AB Bank
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

ম্যাক্সওয়েলের ব্যাটে জয় পেল অস্ট্রেলিয়া


Ekushey Sangbad
ক্রীড়া প্রতিবেদক
১০:৫২ পিএম, ৭ নভেম্বর, ২০২৩
ম্যাক্সওয়েলের ব্যাটে জয় পেল অস্ট্রেলিয়া

আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপে আফগানিস্তানের বিপক্ষে দারুন এক জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে অস্ট্রেলিয়া। আফগানিস্তানের দেওয়া লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। দলীয় শতরানের আগেই ৭ উইকেট হারিয়ে যখন রীতিমতো ধুঁকছিল অজিরা, তখনই ত্রাতা হয়ে আসেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ১২৮ বলে ২০১ রানের অতিমানবীয় এক ইনিংসে হারের শঙ্কা কাটিয়ে আস্ট্রেলিয়াকে অবিশ্বাস্য এক জয় উপহার দেন ‘ম্যাক্সি’।

মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে আফগানিস্তানের দেয়া ২৯২ রানের দেয়া টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ট্রাভিস হেডের উইকেট হারায় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভার করতে আসা নাভিনের গুড লেন্থের বল ব্যাটের কানায় লেগে উইকেটরক্ষক ইকরাম আলীখিলের হাতে ধরা পড়েন এই অজি ওপেনার। শূন্য রানেই সাজঘরে ফেরেন হেড।

তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামা মিচেল মার্শ ক্রিজে এসেই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করতে থাকেন। আম্ররশের পাশাপাশি ডেভিড ওয়ার্নারও বাউন্ডারি হাঁকাতে থাকেন। তবে আজি শিবিরে আবারও আঘাত হানেন নাভিন। এই আফগান পেসারের ইন সুইং বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন মার্শ। ২টি ছক্কা ২টি চারের সাহায্যে ১১ বলে ২৪ রানে ফেরেন এই অজি অলরাউন্ডার।

এরপর বল হাতে অজি ইনিংসে ধস নামান আজমতউল্লাহ। ইনিংসের নবম ওভারে জোড়া উইকেট তুলে নেন এই ডানহাতি পেসার। ফেরান ওয়ার্নার ও জস ইংলিসকে। পাওয়ারপ্লে শেষে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৪ উইকেট হারিয়ে ৫২ রান।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন আফগানিস্তান অধিনায়ক হাশমতউল্লাহ শাহিদী। দলটির হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন রহমানউল্লাহ গুরবাজ ও ইব্রাহিম জাদরান। এ দুই ব্যাটার নির্বিঘ্নে ৭.৫ ওভার কাটিয়ে দেন।

তবে অষ্টম ওভারের শেষ বলে হ্যাজেলউড ম্যাজিকে মিচেল স্টার্কের তালুবন্দী হন গুরবাজ। আউট হওয়ার আগে ২১ রান করেন এ আফগান ওপেনার।

পরে বাইশ গজে আসেন রহমত শাহ। তার সঙ্গে ৮৩ রানের জুটি গড়েন ইব্রাহিম জাদরান। ম্যাচের ২৫তম ওভারে ম্যাক্সওয়েলের ঘূর্ণিতে কাটা পড়েন রহমত। সাজঘরে ফেরার আগে ৩০ করেন এ ডানহাতি ব্যাটার।

এরপর ক্রিজে আসেন আফগান দলপতি হাশমতউল্লাহ শাহিদী। উইকেটে এসে থিতুও হন তিনি। তবে ব্যক্তিগত ইনিংস লম্বা করতে ব্যর্থ হয়েছেন তিনি। ম্যাচের ৩৮তম ওভার শাহিদীর স্ট্যাম্প উপড়ে ফেলেন মিচেল স্টার্ক।

আফগান দলপতির বিদায়ে উইকেটে আসেন আজমতউল্লাহ ওমরজাই। ব্যাট হাতে ভালো শুরু পান তিনি। অবশ্য ২২ রানেই থামতে হয় তাকে। এরপর ক্রিজে আসেন মোহাম্মদ নবী। তবে ব্যর্থ হয়ে সাজঘরে ফেরেন এ অভিজ্ঞ ব্যাটার।

অজি বোলারদের তুলোধুনো করে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরি তুলে নেন ইব্রাহিম। আর শেষ মুহূর্তে ঝড়ো গতিতে রান তোলেন রশিদ খান। এতে আফগানদের ইনিংস থামে ২৯১ রানে।

এদিন অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সর্বোচ্চ ২ উইকেট শিকার করেন জস হ্যাজেলউড।

 

একুশে সংবাদ/স.শ.প্র/জাহা

Link copied!