ঢাকা শনিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. পডকাস্ট

অপু-বুবলী আমার অতীত, সম্পর্ক জোড়া লাগার সম্ভাবনা নেই: শাকিব


Ekushey Sangbad
বিনোদন ডেস্ক
০৬:২৯ পিএম, ২৫ নভেম্বর, ২০২২
অপু-বুবলী আমার অতীত, সম্পর্ক জোড়া লাগার সম্ভাবনা নেই: শাকিব

নাকফুলকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়েছিল ঢালিউডের কিং খান খ্যাত শাকিব খানের সাবেক ও বর্তমান স্ত্রী অপু-বুবলির মধ্যে। গত কয়েকদিন ধরে সোশ্যাল ও সংবাদমাধ্যমে আলোচনায় অভিনেত্রী শবনম বুবলী ও অপু বিশ্বাসের ফেসবুক স্ট্যাটাস। তারা একে অপরের নাম উল্লেখ না করে পাল্টাপাল্টি মন্তব্য করতে থাকেন। যার শুরু হয় জন্মদিন উপলক্ষ্যে শাকিব খানের কাছ থেকে বুবলীর ডায়মন্ডের নাকফুল পাওয়াকে কেন্দ্র করে।

 

বুবলীকে নাকফুল উপহার দেয়ার কথা বৃহস্পতিবারই (২৪ নভেম্বর) সংবাদমাধ্যমে অস্বীকার করেন ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান। তার এই বক্তব্যের পরে শুরু হয় ধোঁয়াশার। তাহলে কি মিথ্যাচার করছেন ‘বসগিরি’ সিনেমার নায়িকা!

 

এর আগে বুবলীর উপহার পাওয়ার সংবাদ ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্টে শেয়ার করে অপু স্ট্যাটাস দেন, ‘কী যে মজা’। আর এর আগে জুড়ে দেন দশটি হাসির ইমোজি।

 

ঢালিউড কুইনের এই স্ট্যাটাসের পর থেকে নেটিজেনদের একাংশের ধারণা, তাহলে কি শাকিব খানের সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে অপু বিশ্বাসের? দু’জনের মধ্যে কি কথা হয় নিয়মিত? সেই বিষয়ে কথা বলেছেন শাকিব খান।

 

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) শাকিব খান একটি গণমাধ্যমকে বলেন, মানুষ সম্পর্ক করে টিকিয়ে রাখার জন্য। কেউই সংসার ভাঙার জন্য সম্পর্ক করে না। আমিও তেমনটা ভেবেছি। কিন্তু সম্পর্ক করতে গিয়ে দেখি, সেটা আর ভালো অবস্থানে নেই। চেষ্টা হলো, আবার সব ব্যর্থও হলো। এরপর মনে হলো, খারাপ কোনো সম্পর্ক নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার মানে হয় না। আমার কাছে মনে হয়, মা-বাবার মধ্যে ভালো সম্পর্ক না থাকলে তার মাঝে সন্তান বেড়ে ওঠার থেকে আলাদা করে বেড়ে ওঠাই তুলনামূলক ভালো।

 

তিনি আরও বলেন, আমি শাকিব খান যেমন আব্রাম খান জয়ের বাবা, তেমনি ওর মা অপু বিশ্বাস। বাবা হিসেবে সন্তানের সঙ্গে দেখা হয় আমার। মাঝে মাঝে আমার সঙ্গে থাকে জয়। আবার ওর দাদা-দাদির সঙ্গে থাকে। সে যেহেতু ছোট, একা আসতে পারে না, এ কারণে জয়কে আনার ওছিলায় তার মা আসে। তবে আমাদের মধ্যে সন্তানের বাইরে অন্য কোনো বিষয়ে কথা হয় না। মাঝে মাঝে জয়ের স্কুলে যাওয়া হয় আমার। সেখানেও দেখা হয়।

 

তিনি বলেন, শেহজাদ খান বীরের সঙ্গেও দেখা হবে আমার। সেও আমার সঙ্গে থাকবে। এখন তো সে অনেক ছোট। এ কারণে আলাদা করে রাখতে পারি না নিজের কাছে। তবে শিগগিরই তার আসা-যাওয়া হবে আমার বাড়িতে। সেও দাদা-দাদি, ফুফা-ফুফুর আদর-স্নেহ পাবে। শেহজাদ যখন স্কুলে যাওয়া-আসা শুরু করবে, তখন তারও মায়ের সঙ্গে দেখা হবে আমার। এটা স্বাভাবিক।

 

অপু ও বুবলীর বিষয়ে স্পষ্ট করে এই নায়ক আরও বলেন, তারা দু’জন এখন আমার কাছে অতীত। কোনো অবস্থায় তাদের সঙ্গে সম্পর্ক জোড়া লাগার সম্ভাবনা নেই। অতীত মানে অতীতই। তারা দুই সন্তানের মা। সন্তানের মা হিসেবে তাদের প্রতি আমার যতটুকু সম্মান ও সম্পর্ক রাখা প্রয়োজন, ঠিক ততটুকুই থাকবে।

 

একুশে সংবাদ/পলাশ