ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর, ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

মদনে অগ্নিকান্ডে কৃষকের বসত ঘর পুড়ে ছাই


Ekushey Sangbad
একুশে সংবাদ ডেস্ক
০১:১৯ পিএম, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২১
মদনে অগ্নিকান্ডে কৃষকের বসত ঘর পুড়ে ছাই

নেত্রকোনার মদনে অগ্নিকান্ডে আলম মিয়া(৩৮) নামের এক দরিদ্র কৃষকের বসত ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এর সাথে সুরুজ্জামান ও উল্লাদ মিয়া নামের আরো দুই কৃষক পরিবারের বসত ও গোয়াল ঘর ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এতে তিন কৃষক পরিবারের প্রায় ৮ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) রাতে উপজেলার তিয়শ্রী ইউনিয়নের বাগজান গ্রামে অগ্নিকান্ডের এ ঘটনা ঘটে। বিদ্যুৎ এর শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে তিয়শ্রী ইউপি চেয়ারম্যান ফখর উদ্দিন আহমেদ শুক্রবার(১০ সেপ্টেম্বর) সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন। এ সময় ক্ষতিগ্রস্থ ৩ পরিবারকে ২ হাজার করে ৬ হাজার টাকা আর্থিক সহয়তা প্রদান করেছেন।

মদন ফায়ার সার্ভিস অফিস ও স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, দরিদ্র কৃষক আলম মিয়া পরিবার নিয়ে বি-বাড়িয়া জেলার আখাউড়া উপজেলায় বুধবার(৮ সেপ্টেম্বর) বেড়াতে যায়। একই বাড়ির সুরুজ্জামানের পরিবারের লোকজন সিলেটে বসবাস করেন। বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক ১১ টায় আলম মিয়ার বসত ঘরে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত ঘটে মূহুর্তের মধ্যে চার দিকে ছড়িয়ে পড়ে। পরে সুরুজ্জামান ও উল্লাদ মিয়ার বসত ঘরে আগুন ধরে যায়। কয়েক মিনিটেই আলম মিয়ার বসত ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনায় আশপাশের ৬ টি বসত ঘর রক্ষা পায়। খবর পেয়ে মদন ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার ও পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।  

ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক আলম মিয়া বলেন, কষ্টে জমানো টাকা দিয়ে কয়েকমাস আগে নতুন বসতঘর করেছিলাম। আগুনে আমার সব শেষ করে দিয়েছে। স্ত্রী, সন্তান নিয়ে কোথায় থাকব আর কি খাব? রান্না করার মতো এক মুঠো চালও থাকলো না। সরকার যদি সহযোগীতা না করে পথে বসা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই আমার।

সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান ফখর উদ্দিন আহমেদ বলেন, অগ্নিকান্ডে ৩ পরিবারের যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা অপূরণীয়। সরকার কর্তৃক সব ধরণের সাহায্য প্রদানের জন্য আমি ইউএনও স্যারের সাথে কথা বলব।  

মদন ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার আহমেদুল কবির বলেন, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে আমরা তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছি। বিদ্যুৎ এর শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। অগ্নিকান্ডে তিন পরিবারের প্রায় ৮ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা( ইউএনও) বুলবুল আহমেদ জানান, ক্ষতিগ্রস্থ প্রত্যেক পরিবারকে ২ বান্ডেল টিন ও ৬ হাজার করে টাকা প্রদান করা হবে। সরকার কর্তৃক সম্ভাব্য সব ধরণের সহযোগীতা তারা পাবে।