AB Bank
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

কলকাতার হোটেলে শাহিন ও সেলেস্তার অবস্থানের ভিডিও মিলল


Ekushey Sangbad
নিজস্ব প্রতিবেদক
০৫:৩৭ পিএম, ২৫ মে, ২০২৪
কলকাতার হোটেলে শাহিন ও সেলেস্তার অবস্থানের ভিডিও মিলল

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অভিযুক্ত আমানউল্লাহ শাহিন ও সেলেস্তা রহমানের একটি ভিডিও ফুটেজ মিলেছে। এ দুজনের কলকাতার নিউটাউনের একটি হোটেলে অবস্থানের ৩০ এপ্রিলের একটি ভিডিও ফুটেজ দেশের একটি গণমাধ্যমের কাছে এসেছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, ট্রলিব্যাগসহ আমানউল্লাহ শাহিন ও সেলেস্তা রহমান বেরিয়ে আসছেন। এ সময় দুজন বেশ তাড়াহুড়া করছেন বলেই ভিডিওতে দেখা যায়। ঠিক কী কারণে তাঁরা সেখানে যান, এ বিষয়ে এখনো বিস্তারিত জানা যায়নি।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান হারুন অর রশিদ বলেন, আজীমকে ক্লোরোফর্ম প্রয়োগে হত্যা করা হয়েছে। এরআগেও আনোয়ারুল আজীমকে হত্যা করতে দুবার পরিকল্পনা করেছিল খুনিরা। সবশেষ তৃতীয় বার তারা সফল হয়েছেন।

নির্বাচনের আগে একবার পরিকল্পনা করা হয়েছিল বলে জানান ডিবি প্রধান হারুন। তিনি বলেন, প্রথমে বাংলাদেশে হত্যা করার চিন্তা থাকলেও পরে আক্তারুজ্জামান শাহিন ভারতে হত্যার পরিকল্পনা করেন।

এ ছাড়া এই মামলা তদন্তে শিগগিরই হারুন অর রশিদের নেতৃত্বে গোয়েন্দাদের একটি দল ভারত যাবে বলেও জানান ডিবি প্রধান। তবে, ঠিক কি কারণে এমপি আজীমকে হত্যা করা হয়েছে, তা এখনো নিশ্চিত নয় গোয়েন্দারা।

গত ১২ মে কলকাতায় চিকিৎসা করানোর জন্য যান ঝিনাইদহের সাংসদ আনোয়ারুল আজীম। ১৩ তারিখ নিউটাউনের ফ্ল্যাটে খুন হন সাংসদ। দুদিন নিখোঁজ থাকার পর তাঁর হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি ভারতের পুলিশ জানতে পারে। হত্যায় জড়িত সন্দেহে বাংলাদেশে তিনজন গ্রেপ্তার হয়েছেন। অন্যদিকে বনগাঁ থেকে গ্রেপ্তার হয় জিহাদ ও সিয়াম।

এদিকে, আজীমকে হত্যার উদ্দেশ্যে অপহরণের মামলায় গ্রেপ্তার তিন আসামির ৮ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। শুক্রবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দিলরুবা আফরোজ তিথির আদালত রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড পাওয়া আসামিরা হলেন, আমানুল্লাহ ওরফে শিমুল ভূঁইয়া, সেলেস্তা রহমান ও তানভির ভূঁইয়া।

এর আগে, তাদের আদালতে আনা হলে তদন্তকারী সংস্থা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) প্রত্যেক আসামির ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন। শুনানি শেষে ৮ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর হয়।

 

একুশে সংবাদ/স.ল.প্র/জাহা 
 

Link copied!