ঢাকা সোমবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

রমনার লেকে দেশী মাছ অবমুক্তকরণ 


Ekushey Sangbad
নিজস্ব প্রতিবেদক
০৫:৩৩ পিএম, ৯ অক্টোবর, ২০২১
রমনার লেকে দেশী মাছ অবমুক্তকরণ 

বিলিভার্স এ্যাংলার বিডি সৌখিন মৎস্য শিকারী সংগঠন ও ভোরের সাথী রমনা যৌথ আয়োজনে রমনা লেকে বিভিন্ন প্রকার দেশী জাতের মাছের পোনা অবমুক্তকরণ এর শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।

শুক্রবার (৮অক্টোবর) ৫.৩০ ঘটিকার সময় জাতীয় গৃহায়ণ গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ শহীদউল্লা খন্দকার এই উদ্বোধন করেন। এই সময় তিনি বলেন, আপনারা জানেন রমনা পার্কে আমরা যেখানে দাড়িয়ে আছি এটা ঢাকার শহরের মধ্যে সবচেয়ে বড় পার্ক। এই পার্ক গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধিনে রয়েছে। এই পার্ককে সুন্দর করার জন্য নতুন এবং আধুনিক আকারের কাজ চলমান রয়েছে। লেকের পারে আরো উন্নত মানের কাজ হচ্ছে। আগে লেকের পানির কি অবস্থা ছিলো, আমরা উদ্যোগ নিয়ে সকল ময়লা আবর্জনা পরিস্কার করেয়েছি। এখন পানি পরিষ্কার হয়েছে। পার্কে ঘুরতে  আশা দর্শনার্থীর জন্য যে ক্যান্টিন আপনারা দেখছেন এটা অনেক বছর  আগের করা, এবার আমরা উদ্যোগ নিয়েছি এটাকে উন্নত মানের দুই তলা কফি হাউস করার জন্য। পার্কে অক্সিজেন এর পরিমান বাড়ানোর জন্য কিছু অক্সিজেন গাছ লাগানো হচ্ছে। এছাড়াও ঘুরতে আসা দর্শনার্থীর জন্য আরো অনেক উন্নত মানের কাজ হবে এই রমনা পার্কে। 

তিনি আরও বলেন, আপনারা জানেন এক সময় এই পার্কে ছিনতাইকারী মাদকদ্রব্য নেশা খোড়ের আড্ডা ছিলো, তবে এখন আমাদের নাইটগার্ড আনছার বাহিনীদের করা নজরদারিতে এসব বন্ধ হয়েছে। রাতের বেলায় কেউ যেন অনৈতিক কাজ করতে না পারে, সেই জন্য লেকের পারে লাইটিংয়ের ব্যাবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও লেকের উন্নয়নমূলক কাজ আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ হবে। সব কাজ শেষ হলে তখন  অনেক সুন্দর লাগবে এই রসনা পার্ক। কথা দিচ্ছি আমরা, দ্রুত এই প্রকল্পের কাজ শেষ করবো ইনশাআল্লাহ্!

উক্ত মৎস্য অবমুক্তকরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, জাতীয় দৈনিক গণমুক্তি'র প্রধান সম্পাদক,ও বিলিভার্স এ্যাংলার বিডি'র উদ্যোগ দাতা মোঃ রিপন তরফদার নিয়াম। এই সময় তিনি বলেন, অবসর সময় কাটানোর জন্য নিঃস্বার্থ ভাবে সরকারি এই জায়গায় মাছ শিকার করি এবং আমরা প্রতি বছর লেকে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ করি। আমরা  গত বছরও দেশী বিভিন্ন জাতের মাছের পোনা অবমুক্ত করে ছিলাম, যেহেতু এইটা গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় অধীনে তাই আমরা সচিব মহোদয়কে চেয়েছিলাম কিন্তু বৈশ্বিক করোনা মহামারীর কারণে তিনি উপস্থিত হতে পারেনি। কিন্তু এবার তিনি উপস্থিত হওয়ায় আজ আমরা অনেক আনন্দিত।

রমনা পার্কের উন্নয়ন নিয়ে তিনি আরো বলেন, রমনা পার্ক ইতি মধ্যে খুব সুন্দর মূলক অনেক উন্নয়ন কাজ হয়েছে, সব কাজ শেষ হলে এর সৌন্দর্য আরো বাড়বে।

এছাড়াও রমনা পার্কের মৎস্য অবমুক্তকরণ অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, এ্যাডভোকেট এ.ইউ. আহম্মেদ মিঠু, ভোরের সাথী, রমনার সভাপতি ইয়াকুব আলী, সাধারণ সম্পাদক মোতাহার, হোসেন আজিজুল বারী শিপু, ভোরের সাথী ও রমনার সকল সদস্য ও বিলিভার্স এ্যাংলার বিডি'র সকল সদস্য-বৃন্দরা।

একুশে সংবাদ/রাফি