যেতে পারে তা সময়ই বলে দিবে।

 

একুশে সংবাদ/এস কে


 

Link copied!