ঢাকা শনিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. পডকাস্ট

মোরেলগঞ্জে আমনের বাম্পার ফলন, মুল্য নিয়ে শঙ্কা


Ekushey Sangbad
জেলা প্রতিনিধি,বাগেরহাট
০১:৪৯ পিএম, ২৩ নভেম্বর, ২০২২
মোরেলগঞ্জে আমনের বাম্পার ফলন, মুল্য নিয়ে শঙ্কা

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে চলতি আমন মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। রোপা আমন চাষের নির্ধারিত লক্ষ্য মাত্রাও ছাড়িয়ে গেছে বলে জানিয়েছে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ।

 

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চলতি আমন মৌসুমে ২৬ হাজার ৩৭০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও তা ছাড়িয়ে অতিরিক্ত আরো ১০ অর্থাৎ ৩৮০ হেক্টর জমিতে ধান চাষ করেছেন কৃষকরা, তাতে চাল উৎপাদনে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৫২ হাজার ৯৬ মেট্রিক টন।

 

কৃষকরা জানান, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় সঠিক পরিচর্যা ও রোগবালাই কম হওয়ায় চলতি আমন মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে।

 

দেশের সর্ব দক্ষিণের উপকূলীয় মোরেলগঞ্জ উপজেলায় গ্রামীণ জনপদে তাকালে গ্রামজুড়ে সোনালী ধানের শীষ দোল খাচ্ছে বাতাসে। পাকা ধানের আভায় স্বপ্ন দেখছে কৃষক। ধানের ভালো ফলনের ভারে ধানের শীষ নুয়ে পড়ছে মাটির দিকে। ধান কাটা শুরু হয়েছে। কিন্তু ধানের নায্য মুল্য নিয়ে শঙ্কায় রয়েছে ফসল ঘরে তোলা এখানকার চাষীরা।

 

সরেজমিনে দেখা যায়, যে সব ক্ষেতের ধান কাটার জন্য উপযুক্ত হয়েছে, সে সব জমিতে শ্রমিক দিয়ে ধান কাটার প্রস্তুতি নিচ্ছেন কৃষকরা। এবার সন্তোষজনক ফলন পাবেন বলে আশা কৃষকদের।

 

বারইখালী ইউনিয়নের কৃষক আব্দুল চানমিয়া জানান, পাঁচ বিঘা জমিতে ধান আবাদ করেছেন। ফলন খুব ভালো হয়েছে। ধান কাটার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

 

তিনি আরো জানান, কাটা থেকে মাড়াই পর্যন্ত এক বিঘায় (৩৩ শতক) প্রতি শ্রমিককে দিতে হবে তিন হাজার টাকা অথবা ৩ মন ধান, আশা করি নতুন আমন ধান এক হাজারের বেশী টাকা মণ দরে বাজারে বিক্রি করতে পারবো। এবার নায্য মুল্য পাবো।

 

কৃষক আল আমিন বলেন, আমি ছয় বিঘা জমিতে আমন ধান আবাদ করেছি। কয়েকদিন আগে নিম্নচাপের প্রভাবে বাতাস ও বৃষ্টি হওয়ায় ধানের কিছুটা ক্ষতি হলেও ফলন খারাপ হয়নি। ধানের নায্য মুল্য থেকে যেন বঞ্চিত না হই।

 

এ বিষয়ে মোরেলগঞ্জ  উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আকাশ বৈরাগী বলেন, ভালো ফলন পেতে মাঠ পর্যায়ে আমি ও উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা কৃষকদের বিভিন্নভাবে পরামর্শ দিয়েছি। এতে চলতি রোপা আমন মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে যা ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছি।

 

একুশে সংবাদ/ ফা.হো.প্রতি/ রখ