ঢাকা সোমবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

হাইকোর্টের কার্যতালিকা থেকে বাদ কাঞ্চনের রিট,বিবৃতি রাজারবাগ দরবার শরীফ


Ekushey Sangbad
নিজস্ব প্রতিবেদক
০৪:৩০ পিএম, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
হাইকোর্টের কার্যতালিকা থেকে বাদ কাঞ্চনের রিট,বিবৃতি রাজারবাগ দরবার শরীফ

আ‌লো‌চিত ৪৯ মামলার আসামী একরামুল আহসান কাঞ্চনের রিট মামলাটি হাইকোর্টের কার্যতালিকা থেকে সরিয়ে দিয়েছে আদালত। এই রায় হওয়ার পরপরই সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে রাজারবাগ দরবার শরীফ এক বিবৃতি প্রেরন করেন।

  

আজ সোমবার (২১সেপ্টেম্বর) ৪৯ মামলার আসামি একরামুল আহসান কাঞ্চনের দায়েরকৃত রিট মামলাটি হাইকোর্টের কার্যতালিকা থেকে বাদ (Delete) দেওয়া হয়েছে। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ এই আদেশ দেন। মামলাটি আজ আদেশের জন্য উক্ত বেঞ্চের কার্যতালিকার ২ নাম্বারে ছিল। সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগ কর্তৃক মামলাটির অন্তর্বর্তীকালীন আদেশের ওপর স্থগিতাদেশ দেওয়ায় হাইকোর্ট মামলাটিতে আর কোনো আদেশ না দিয়ে কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছে।

জানিয়ে রাখতে চাই, রাজধানীর শান্তিবাগ এলাকার বাসিন্দা একরামুল আহসান কাঞ্চনের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন জেলায় নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, চুরি, ডাকাতি, মানব পাচারসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৪৯ মামলা করা হয়। এই সব মামলায় বেশ কিছুদিন কারাভোগ করেন তিনি। মামলার আসামি হওয়া থেকে বাঁচতে তিনি উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হন। তার করা রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে মামলার বাদীদের খুঁজে বের করতে গত ১৪ জুন সিআইডিকে নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।


গত ৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ সিআইডিকে তদন্ত করতে দেওয়ার আদেশসহ হাইকোর্টের সেই পুরো অন্তর্বর্তীকালীন আদেশটি রিট আবেদনকারী কাঞ্চনের বিরুদ্ধে চলমান সকল মামলার বিচার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত স্থগিত করে দিয়েছেন।

আজ হাইকোর্টে বিবাদী পক্ষের আইনজীবীগণ আপিল বিভাগের আদেশের সার্টিফায়েড কপি দাখিল করেন। আপিল বিভাগের আদেশ দেখে হাইকোর্ট মন্তব্য করেন, যেহেতু আবেদনকারীর বিরুদ্ধে চলমান মামলাগুলোর বিচার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন আদেশের ওপর আপিল বিভাগ কর্তৃক স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছে। তাই এই মুহূর্তে এই রিট মামলায় অন্য কোনো আদেশ প্রদান করা সম্ভব নয়। এই বলে হাইকোর্ট মামলাটি কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়ে দেন।

বিবাদী পক্ষের মামলাটি শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী এডভোকেট এমকে রহমান ও এডভোকেট শেখ ওমর শরীফ। রিট আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী এডভোকেট জয়নুল আবেদীন।
 
এই রায় হওয়ার পরপরই সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে রাজারবাগ দরবার শরীফ এক বিবৃতি প্রেরন করেন। বিবৃতিতে বলা হয়েছে,
  

সম্প্রতি সিআইডির একটি কথিত তদন্ত প্রতিবেদন এবং কয়েকটি মানববন্ধনকে কেন্দ্র করে গণমাধ্যমে পবিত্র রাজারবাগ দরবার শরীফের সম্মানিত পীর সাহেব কিবলা আলাইহিস সালাম সম্পর্কে ভয়ানক অপপ্রচার ও বানোয়াট তথ্য প্রচার করা হচ্ছে। এই সম্পর্কে রাজারবাগ দরবার শরীফের বক্তব্য হচ্ছে -  
  
১. কোন মামলাবাজ সিন্ডিকেটের সাথে রাজারবাগ দরবার শরীফের সম্মানিত পীর সাহেব কিবলা আলাইহিস সালাম উনার বিন্দুমাত্র সম্পর্ক নেই।  
  
২. কারো বিরুদ্ধে মিথ্যা, ভুয়া, সাজানো বা হয়রানিমূলক মামলা তিনি নিজে কখনো করেননি এবং কাউকে দিয়েও কখনো করাননি।  ‘৫ শতাধিক ব্যক্তির নামে ৮ শতাধিক মিথ্যা মামলা’ করা তো দূরের কথা, তিনি ১টি মিথ্যা মামলা করেছেন বা করিয়েছেন, এমন প্রমাণ কেউ কখনও দেখাতে পারবে না।  
  
৩. মামলা-হামলার ভয় বা কোন প্রকার প্রলোভন দেখিয়ে তিনি কারো থেকে জমি লিখে নেননি বা টাকা আদায়ও করেননি।    
  
৪. অন্যায়ভাবে বা অবৈধপন্থায় তিনি কখনো ১ ইঞ্চি জমিও দখল করেননি কিংবা দখল করার জন্য চাপ প্রয়োগও করেননি।  সিআইডি’র কথিত তদন্ত প্রতিবেদন ‘চাপ প্রয়োগের’ দাবী করলেও তার সত্যতা প্রমাণে কোনরূপ প্রমাণ উপস্থাপন করতে পারেনি।  
  
সুতরাং সত্যতা যাচাই না করে গণমাধ্যমে রাজারবাগ দরবার শরীফ সম্পর্কে একতরফা ভুয়া, বানোয়াট ও মিথ্যা প্রচার না করা এবং এই ব্যাপারে সবাইকে সচেতন থাকার আহবান জানান রাজারবাগ দরবার শরীফ।

একুশে সংবাদ/রাফি/বাবু