AB Bank
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

২০২৩ সাল এবং ২০২৪ সালের প্রথম তিন মাসে ব্র্যাক ব্যাংক লক্ষ্যণীয় সাফল্য অর্জন করেছে


Ekushey Sangbad
নিজস্ব প্রতিবেদক
০৪:৫০ পিএম, ২০ মে, ২০২৪
২০২৩ সাল এবং ২০২৪ সালের প্রথম তিন মাসে ব্র্যাক ব্যাংক লক্ষ্যণীয় সাফল্য অর্জন করেছে

চ্যালেঞ্জিং বাজার পরিস্থিতি সত্ত্বেও ২০২৩ সালে ব্র্যাক ব্যাংক সমন্বিত কর-পরবর্তী নিট মুনাফায় (এনপিএটি) ৩৫% প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে। ২০২৩ সালে সকল অঙ্গপ্রতিষ্ঠানসহ ব্যাংকটির সমন্বিত আর্থিক হিসাবে কর-পরবর্তী নিট মুনাফা উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়ে ৮২৮ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে, যা ২০২২ সালে ছিল ৬১৪ কোটি টাকা।

আগের বছরের তুলনায় ২৭% বৃদ্ধি পেয়ে ২০২৩ সালে ব্র্যাক ব্যাংকের একক (স্ট্যান্ডঅ্যালন) কর-পরবর্তী নিট মুনাফা দাঁড়িয়েছে ৭৩০ কোটি টাকায়। বাজার অস্থিরতা সত্ত্বেও আমানতে ৩৪% এবং ঋণে ২৬% প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে ব্র্যাক ব্যাংক ব্যালেন্স শিটে শক্তিশালী প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। ২০২৪ সালের প্রথম তিন মাসে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ব্র্যাক ব্যাংকের সমন্বিত কর-পরবর্তী মুনাফা ৯১%
বৃদ্ধি পেয়ে ৩১৮ কোটি টাকায় উন্নীত হয়েছে।

১৩ মে ২০২৪ ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে ব্যাংকটির ২০২৩ আর্থিক বছর এবং ২০২৪ সালের প্রথম তিন মাসের আার্থিক ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এই ইভেন্টটি ব্যাংকের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচারিত হয়, যেখানে অংশগ্রহণ করেছিলেন ব্যাংকটির স্থানীয় ও বিদেশি স্টেকহোল্ডার, বিনিয়োগ-বিশ্লেষক, পোর্টফোলিও ম্যানেজার ও পুঁজিবাজার বিশেষজ্ঞবৃন্দ।অনুষ্ঠানে ব্র্যাক ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও সেলিম আর. এফ. হোসেন এবং ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ব্যাংকটির আর্থিক ফলাফল, উল্লেখযোগ্য অর্জন, শক্তিশালী অবস্থান এবং ভবিষ্যতের ব্যবসায়িক কৌশল তুলে ধরেন। ব্যাংকের আর্থিক ফলাফল প্রকাশ শেষে ব্র্যাক ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

২০২৩ সালে ব্যাংকের উল্লেখযোগ্য অর্জনসমূহ: 
 সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ২০২২ সালের ৩.৭৫ টাকা থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ২০২৩ সালে ৪.৭৩
টাকায় উন্নীত হয়েছে;
 ২০২৩ সালে ব্যাংকের সমন্বিত নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) শেয়ার প্রতি ৪১.৩৬ টাকায় উন্নীত হয়েছে, যা ২০২২ সালে ছিল ৩৮.০৩ টাকা ছিল;
 ২০২৩ সালে ব্যাংকের লোন পোর্টফোলিও ২৬% বৃদ্ধি পেয়েছে, যখন দেশের ইন্ডাস্ট্রি অ্যাভারেজ ১০.৬০%;
 ২০২৩ সালে ব্যাংকের আমানত ৩৪% বৃদ্ধি পেয়েছে। উল্লেখ্য, এক্ষেত্রে দেশের ইন্ডাস্ট্রি অ্যাভারেজ
১১.১০%;
 সমন্বিত রিটার্ন অন ইক্যুইটি (আরওই) এবং রিটার্ন অন অ্যাসেট (আরওএ) যথাক্রমে ১১.৯২%
এবং ১.০২%- এ উন্নীত হয়েছে;
 ঋণ বিতরণ বৃদ্ধি, অধিক ইন্টারেস্ট আয়, দক্ষ তহবিল ব্যবস্থাপনা এবং অধিক নন-ফান্ডেড আয়ের ফলে
আগের বছরের তুলনায় ২০২৩ সালে ব্যাংকের মোট সমন্বিত আয় ২৩% বৃদ্ধি পেয়েছে;
 কর্মীদের বেতন, অন্যান্য পরিচালন ব্যয়ের ওপর মুদ্রাস্ফীতির প্রভাব এবং প্রবৃদ্ধি কৌশলের অংশ
হিসেবে মানবসম্পদ, প্রযুক্তি ও অবকাঠামোতে বিনিয়োগের ফলে ২০২২ সালের তুলনায় ২০২৩ সালে ব্যাংকের সমন্বিত পরিচালন ব্যয় ১৬% বৃদ্ধি পেয়েছে;
 ব্যাংকের নন-পারফর্মিং লোন (এনপিএল) উল্লেখযোগ্যভাবে কমেছে, যা ২০২২ সালের ৩.৭২% থেকে কমে ২০২৩ সালে ৩.৩৮% হয়েছে। এটি মূলত ব্যাংকের কার্যকর নন-পারফর্মিং অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট,
আন্ডাররাইটিং, মনিটরিং এবং রিকভারি কৌশলকে নির্দেশ করে।

২০২৪ সালের প্রথম তিন মাসে ব্যাংকের উল্লেখযোগ্য অর্জনসমূহ: 
 সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ২০২৩ সালের প্রথম তিন মাসের ০.৮৯ টাকার তুলনায় ২০২৪ সালের একই সময়ে ১.৭০ টাকায় উন্নীত হয়েছে;
 ৩১ মার্চ ২০২৪ এ ব্যাংকের সমন্বিত নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) শেয়ার প্রতি ৪২.৯৭ টাকায় উন্নীত হয়েছে,
যা ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে ছিল ৪১.৩৬ টাকা;
 ২০২৩ সালের ডিসেম্বরের তুলনায় ২০২৪ সালের প্রথম তিন মাসে ব্র্যাক ব্যাংকের একক (স্ট্যান্ডঅ্যালন)
আমানত ৮% বৃদ্ধি পেয়েছে। এটি ব্যাংকের দীর্ঘমেয়াদী প্রবৃদ্ধি-কৌশল এবং গ্রাহক আস্থার প্রতিফলন;
 সমন্বিত রিটার্ন অন ইক্যুইটি (আরওই) এবং রিটার্ন অন অ্যাসেট (আরওএ) যথাক্রমে ১৬.১১%
এবং ১.২৫%- এ উন্নীত হয়েছে;
 বিনিয়োগ, নন-ফান্ডেড আয় এবং ইন্টারেস্ট আয় বাড়ায় ২০২৩ সালের প্রথম তিন মাসের তুলনায় ২০২৪ সালে ব্যাংকের মোট সমন্বিত আয় ৪৩% বৃদ্ধি পেয়েছে;
 নন-পারফর্মিং লোনের (এনপিএল) হার হ্রাসে ব্যাংকের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। যার ফলে ২০২৩ সালের
ডিসেম্বরে থাকা নন-পারফর্মিং লোন (এনপিএল) ৩.৩৮% থেকে কমে ২০২৪ সালের প্রথম তিন মাসে ৩.৩০%- তে উন্নীত হয়েছে।

ব্র্যাক ব্যাংকের আর্থিক ফলাফল সম্পর্কে ব্যাংকটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও সেলিম আর. এফ.
হোসেন বলেন, “মধ্যমেয়াদি কৌশল অনুসরণ করার মাধ্যমে আমাদের ব্যাংক শক্তিশালী প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে।

আমানত ও ঋণে ব্র্যাক ব্যাংকের প্রবৃদ্ধি দেশের বিদ্যমান ইন্ডাস্ট্রি অ্যাভারেজের চেয়ে অনেক ভালো। এটি ব্যাংকের প্রতি গ্রাহকদের আস্থা এবং ব্যাংকের দীর্ঘমেয়াদী টেকসইতার প্রমাণ। ডিজিটাল প্রযুক্তি এবং বিশেষায়িত প্রোডাক্টের মাধ্যমে গত বছর আমাদের ব্যাংক গ্রাহক সেবা এবং কাস্টমার প্রপোজিশনে উল্লেখযোগ্য উন্নতি সাধন করেছে। প্রবৃদ্ধির এই ধারা অব্যাহত রেখে ২০২৫ সালের মধ্যে আমরা আমাদের ব্যবসায় দ্বিগুণ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করছি।”

তিনি আরও বলেন, “বাংলাদেশে কর্পোরেট গভর্ন্যান্স, কমপ্লায়েন্স এবং মূল্যবোধ-ভিত্তিক ব্যাংকিংয়ের রোল মডেল হিসেবে ব্র্যাক ব্যাংক সকল স্টেকহোল্ডারদের কাছে স্বীকৃতি। আমরা আমাদের চেয়ারপারসন এবং পরিচালনা পর্ষদকে তাদের পরামর্শের জন্য, কেন্দ্রীয় ব্যাংককে তাঁদের প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনার জন্য এবং আমাদের গ্রাহকদের ব্র্যাক ব্যাংকের প্রতি অবিচল আস্থার জন্য আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।”

 

একুশে সংবাদ/এস কে  

 

Link copied!