AB Bank
ঢাকা মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

ইউরোর ফেবারিট হলেও কঠিন গ্রুপে ফ্রান্সের এগিয়ে যাওয়া কঠিন


Ekushey Sangbad
স্পোর্টস ডেস্ক
০৩:৫৪ পিএম, ২ মে, ২০২৪
ইউরোর ফেবারিট হলেও কঠিন গ্রুপে ফ্রান্সের এগিয়ে যাওয়া কঠিন

জার্মানীতে অনুষ্ঠিতব্য ইউরো ২০২৪’এ ফ্রান্সকে ফেবারিট হিসেবে বিবেচনা করছেন কোচ দিদিয়ের দেশ্যম। কিন্তু একইসাথে তিনি স্বীকার করেছেন আগে তার দলকে কঠিন গ্রুপের বাঁধা পেরুতে হবে। বার্তা সংস্থা এএফসির সাথে একান্ত সাক্ষাতকারে দেশ্যম এসব কথা বলেন।   

মোনাকোতে দেয়া এই সাক্ষাতকারে দেশ্যম বলেন, ‘এখানে সেখানে যা বলা হচ্ছে আমি তার সবকিছুর বিরুদ্ধে গিয়ে কথা বলবো। আমরা একটি কঠিন গ্রুপে পড়েছি। সবাই হয়তো বলবে ইউরো ২০২৪’র গ্রুপ পর্ব ফ্রান্স সহজেই পার করতে পারবে।’

২০১৮ বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্স আগামী ১৭ জুন অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ইউরো মিশন শুরু করবে। চারদিন পর গ্রুপ-ডি’তে তাদের প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস। ২৫ জুন পোল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ফ্রান্স গ্রুপ পর্ব শেষ করবে। 

৫৫ বছর বয়সী দেশ্যম মনে করেন ইউরোতে খেলতে আসা কোন দলই সহজ নয়, এখানে কোন দলকেই ছোট  করে দেখার কোন অবকাশ নেই। বিশ্বকাপ জয়ী সাবেক কোচ ও অধিনায়ক দেশ্যম বলেন, ‘নেদারল্যান্ডস এখনো বিশ্ব ফুটবলে দাপটের সাথে খেলছে। ২০২৩ সালের মার্চে আমরা যখন তাদের ৪-০ গোলে পরাজিত করেছিলাম তখন তারা একটি ভঙ্গুর দল ছিল। ঐ দলে তাদের বেশ কয়েকজান তারকা খেলোয়াড় অনুপস্থিত ছিল। পোল্যান্ডও দল হিসেবে বেশ শক্তিশালী। তারা রবার্ট লিওয়ানদোস্কির মত একজন খেলোয়াড়ের উপর নির্ভর করে এ পর্যন্ত এসেছে। অস্ট্রিয়াও বেশ সংঘবদ্ধ দল। অতি সম্প্রতি তারা জার্মানীকে হারিয়েছে। এখানে প্রতিটি দলকেই আলাদা আলাদাভাবে মেপে দেখতে হবে। প্রথম লক্ষ্যস্থির করতে হবে কিভাবে প্রথম রাউন্ড পার করা যায়। অন্য দেশের মত আমাদেরও এগিয়ে যাবার যথেষ্ট সম্ভাবনা আছে। কিন্তু শুরুতেই আমাদের সেমিফাইনাল ও সম্ভাব্য ফাইনাল নিয়ে চিন্তা করলে চলবে না। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ১০ দলের মধ্যে আটটি দলই এখানে অংশ নেয়।’

২০১৮ সালে রাশিয়া বিশ্বকাপে ফ্রান্সকে শিরোপা উপহার দেবার পর কোচ হিসেবে ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা এখনো অধরাই রয়েছে দেশ্যমের কাছে। ২০১৬ সালে ঘরের মাঠের ফাইনালে পরাজিত হরার চার বছর পর সুইজারল্যান্ডের কাছে শেষ ষোলতে পরাজিত হয়ে বিদায় নিতে হয়েছিল। ২০০০ ইউরো জয়ী অধিনায়কের স্বপ্ন তৃতীয়বারের মত ভাগ্য তার সহায় হবে। কোচ ও খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপ ও ইউরো জয়ের স্বপ্নও এর মাধ্যমে পূরণ হবে।  

যদিও অতীতের কোন প্রতিশোধ নেবার লক্ষ্যে জার্মানীতে খেলতে যাচ্ছেনা দেশ্যম। এ সম্পর্কে ফরাসি কোচ বলেন, ‘অতীতের টুর্নামেন্টগুলোতে আমরা প্রত্যাশানুযায়ী খেলতে পারিনি। এটা সত্যি, কোচ হিসেবে আমি এখনো ইউরো জয় করিনি। কিন্তু বিশে^র অনেক কোচই এখনো ইউরো জিতেনি। ফ্রান্সকে নিয়ে প্রত্যাশা যদি বেশী থাকে তবে এর কারন হলো দলের সাম্প্রতিক উন্নতি। বিশ্বকাপের পর ইউরোর থেকে বড় কোন টুর্ণামেন্ট নেই। আমরা একটি সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে জার্মানীতে যাচ্ছি যা খুবই স্পষ্ট। আমরা অনেকের মধ্যে ফেবারিট, তবে অন্য আরো কিছু দলও ফেবারিটের তালিকায় আছে। কিন্তু এখনই আমরা শেষটা নিয়ে চিন্তা করছি। আপাতত গ্রুপ পর্বের ম্যাচগুলো নিয়ে ভাবতে চাই।’

গ্রুপ পর্বের ঐ তিন ম্যাচের আগে দেশ্যমের সামনে স্বাভাবিক ভাবেই দল নির্বাচন নিয়ে দু:শ্চিন্তা শুরু হয়ে গেছে। বড় সব টুর্নামেন্টের আগেই দেশ্যমকে এই দু:শ্চিন্তায় পড়তে হয়েছে। এখনো ইউরোর পক্ষ থেকে দলের সংখ্যা বাড়িয়ে ২৩ থেকে ২৬ করা হবে কিনা তা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসেনি। এ সম্পর্কে দেশ্যম বলেন, ‘যদি ২৬ খেলোয়াড় নিয়ে শেষ পর্যন্ত দল ঘোষনা করতে হয় তবে আমি মনে করি সেটা ফ্রান্স দলের জন্য সুখবর হবে। যেকোন পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নেয়া আমি সবসময় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখি। যেকোন সিদ্ধান্তের জন্য আমি প্রস্তুত আছি।’ 

এক্ষেত্রে পিএসজির ২১ বছর বয়সী খেলোয়াড় ব্র্যাডলি বারকোলার জাতীয় দলে সুযোগ হতে পারে। যদিও মাত্র একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়েছে ব্র্যাডলির। পিএসজির জার্সিতে সাম্প্রতিক পারফরমেন্সেই ব্র্যাডলিকে জাতীয় দলে আবারো সুযোগ করে দিতে পারে বলে ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। দেশ্যমও এ ব্যপারে এ বিষয়ে  আগাম ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন।

একুশে সংবাদ/এস কে   

Link copied!