AB Bank
ঢাকা শুক্রবার, ২১ জুন, ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

কাউন্টিতে নাম লেখালেন ভারতীয় পেসার


Ekushey Sangbad
স্পোর্টস ডেস্ক
০৫:৪৯ পিএম, ২০ এপ্রিল, ২০২৪
কাউন্টিতে নাম লেখালেন ভারতীয় পেসার

আইপিএলে সুযোগ না পেয়ে এবার কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে চলেছেন সিদ্ধার্থ কাউল। পাঞ্জাব তনয় অতীতে খেলেছেন আইপিএলে। সানরাইজার্স হায়দরাবাদে সন্দীপ শর্মার সঙ্গে তাঁর জুটি এক সময় বহু তারকা ক্রিকেটারেরই রাতের ঘুম উড়িয়েছে। আপাতত দৃষ্টিতে তার বোলিং ভয়ঙ্কর না হলেও পেস ভ্যারিয়েশনেই বিপক্ষ দলের ব্যাটারদের সমস্যায় ফেলতেন তিনি।

আইপিএলে হায়দরাবাদের বোলিং লাইন আপের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন। ছিলেন নাইট রাইডার্স, আরসিবিতেও। কিন্তু সাম্প্রতিককালে আর সেভাবে সুযোগ পাচ্ছিলেন না এই জোরে বোলার।

চেতেশ্বর পূজারা, করুণ নায়ারদের মতো তিনিও আইপিএলে ব্রাত্য। তাই বলে কি আর ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট বা কাউন্টি থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখা যায়। এবার ইংল্যান্ডের বড় ক্লাব নর্দ্যাম্পটনশায়ারের হয়ে খেলতে দেখা যাবে ৩৩ বছর বয়সি এই পেসারকে। অবশ্য আইপিএলে নিজের কেরিয়ারের শুরুর দিকে তাঁর বলে যেরকম ঝাঁঝ ছিল, পরের দিকে তা হারিয়ে যায়।

২০১৩ এবং ২০১৪ সালে সেরকম সাফল্য পান নি আইপিএলে। প্রথম বছর নিয়েছিলেন মাত্র ৪ উইকেট, দ্বিতীয় বছর নিয়েছিলেন ২ উইকেট। কিন্তু ২০১৭ সালে ১০ ম্যাচে তুলে নেন ১৭ উইকেট। যা তাঁকে আইপিএলে প্রতিষ্ঠা পেতে সাহায্যই করেছিল। ইকোনমি অবশ্য ছিল আটের ওপরে। এরপর ২০১৮ সালেও নেন ১৭ ম্যাচে ২১ উইকেট। কিন্তু এরপর থেকেই পারফরমেন্স গ্রাফ নিম্নমুখী হতে শুরু করে। শেষবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুতে থাকলেও চোটের জন্য প্রথম পর্বে সুযোগ পাননি মাঠে নামার। দ্বিতীয় পর্বে আর তাঁর ওপর সেভাবে ভরসা করতে পারেনি আরসিবি। যদিও বিরাট কোহলি তাকে আরসিবিতে আসার অনেক আগে থেকেই চেনেন। তিনি এবং সিদ্ধার্থ একসঙ্গে জাতীয় দলের জার্সিতে খেলেছিলেন।

সিদ্ধার্থ চললেন ইংল্যান্ডে নিজেকে আরও একবার প্রমাণ করতে। অবশ্য ২০০৮ সালে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে ভারতের বোলিং লাইন আপে ডেথ ওভার স্পেশালিস্ট ছিলেন তিনি। দঃ আফ্রিকার বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচেও তিনি ছিলেন কোহলির অন্যতম সেরা অস্ত্র। দেশের হয়ে অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপও জিতেছেন তিনি। ২০১৮ সালে সিনিয়র দলের হয়েও খেলেন এই পঞ্জাব তনয়। ঘরোয়া ক্রিকেটে সিদ্ধার্থের পারফরমেন্স চোখে পড়ার মতো। ৮৩ ফার্স্ট ক্লাস ম্যাচে নিয়েছেন ২৮৪ উইকেট। এই পারফরমেন্স দেখেই তাঁকে দলে নেওয়ার কথা চিন্তাভাবনা করে ইংল্যান্ডের এই দল। নর্দ্যাম্পটনশায়ারের হয়ে মে মাসে ৩টি ম্যাচ খেলবেন সিদ্ধার্থ। একই দলে রয়েছেন আরেক ভারতীয় ক্রিকেটার করুণ নায়ার। 


একুশে সংবাদ/এস কে  

 

 

 

 

 

 

 

 

Link copied!