ঢাকা শনিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

গোদাগাড়ীতে ১১ শিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা 


Ekushey Sangbad
নিজস্ব প্রতিবেদক
০৮:২৭ পিএম, ১৩ অক্টোবর, ২০২১
গোদাগাড়ীতে ১১ শিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা 

রাজশাহীর গোদাগাড়ী সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষসহ১১ শিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত।২০১৮ সালের ১৯ আগস্ট কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রহমানকে মারধর ও হামলার অভিযোগে ১১ শিক্ষককে কয়েকজনকে আসামী করে গোদাগাড়ী মডেল থানায় আসামী করে মামলা দায়ের করে অধ্যক্ষ। 

আসামীরা হলো,গোদাগাড়ী সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষ ও নওগাঁ জেলার নিয়ামতপুর থানার কেন্দুয়া গ্রামের মুনসুর রহমানের ছেলে উমরুল হক (৫২), সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ও গোদাগাড়ী উপজেলার কেল্লা বারইপাড়া গ্রামের মৃত এরফান আলীর ছেলে এবিএম কামারুজ্জামান (৫৯), রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ও গোদাগাড়ী উপজেলার সারাংপুর গ্রামের অয়েজউদ্দিন বিশ্বাসের ছেলে তাইনুস আলী (৩৫), দর্শন বিভাগের প্রভাষক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার তৈয়ব আলীর ছেলে মাইনুল ইসলাম (৪৫), সমাজ কল্যাণ বিভাগের প্রভাষক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরের মৃত এমাজ উদ্দিনের ছেলে হান্নান হোসাইন (৫৭), মনো বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ও গোদাগাড়ী থানার বুজরুক গ্রামের জসিম উদ্দিন সরকারের ছেলে ফারুক হোসেন (৫২),গোদাগাড়ী সরকারি কলেজের প্রাণি বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ।

ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের নয়ানশুকা গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে শহীদুল হক (৫৯), গোদাগাড়ী সরকারি কলেজের আইসিটি বিভাগের প্রভাষক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর থানার রোকনপুর গ্রামের বানী ইসরাইলের ছেলে ইউনুস আলী (৩৩), সহকারী অধ্যাপক ও রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানার প্যারামেডিক্যাল রোডের মৃত আনোয়ার হোসেনের ছেলে জহিরুল ইসলাম (৫২), দর্শন বিভাগের প্রভাষক আব্দুল করিম (৫১) ও ব্যাংকিং বীমা বিভাগের প্রভাষক মাজহারুল ইসলাম (৫১)।

গোদাগাড়ী থানা পুলিশ মামলারটির তদন্ত করে আসামীদেরকে অব্যাহিত দেয়। বাদী পক্ষের আইনজীবীআদালতে নারাজীর আবেদন করেন। ওই আবেদনের প্রেক্ষিতেই মামলার তদন্তভার দেয়া হয় পুলিশ ব্যুরো 

অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআইকে)। তদন্ত করে ১১ শিক্ষকের বিরুদ্ধে অবিযোগ পত্র(চার্জশীট) দাখিল করে। পিবিআই তদন্ত রিপোর্ট জমা দিলে আদালত অভিযুক্ত ১১শিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করেন।রোববার রাজশাহীর অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জুয়েল আধিকারী এ পরোয়ানা জারি করেছেন। প্রসঙ্গত ২০১৮ সালের ১৮ আগস্ট গোদাগাড়ী সরকারী কলেজের পরিচালচানা পরিষদের সভা চলাকালীন সময়ে মারামারির ঘটনা ঘটে।

গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) কামরুল ইসলাম বলেন, বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার কাগজ থানায় আসেনি। তবে কাগজ পাওয়া ত্রই আসামীদের আটক করা হবে।   

একুেশ সংবাদ /বে/আ