AB Bank
ঢাকা বুধবার, ২৪ জুলাই, ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

ইবি রেজিস্ট্রারের অবৈধ লেনদেনের অভিযোগ, ইউজিসির তলব


ইবি রেজিস্ট্রারের অবৈধ লেনদেনের অভিযোগ, ইউজিসির তলব

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এইচ এম আলী হাসানের বিরুদ্ধে ব্যাংকের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা অবৈধ লেনদেনের অভিযোগ তদন্তে তলব করেছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। তদন্তের স্বার্থে রেজিস্ট্রারসহ সংশ্লিষ্ট আরও চারজনকে ডেকেছে কমিশন। তাদেরকে আগামী ৯ জুন বেলা ১১টায় কমিশন ভবনের ৬ষ্ঠ তলার সভা কক্ষে উপস্থিত থেকে কমিশন কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটির নিকট সাক্ষাৎকার দিতে বলা হয়েছে। এছাড়া উত্থাপিত অভিযোগ বিষয়ে প্রত্যেকের নিজস্ব বক্তব্য ও তদন্ত সংশ্লিষ্ট ডকুমেন্টস (যদি থাকে) সঙ্গে রাখার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার কমিশনের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফ আলী খান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

বিজ্ঞপ্তি সূত্রে, রেজিস্ট্রার আলী হাসানের বিরুদ্ধে উত্থাপিত দুর্নীতির অভিযোগ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ কর্তৃক প্রেরিত পত্রের পরিপেক্ষিতে কমিশন কর্তৃপক্ষ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। তদন্তকার্য সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার স্বার্থে সংশ্লিষ্ট পাঁচজনকে তলব করেছে কমিশন। তারা হলেন- ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত পরিচালক এবং মেগা প্রকল্পের সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রকল্প পরিচালক এইচ এম আলী হাসান, ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী এ কে এম শরীফ উদ্দীন, সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী মুন্সী মোঃ তারেক, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক এবং মেগা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. নওয়াব আলী এবং পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের উপ-রেজিস্ট্রার রবিউল ইসলাম। 

জানা যায়, গত বছরের মে মাসে ইবির রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে রূপালী ব্যাংক লিমিটেড কুষ্টিয়া শাখার একাউন্টের মাধ্যমে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ফাইল আটকিয়ে, পছন্দের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে দরপত্রের রেট কোড জানিয়ে দিয়ে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে। এছাড়া এ সংক্রান্ত একটি অডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফাঁস হয়৷ এ ঘটনায় শিক্ষা মন্ত্রনালয়ে অভিযোগ গেলে তারা ইউজিসিকে তদন্তের নির্দেশ দেয়। পরে পহেলা নভেম্বর এ অভিযোগ তদন্তে কমিটি গঠন করে ইউজিসি। কমিটিতে ইউজিসির এস্টেট এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ ও জেনারেল সার্ভিসেস এর পরিচালক জাফর আহমদ জাহাঙ্গীরকে আহ্বায়ক করা হয়। কমিটিতে সদস্য সচিব হিসেবে ইউজিসির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফ আলী খান ও সদস্য ছিলেন মৌলি আজাদ। 

এসময় একইসঙ্গে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম ও ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এইচ এম আলী হাসানের বিরুদ্ধে উত্থাপিত নিয়োগ বাণিজ্যসহ নানাবিধ দুর্নীতির অভিযোগে পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করে ইউজিসি। পরে ভিসির বিরুদ্ধে গঠিত তদন্ত কমিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে সরেজমিন তদন্তকার্য পরিচালনা করে রিপোর্ট জমা দিলেও রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে গঠিত তদন্তকার্য চলমান রয়েছে।  রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ তদন্তে গঠিত কমিটিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে সরেজমিন তদন্তের দাবি জানিয়েছেন অনেকেই। 

তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক জাফর আহমদ জাহাঙ্গীর বলেন, ওইদিন তদন্ত কমিটির মিটিং আছে। এজন্য উনাদের ডাকা হয়েছে। তদন্ত কেবল শুরু হয়েছে। অবস্থা কোন দিকে যায় না যায় তারপর বোঝা যাবে কোথায় যেতে হবে।  

এ বিষয়ে জানতে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এইচ এম আলী হাসানের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনিও ফোন ধরনেনি। পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক এবং মেগা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. নওয়াব আলী বলেন, রেজিস্ট্রার দফতরে চিঠি এসেছে। আমাকে ফোন করে জানিয়েছিল। কিন্তু ইউজিসি কি বিষয়ে ডেকেছে তা আমি এই মূহুর্তে বলতে পারছি না।  

 

একুশে সংবাদ/বিএইচ

Link copied!