AB Bank
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী
তরুণীকে ধর্ষণ

যেকোনো সময় গ্রেপ্তার হতে পারে বিশ্বকাপ দলের ৮ খেলোয়াড়


Ekushey Sangbad
স্পোর্টস ডেস্ক
০৪:২৬ পিএম, ২৮ জানুয়ারি, ২০২৪
যেকোনো সময় গ্রেপ্তার হতে পারে বিশ্বকাপ দলের ৮ খেলোয়াড়

হোটেল কক্ষে এক তরুণীকে রাতভর দলবদ্ধভাবে ধর্ষণ ও নিপীড়নের অভিযোগ আনা হচ্ছে কানাডার হকি বিশ্বকাপ দলের আট খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর এই মামলায় যেকোনো সময় গ্রেপ্তার হতে পারেন ২০১৮ হকি ওয়ার্ল্ডকাপ জুনিয়র (অনূর্ধ্ব-১৮) দলের এই সদস্যরা।  

কানাডার প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম গ্লোব অ্যান্ড মেলের বরাতে এ খবর প্রকাশ করেছে রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম সিবিসি নিউজ। প্রতিবেদনে বলা হয়, খেলোয়াড়দের আগামী সপ্তাহের শেষ নাগাদ কানাডার অন্টারিও প্রদেশের লন্ডন শহরের পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণের জন্য সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে।

গোপনীয় এই মামলার বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানায় লন্ডন পুলিশ। তবে তারা জানিয়েছে, তদন্তের বিষয়ে আগামী ৫ ফেব্রুয়ারি সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানানো হবে।

২০১৮ ওয়ার্ল্ড জুনিয়র টিমের বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় এই সপ্তাহে ন্যাশনাল হকি লিগ (এনএইচএল) এবং ইউরোপীয় টিম থেকে অনুপস্থিত থাকার বিষয়ে আবেদন জানিয়েছেন এবং তা গ্রহণ করা হয়েছে। তবে কারা আবেদন জানিয়েছেন তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

সাবেক ক্রাউন প্রসিকিউটর নিক কেক বলেন, এসব খেলোয়াড়কে অন্য সাধারণ অপরাধীর মতোই গ্রেপ্তার করা হবে। এর আগে, তারা যদি সেচ্চায় আত্মসমর্পণ করে তবে তা ভালো হবে। তা না হলে তাদের গ্রেপ্তার করা হবে। তাদেরকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেয়া হবে।  

ই. এম নামের পরিচিত ওই তরুণী লন্ডন পুলিশকে জানিয়েছেন, তিনি হকি কানাডা ফাউন্ডেশন গালা এবং গল্ফ ইভেন্টের সময় ২০১৮ সালে লন্ডনের একটি হোটেল কক্ষে জুনিয়র হকি খেলোয়াড়দের দলবদ্ধ যৌন নিপীড়নের শিকার হন। ওই সময় তার ২০ বছর ছিল। ই. এম অভিযোগ করেন, তিনি লন্ডনের একটি স্থানীয় বারে এই দলের এক খেলোয়াড়ের সঙ্গে দেখা করেছিলেন। যেখানে তারা মদ্যপান করেছিলেন। তারপর তিনি তাদের হোটেলে যান এবং ওই খেলোয়াড়ের সঙ্গে যৌন মিলন করেন। কিন্তু এক পর্যায়ে ওই খেলোয়াড় পাশের কক্ষ থেকে তার দলের সাত খেলোয়ারকে নিয়ে আসেন। তারা সবাই তার সঙ্গে জোরপূর্বক যৌন মিলন করেন। এ সময় তাদের কয়েকজনের হাতে হকিস্টিক ছিল। এতে করে আমি নিজের প্রাণ বাঁচাতে কোনো রকম বাধা দেইনি।

 

একুশে সংবাদ/স.ট.প্র/জাহা
 

Link copied!