AB Bank
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

নয়াদিল্লী থেকে শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদী হাত ধরে উদ্বোধন হবে তিন মেগা প্রকল্প


Ekushey Sangbad
আমিনুল হক ভূইয়া
০৩:০৭ পিএম, ৩১ আগস্ট, ২০২৩
নয়াদিল্লী থেকে শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদী হাত ধরে উদ্বোধন হবে তিন মেগা প্রকল্প

জি-২০ বা গ্রুপ অফ টুয়েন্টি হল একটি আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সহযোগিতা ফোরাম। ১৯৯৯ সালে এশিয়ায় আর্থিক সংকট দেখা দেওয়ার পর, ১৯টি দেশ এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের অর্থমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের গভর্নরদের আন্তর্জাতিক অর্থনীতি ও আর্থিক সমস্যা নিয়ে আলোচনার জন্য এই ফোরাম প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল।

 

২০০৭-এ সারা বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক সংকটের প্রেক্ষিতে জি-২০ গোষ্ঠী রাষ্ট্রপ্রধান স্তরে উন্নীত হয়েছিল। ২০০৯-এ আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সহযোগিতার প্রধান ফোরামে পরিণত হয় এই গোষ্ঠী। ২০২২-এর ১ ডিসেম্বর থেকে এই গোষ্ঠীর সভাপতিত্বের দায়িত্বে আছে ভারত। এটিই জি-২০-এর ইতিহাস।

 

৮ থেকে ১০ সেপ্টেম্বর ভারতের রাজধানী দিল্লি কার্যত সাধারণ মানুষের জন্য বন্ধ থাকবে। সে সময়ে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন যাতে নিশ্চিন্তে কাটে, সে জন্য অভূতপূর্ব ব্যবস্থা গৃহীত হচ্ছে। ভারতের আমন্ত্রণে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে নতুন দিল্লি যাবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অতিসম্প্রতি জোহানেসবার্গে অনুষ্ঠিত ব্রিক শীর্ষ সম্মেলনে যোগদান শেষে গত রবিবার ঢাকায় ফিরেছেন শেখ হাসিনা।

 

৯ ও ১০ সেপ্টেম্বর সরকারি ছুটির দিন। কিন্তু ৮ সেপ্টেম্বরও ছুটির তালিকায় তুলে দিয়েছেন দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। শুধু তাই নয়, ৮-১০ এই তিন দিন দিল্লীর সকল সরকারি-বেসরকারি স্কুল-কলেজ, অফিস-আদালত, ব্যাংকসহ  যাবতীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হবে। দিল্লীর বিমানবন্দর থেকে শহরে যাতায়াতের প্রতিটি রাস্তায় যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ থাকবে।

 

জি-২০ সম্মেলনে অংশ নিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যৌথভাবে বাংলাদেশে তিন মেগাপ্রকল্পের উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

 

প্রকল্প তিনটি হচ্ছে, ভারতের অর্থায়নে নির্মিত আখাউড়া-আগরতলা রেলপথ, মোংলা-খুলনা রেলপথ এবং খাগড়াছড়ির রামগড়ে ফেণী নদীর ওপর ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সেতু দিয়ে পারাপার।

 

আখাউড়া-আগরতলা রেলপথটি নানা প্রতিকূলতার কারণে নির্মাণ কাজ শেষ করতে প্রায় চার বছর অতিরিক্ত সময় লেগে যায়। ২০১৮ চুক্তিকালীন সময়ে বলা হয়েছিল ২০০০ সালেই এই আখাউড়া-আগরতলা রেলপথে হুইসেল বাজবে। কিন্তু দু’দেশের মানুষের আকাঙ্খার এই রেলপথটি দেরিতে হলেও ট্রেন চলাচল শুরু হতে যাচ্ছে।

 

এই রেলপথটি চালু হলে সময় সাশ্রয়ী পণ্যপরিবহনের দ্বার উন্মুক্ত হবে। বাংলাদেশ থেকে কোন পণ্যবাহী ট্রেন দ্রুত ত্রিপুরা,  আসামের করিমগঞ্জ ও শিলচরে পণ্য পরিবহন করা যাবে।

 

অপর দিকে ফেণী নদীতে মৈত্রী সেতুটি চাল হলে তা ত্রিপুরায় দ্রুত পণ্যপরিবহন করা সম্ভব হবে। বাংলাদেশের বাণিঝ্যিক নগরী চট্টগ্রাম বন্দও থেকে মাত্র ৯০ কিলোমিটার দূরত্বে রয়েছে এই মৈত্রী সেতু। চট্টগ্রাম বন্দও থেকে কোন পণ্যবাহী লরি মাত্র চার ঘন্টায় ত্রিপুরায় পৌছানো সম্ভব হবে।

অপর দিকে ভারতের আর্থিক সহযোগিতায় মোংলা থেকে খুলনা পর্যন্ত ৬০ কিলোমিটার রেলপথটি চালু হলে মোংলা থেকে সরাসরি উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলো পণ্যপরিবহন করা সম্ভব হবে।

 

জি-২০ ১৯টি দেশ এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। দেশগুলো হল আর্জেন্টিনা, অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, চিন, জার্মানি, ফ্রান্স, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইটালি, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, মেক্সিকো, রাশিয়া, সৌদি আরব, দক্ষিণ আফ্রিকা, তুরস্ক, যুক্তরাজ্য এবং অবশ্যই ভারত।

 

আসন্ন শীর্ষ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন-সহ প্রায় প্রতিটি দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরই অংশ নিচ্ছেন। তবে, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইতিমধ্যেই জনিয়ে দিয়েছেন বৈঠকে তিনি উপস্থিত থাকতে পারছেন না। ব্যস্ত কর্মসূচি এবং ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে তিনি আসতে না পারলেও, তাঁর জায়গায় বৈঠকে অংশ নেবেন রুশ বিদেশমন্ত্রী ল্যাভরভ।

 

একুশে সংবাদ/আ.ভ.প্র/জাহা

Link copied!