ঢাকা রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. পডকাস্ট

অসদাচরণ করায় রাজীবপুর সদর ইউপি চেয়ারম্যানকে ধাওয়া!


Ekushey Sangbad
রাজীবপুর উপজেলা প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম
০৬:১৮ পিএম, ৭ অক্টোবর, ২০২২
অসদাচরণ করায় রাজীবপুর সদর ইউপি চেয়ারম্যানকে ধাওয়া!

কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা ও উপজেলা আওয়ামিলীগের সভাপতি,সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদসহ আওয়ামীলীগের অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মীর সাথে অসদাচরণ করায় রাজীবপুর সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব মিরন মোহাম্মদ ইলিয়াসকে ধাওয়া দিয়েছে সাধারণ মানুষ।

 

গতকাল (৬ অক্টোবর) দুপুরে কুড়িগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে সদস্য প্রার্থী সোহেল সরকারেরর পক্ষে রাজীবপুর সদর  ইউনিয়ন পরিষদে ভোট চাইতে যান রাজীবপুর উপজেলা আওয়ামিলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই সরকার, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির ছক্কু, উপজেলা চেয়ারম্যান আকবর হোসেন হিরো, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আজিম উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়াসহ আওয়ামীলীগের অঙ্গসংগঠনের নেতারা কর্মীরা। ইউনিয়ন পরিষদে তাদেরকে ভোট চাইতে নিষেধ করে এবং অসম্মান করে রাজীবপুর সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিরন। একপর্যায়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই সরকারের সাথে অসদাচরণ করলে সাথে থাকা নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষ চেয়ারম্যানের ওপর চড়াও হয়ে একপর্যায়ে তাকে ধাওয়া করেন।

 

এই খবর মুহুর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে পুরো উপজেলায়। ওই চেয়ারম্যান উপজেলার সদর ইউনিয়নের মিয়া পাড়া এলাকায় আওয়ামীলীগের সাবেক সহসভাপতি হারুন অর রশীদ আলম মিয়ার বাড়ীতে  বিয়ের দাওয়াতে গেলে ওখানেও আওয়ামীলীগের কিছু সংখ্যক নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষ তাকে লাঠিসোঁটা নিয়ে আবারও ধাওয়া করে তাড়িয়ে দেয়।

 

এবিষয়ে উপজেলা আওয়ামিলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই সরকার বলেন, "আমরা কুড়িগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনের সদস্য পদপ্রার্থী সোহেলের জন্য ইউনিয়ন পরিষদে ভোট চাইতে গেলে  আমাকে এবং আমার সাথে থাকা নেতাকর্মীদের সাথে অসদাচরণ করে  রাজীবপুর সদর ইউপি চেয়ারম্যান মিরন মোহাম্মদ ইলিয়াস। এতে সাধারণ মানুষ  ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যানকে ধাওয়া করে।"

 

তবে রাজীবপুর সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব মিরন মোহাম্মদ ইলিয়াসের সাথে বার বার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

 

একুশে সংবাদ.কম/স.স.জা.হা