ঢাকা রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

পলাশে নিখোঁজ কিশোর হত্যা মামলায় ২ জন গ্রেফতার 


Ekushey Sangbad
জেলা প্রতিনিধি, নরসিংদী 
০৯:৫০ এএম, ১ মার্চ, ২০২১
পলাশে নিখোঁজ কিশোর হত্যা মামলায় ২ জন গ্রেফতার 

নরসিংদীর পলাশে নিখোঁজের ১০দিন পর হারিধোয়া নদীতে মোঃ ইয়াকুব মিয়া (১৭) নামে এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি)  রাতে নিহতের মা আমেনা বেগম বাদী হয়ে পলাশ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

এ মামলায় রবিবার সকালে নরসিংদী সদর উপজেলার রাজাদী গ্রামে অভিযান চালিয়ে সন্দেহভাজন দুই যুবক পাবেল মিয়া (২৫) ও আল-আমিন (২৫) কে গ্রেফতার করেছে পলাশ থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত পাবেল মিয়া রাজাদী গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে ও আল- আমিন একই গ্রামের চাঁন মিয়ার ছেলে। 

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, নিহত ইয়াকুব মিয়া পলাশ উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের ধনাইরচর গ্রামের মোঃ ইলিয়াস মিয়ার ছেলে। সে পেশায় একজন অটোরিকশা চালক। ১৭ ফেব্রুয়ারি বিকেলে তার অটোরিকশা ভাড়া নিয়ে পাবেল মিয়া ও আল- আমিন ঘুরতে গিয়ে ভাড়া পরিশোধ না করে উল্টো তাকে মারধর করে ৪০০ টাকা ছিনেয় নেয়। পরে রাতে বাসায় ফিরে ইয়াকুব তার মা আমেনা বেগমকে এ ঘটনাটি জানায়।

১৮ ফেব্রুয়ারি অটোরিকশা চালানোর জন্য বাড়ি থেকে বের হয় ইয়াকুব। পরে তাকে কোথাও খুঁজে না পেয়ে তার সন্ধান পেতে পলাশ থানায় সাধারণ ডাইরি করেন তার মা। এদিকে নিখোঁজের ১০ দিন পর ২৭ ফেব্রুয়ারি সকালে দড়িরচর এলাকার হারিধোয়া নদীতে ঐ কিশোরের লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেন। পরে পলাশ থানা পুলিশ নিহত ইয়াকুব মিয়ার পরিচয় শনাক্ত করেন।

এ বিষয়ে পলাশ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মো. নাসির উদ্দীন জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে অটোরিশকা ছিনতাই করার উদ্দেশ্যে চালক ইয়াকুব মিয়াকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে এবং তার লাশ হাড়িধোয়া নদীতে ফেলে দেওয়া হয়। যেহেতু আগের দিন ১৭ ফেব্রুয়ারি অটোভাড়া ও টাকা নিয়ে যাওয়ার একটি ঘটনা ঘটেছে। তাই চালক ইয়াকুব মিয়ার মা আমেনা বেগমের বর্ণনা অনুযায়ী সন্দেহজনক ভাবে পাবেল মিয়া ও আল-আমিন মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ইয়াকুব মিয়ার অটোরিক্সাটি উদ্ধার করা ও এই হত্যাকান্ডের প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটনে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

একুশেসংবাদ/সাব্বির/অমৃ