AB Bank
ঢাকা মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ, ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

বালিয়াডাঙ্গীতে বিএনপি‍‍`র দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ৫


Ekushey Sangbad
জেলা প্রতিনিধি, ঠাকুরগাঁও
০৯:০২ পিএম, ১১ অক্টোবর, ২০২৩
বালিয়াডাঙ্গীতে বিএনপি‍‍`র দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ৫

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ ১ দফা দাবিতে আয়োজিত বিএনপি‍‍`র যৌথ সভা শুরু হওয়ার দুই মিনিটের মাথায় দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ধনতলা ইউনিয়ন বিএনপি‍‍`র দুপক্ষ বর্তমান সভাপতি সেলিম জাবেদ ও সাবেক সভাপতি সাদেকুল ইসলামের লোকজনের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

 

বুধবার (১১ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৪টায় উপজেলার ধনতলা ইউনিয়নের দৌলুয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এতে ৫ জন আহত হয়েছেন। প্রাথমিক চিকিৎসা নিলেও হাসপাতালে কেউ ভর্তি হননি। 

 

সভায় আসা বিএনপি‍‍`র নেতাকর্মীরা জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বুধবার বিকালে যৌথ সভা শুরু হওয়ার কথা ৩টায়। উপজেলা থেকে নেতারা দেরিতে উপস্থিত হওয়ার সভা শুরু হয় সাড়ে ৪টায়। শুরুতে বক্তব্য দিতে শুরু করেন উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক আবু সাঈদ। এ সময় ধনতলা ইউনিয়ন বিএনপি‍‍`র সাবেক সভাপতি সাদেকুল ইসলামের লোকজন বক্তব্য বন্ধ করে দিয়ে সেলিম জাবেদকে সভাপতি উল্লেখ করে টাঙানো অনুষ্ঠানের ব্যানার খুলতে বলেন। এতেই দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতির এক পর্যায়ে লাঠি-সোটা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সভায় উপস্থিত নেতাকর্মীদের মারপিটে সাবেক সভাপতি সাদেকুল ইসলামসহ তার ৪ জন অনুসারী আহত হয়েছেন।

 

প্রায় ১৫ মিনিট সংঘর্ষ চলার পর ঘটনাস্থল থেকে দৌড়ে পালিয়ে যায় সাদেকুল ইসলামের লোকজন। পরে পুনরায় যৌথ সভা শুরু হয়। এসময় সংক্ষিপ্ত সভায় বক্তব্য দেন উপজেলা বিএনপি‍‍`র সহ-সভাপতি আইয়ুব আলী খান, রাজিউর রহমান আসাদ, উপজেলা বিএনপি‍‍`র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক  এ্যাড. জিল্লুর রহমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন আক্তার সবুর প্রমুখ।

 

পরে পুনরায় লাঠি সোটা নিয়ে সভায় হামলার চেষ্টা করে সাদেকুল ইসলাম ও তার লোকজন। এ সময় বালিয়াডাঙ্গী থানা পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ দেখে লাঠি-সোটা নিয়ে পালিয়ে যায় সাদেকুল ইসলাম ও তার লোকজন।

 

ধনতলা ইউনিয়ন বিএনপি‍‍`র সভাপতি সেলিম জাবেদ বলেন, ব্যানারে সাদেকুল ইসলামের নাম না লেখায় সভা পন্ড করার চেষ্টা করে সাদেকুল ইসলাম ও তার লোকজন। এ সময় নেতাকর্মীদের মারপিট ও বাধার মুখে পালিয়ে যায়। পরে সংক্ষিপ্ত আকারে সভা করেছি আমরা। এ বিষয়ে উপজেলা বিএনপি ও জেলা বিএনপিকে অবগত করা হয়েছে। তারা সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেবেন।

 

এদিকে ধনতলা ইউনিয়ন বিএনপি‍‍`র সাবেক সভাপতি সাদেকুল ইসলাম বলেন, গোপনে কমিটি করে সেলিমকে সভাপতি করা হয়েছে। আমরা এই কমিটি মানিনা। তাই ব্যানার খুলতে বলা হয়েছিল। এ নিয়ে তাদের দুপক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। আহতরা প্রাথমিক ভাবে চিকিৎসা নিয়েছে। কেউ হাসপাতালে ভর্তি হয়নি।

 

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি খায়রুল আনাম বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছে। এ ঘটনা অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

প্রায় ১ বছর ধরে ধনতলা ইউনিয়ন বিএনপি‍‍`র কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে কোন্দল চলছে। একাধিকবার উপজেলা বিএনপি‍‍`র নেতারা সমাধানের চেষ্টা করলেও হয়নি। এর আগেও দ্বন্দের কারণে ওই ইউনিয়নে প্রতিবাদ সভা, ঝাড়ু মিছিল করতে দেখা গেছে বিএনপি‍‍`র নেতাকর্মীদের।

 

একুশে সংবাদ/আ.আ.প্র/জাহা

Link copied!