ঢাকা বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ নির্দেশনা

পঞ্চগড়ে আদালত চত্বরে বাদীপক্ষকে মারধর


Ekushey Sangbad
পঞ্চগড় প্রতিনিধি
০৯:০১ পিএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
পঞ্চগড়ে আদালত চত্বরে বাদীপক্ষকে মারধর

পঞ্চগড়ে এক মামলার ২ আসামীর জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে আদালত চত্বরে বাদী পক্ষের স্বজনদের মারধর করার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় শিশুসহ ৪ জন আহত হলেও ঘটনার পরপরই এঘটনায় রুবিনা খাতুন (৩৩) নামের এক নারীকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পঞ্চগড় চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত চত্বরে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, পঞ্চগড় সদর উপজেলার টুনিরহাট বানিয়াপাড়া এলাকার মকছেদুর রহমানের স্ত্রী আজিমা খাতুন (২৮), তার প্রতিবন্ধী মেয়ে মারিয়া শেখ (৫), আজিমার মা সকিনা বেগম (৫০) এবং খালা আরজিনা  বেগম (৪৫)।

জানা যায়, মামলায় আজিরত (৫০) ও রয়েল (২৮) নামে দুই আসামীকে জেলহাজতে প্রেরণের জের ধরে বাদীর স্ত্রী ও শাশুড়ীকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে রুবিনা আক্তার (৩০) নামে আসামী পক্ষের এক স্বজনের বিরুদ্ধে। অন্যদিকে মামলার বাদী মোকছেদুল হকের পরিবারের এক প্রতিবন্ধী শিশুসহ ৪ জন সদস্য হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। অভিযুক্ত রুবিনা আক্তার পঞ্চগড় পৌরসভার খালপাড়া এলাকার নূরল হকের স্ত্রী ও আসামী রয়েলের ফুপাতো বোন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৪ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) বাড়ির গাছের ডালপালা কাটাকে কেন্দ্র করে পঞ্চগড় সদর উপজেলার টুনিরহাট বানিয়াপাড়া এলাকার মকছের রহমান ও প্রতিবেশি আজিরত ইসলামের পরিবারের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় মকছেদুরের পরিবারের বেশ কয়েকজন আহত হন। ১০ ফেব্রুয়ারি (বুধবার) মকছেদুর বাদী হয়ে আজিরতসহ ৮ জনের নামে আদালতে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) আদালতে আত্মসমর্পণ করে আসামীরা জামিন আবেদন করলে আদালত আজিরত ও রয়েল নামের দুই আসামীর জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন এবং বাকি আসামীদের জামিন মঞ্জুর করেন। আদালত প্রধান দুই আসামীর জামিন নামঞ্জুর করে তাদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিলে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন আসামী পক্ষের লোকজন।

এ সময় আসামী পক্ষের আনোয়ার হোসেন, তার স্ত্রী শ্রুতি বেগম এবং তার বোন রুবিনা খাতুন বিরোধী পক্ষের তিন নারী ও এক শিশুকে মারধর করেন। এক পর্যায়ে আহত হয়ে তারা আদালত চত্বরে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। বেশ কিছু সময় পর আদালতে নিয়োজিত পুলিশ তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। এ সময় পুলিশ আসামী পক্ষের রুবিনা খাতুন (৩৩) নামের এক নারীকে আটক করলেও বাকিরা পালিয়ে যায়।

পঞ্চগড় জেলা দায়রা জজ আদালতের পুলিশ পরিদর্শক মকবুল হোসেন জানান, দুপুরে মকছেদুল রহমান দায়ের করা মামলায় আসামীরা আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে এতে দুজন আসামীর জামিন নামঞ্জুর করে আদালত পরে আসামীর স্বজন রুবিনা আক্তার বাদীর স্বজনকে মারধর করলে আমরা তাকে আটক করি এবং পরে সদর থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করি।

পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু আক্কাছ আহম্মদ জানান, বাদী স্বজনকে মারধর ঘটনায় আসামী পক্ষের রুবিনা আক্তার নামে এক নারীকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

একুশে সংবাদ/ডি.হো/আ