ঢাকা রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. পডকাস্ট

ইতিহাস গড়ে সাফ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের নারীরা


Ekushey Sangbad
ক্রীড়া প্রতিবেদক
০৬:০৮ পিএম, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২
ইতিহাস গড়ে সাফ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের নারীরা

নেপালকে কাঁদিয়ে প্রথমবার সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা জিতল বাংলাদেশের নারীরা। অর্থাত ইতিহাস গড়ে, দক্ষিণ এশিয়ার এই নারী টুর্নামেন্টে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ। ইতিহাস গড়ে সাফ নারী টুর্নামেন্টের বিগত সব আসরের চ্যাম্পিয়ন ভারত।

 

এবার সেই ভারতবিহীন ফাইনালে স্বাগতিক নেপালের বিপক্ষে ফাইনালে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ।  ফাইনালে নেপালকে ৩-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে ২২ বছর পর শিরোপা জিতলো বাংলাদেশ।

 

অবশ্য নেপাল বিগত সময়ে চারবার ফাইনাল খেললেও শিরোপা জিততে পারেনি। আর বাংলাদেশের একমাত্র ফাইনালেও ছিল ভারত বাধা।

 

দক্ষিণ এশিয়ার নারী ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় বিকেল সোয়া পাঁচটায়। কাঠমান্ডুর দশরথ রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে নেতালে অনুষ্ঠিত সেই জমজমাট ফাইনালের প্রথমার্ধেই যে ২-০ গোলে এগিয়ে গেছে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা।

 

খেলার ১৪ মিনিটে দুর্দান্ত গোলে এগিয়ে যাওয়ার আনন্দে ডানা মেলে বাংলাদেশ। সানজিদা খাতুনের শট এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে পেয়ে যান মনিকা। একজনকে কাটিয়ে বাইলাইনের একটু উপর থেকে তিনি ক্রস বাড়ালেন বক্সে, শামসুন্নাহারের দুরন্ত ফ্লিকে জাল খুঁজে পায়। টুর্নামেন্টে নেপালের জালে এটাই প্রথম গোল।

 

আক্রমণের সুরটা বেঁধে দিলেন মনিকা চাকমা। চোখ ধাঁধানো শটে গোল করলেন শামসুন্নাহার জুনিয়র। ৪১তম মিনিটে গোল পেলেন কৃষ্ণা রানী সরকার। মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে স্বাগতিক নেপালের বিপক্ষে এগিয়ে থাকার স্বস্তি নিয়ে বিরতিতে গেল গোলাম রব্বানী ছোটনের দল।

 

দ্বিতীয়ার্ধে গোল শোধের জন্য মরিয়া হয়ে উঠে নেপাল। আক্রমণের ধার বাড়ায় তারা। একের পর এক আক্রমণে বাংলাদেশের রক্ষণের কঠিন পরীক্ষাই নিচ্ছিলেন তারা।  নিজেদের সেরা স্ট্রাইকার সাবিত্রা ভান্ডারিকে মাঠে নামান কোচ কুমার থাপা। একের পর এক আক্রমণে ৭০ মিনিটে সফলতার মুখ দেখে নেপাল। অনিতা বাসনেতের গোলে ব্যবধান কমায় তারা। বক্সের বাইরে থেকে সতীর্থের আড়াআড়ি পাস পেয়ে বাঁ পায়ের কোনাকুনি শটে বল জালে জড়ান অনিতা।

তবে নেপালের আক্রমণ সামলে, প্রতি আক্রমণে গোলের ব্যবধান বাড়ানোর চেষ্টা করছিল বাংলাদেশও। সেই সুবাদে ৭৭ মিনিটে কৃষ্ণার দ্বিতীয়বার লক্ষ্যভেদে আবারও চালকের আসনে বসে বাংলাদেশ। এই গোলের পরই জয় অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায় বাংলাদেশের। প্রায় মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের থ্রু পাস বক্সে ঢুকে আয়ত্বে নিয়ে ডানপায়ের প্লেসিংয়ে ব্যবধান ৩-১ করেন কৃষ্ণা।

প্রথমবারের মতো নারী সাফ চ্যাম্পিয়ন হয়ার আনন্দকে ভিন্ন মাত্রা দিয়েছে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়া। পুরো আসরে বাংলাদেশ গোল হজম করল মাত্র একটি। অন্যদিকে ফাইনালের আগ পর্যন্ত নিজেদের জাল অক্ষত রেখেছিল নেপালও।  

দেশের নারী ফুটবল এক নতুন জাগরণের সুর উঠেছে। এই সুরেই একদিন বিশ্ব জয়ের স্বপ্ন দেখছেন দেশের ফুটবলপ্রেমীরা।
 

 

 

একুশে সংবাদ/এসএস