ঢাকা রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. পডকাস্ট

ঘোড়াঘাটে জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৫


Ekushey Sangbad
ঘোড়াঘাট উপজেলা প্রতিনিধি, দিনাজপুর
০৩:৩০ পিএম, ২৫ জানুয়ারি, ২০২৩
ঘোড়াঘাটে জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৫

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে জমিজমা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ৫ জন। এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদশন করেছেন দিনাজপুর জেলার  পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহম্মেদ।

 

বুধবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে খোদাদাদপুর গ্রামে এই মারামারি ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই মনোয়ার হোসেন মিম (২৪) নাম এক যুবক মারা যায়।

 

রাকিব হোসেন (২৫) নামে অপর আরেক জনকে গুরুতর আহত অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় মারা গেছে বলে নিশ্চিত করেছে তার পরিবার। নিহত মিম উপজেলার ৪নং ঘোড়াঘাট ইউনিয়নের খোদাদাতপুর গ্রামের হায়দার আলীর ছেলে এবং রাকিব একই গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে।

 

গ্রেফতার আসামিরা হলেন, উপজেলার চুনিয়াপাড়া গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে ওমর আলী (৫৫), তার স্ত্রী মোমেতা বেগম (৪৫) এবং তার ছেলে সামিরুল ইসলাম (২০)।

 

স্থানীয়দের মাধ্যম দিয়ে জানা যায়, উপজেলার চুনিয়াপাড়া গ্রামে ১০ শতক জায়গার মালিকানা দীর্ঘদিন থেকে স্থানীয় ওমর আলীর সাথে হায়দার আলীর দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। তাদের এই দ্বন্দ্ব গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত। আদালতে মামলা চলমান থাকা অবস্থায় ওমর আলীরা মাঝে মাঝেই জায়গাটি দখল নিতে আসে। বুধবার সকালে ওমর আলী ওই বিরোধপূর্ণ জমিতে পানি দিতে আসে। এসময় হায়দার আলীর ছেলেরা বাঁধা দিলে ওমর আলী সহ তার পরিবারের ৫-৬ জন সদস্য চাকু, ছুরি ও লাঠি নিয়ে অতর্কিত হামলা করে। এতে তাদের চাকুর আঘাতে ঘটনাস্থলেই একজন মারা যায়।

 

৪নং ঘোড়াঘাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান ভুট্টু বলেন, তাদের এই জায়গা নিয়ে অনেক দিন থেকেই দ্বন্দ্ব চলছিল। সামান্য কিছু জমি নিয়ে হত্যাকান্ড মেনে নেওয়ার মত নয়। অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

 

ঘোড়াঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ তৌহিদুল আনোয়ার বলেন, এই ঘটনায় সকালে ৫ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। একজনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে রংপুরে রেফার্ড করা হয়েছিল। বর্তমানে ৪ জন আমাদের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

 

ঘোড়াঘাট থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু হাসান কবির বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। আমরা অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছি। এ ঘটনা মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

 

একুশে সংবাদ/ম.মো.প্রতি/এসএপি