AB Bank
ঢাকা সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

বিশ্বকাপে আফগানিস্তানের শুভসূচনা


Ekushey Sangbad
ক্রীড়া প্রতিবেদক
১০:২৯ এএম, ৪ জুন, ২০২৪
বিশ্বকাপে আফগানিস্তানের শুভসূচনা

আফগানিস্তানের বোলারদের সামনে টিকতে পারল না টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো খেলতে আসা আইসিসিরি সহযোগি দেশ উগান্ডা। আফগানদের দেয়া ১৮৪ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে তারা সবউইকেট হারিয়ে করতে পেরেছে মাত্র ৫৮ রান। এতে করে ১২৫ রানে বড় হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাদের। 

মঙ্গলবার বার্বাডোজে টি-২০ বিশ্বকাপে ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল উগান্ডা ও আফগানিস্তান। যেখানে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৮৩ রান সংগ্রহ করে আফগানরা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৬ ওভারে ৫৮ রানেই গুটিয়ে গেছে উগান্ডা। আফগানিস্তানের জয় ১২৫ রানে।

লক্ষ্য তাড়ায় শুরুতেই হোঁচট খায় উগান্ডা। দলের হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন রনক প্যাটেল ও সিমন সেসাজি। ইনিংসের প্রথম ওভারেই এ জুটিতে আঘাত হানেন ফজলহক ফারুকী।

ফারুকীর বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন রনক (৪)। পরে ক্রিজে আসেন রজার মুসাকা। উইকেটে এসেই লেগ বিফোরের ফাঁদে (এলবিডব্লিউ) পড়েন তিনি। তার উইকেটে ঝুলিতে ভরেছেন ফারুকীই।

এরপর শুধু আসা-যাওয়ার মধ্যে ছিলেন উগান্ডার ব্যাটাররা। দলটির নয়জন ব্যাটার দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে পারেননি। ব্যক্তিক্রম ছিলেন শুধু রিয়াজত (১১) ও রবিন (১৪)। দুই অঙ্কের ঘর টপকাতে অবশ্য অনেক সময় নিয়েছেন তারা দুজনই।

ম্যাচ থেকে ছিটকে গেলেও স্রেফ টিকে থাকার লড়াই করেছে উগান্ডা। শেষ পর্যন্ত ৫৮ রান তুলতে সক্ষম হয়েছে তারা। টি-২০ বিশ্বকাপের ইতিহাসে এটি চতুর্থ সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহ। উগান্ডার স্বপ্ন গুঁড়িয়ে নায়ক বনে গেছেন আফগানিস্তানের ফজলহক ফারুকী। বল হাতে তিনি একাই নিয়েছে ৫ উইকেট।

আফগানিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ ৫ উইকেট নিয়েছেন ফজলহক ফারুকী। এছাড়া দুটি করে উইকেট নিয়েছেন নাভিন উল হক ও রশিদ খান।

এর আগে টস হেরে আগে ব্যাট করে আফগানিস্তান। দলের হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন ইব্রাহিম জাদরান ও রহমানউল্লাহ গুরবাজ। ইনিংসের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করেন তারা দুজন। তাদের ব্যাটিং তাণ্ডবে দিশেহারা হয়ে পড়ে উগান্ডা।

এ দুই ওপেনারের ব্যাট থেকে আসে ১৫৪ রান। দুই ফিফটিতে দলকে বড় সংগ্রহের পথে নেন তারা। তবে সেঞ্চুরির পথে এগোতে থাকা ইব্রাহিম জাদরান সাজঘরে ফেরালে ভেঙে যায় তাদের জুটি।

১৫তম ওভারের তৃতীয় ইব্রাহিমকে বোল্ড করেন উগান্ডার অধিনায়ক মাসাবা। আউট হওয়ার আগে ৭০ রান করেন তিনি। তার বিদায়ের পর সাজঘরে ফেরেন গুরবাজও। ৪৫ বলে ৭৬ রান করেন তিনি।

পরে ক্রিজে আসেন নাজিবউল্লাহ জাদরান। তবে উইকেটে থিতু হওয়ার আগেই প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন তিনি। এরপর বলার মতো কেউই পারফর্ম করতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত আফগানিস্তানের ইনিংস থামে ১৮৩ রানে।

উগান্ডার হয়ে সর্বোচ্চ দুটি করে উইকেট নেন ব্রায়ান মাসাবা ও কসমস কয়েওয়াটা।

 

একুশে সংবাদ/ এস কে

 

Link copied!