ঢাকা বুধবার, ১৮ মে, ২০২২, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

বশেমুরবিপ্রবিতে বিভিন্ন ফি কমানোর দাবিতে শিক্ষার্থীদের আলটিমেটাম


Ekushey Sangbad
উপজেলা প্রতিনিধি
০৭:১০ পিএম, ২৯ জানুয়ারি, ২০২২
বশেমুরবিপ্রবিতে বিভিন্ন ফি কমানোর দাবিতে শিক্ষার্থীদের আলটিমেটাম
ছবি: একুশে সংবাদ

ছবি: একুশে সংবাদ

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষা সংশ্লিষ্ট ব্যয় কমানোর আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রশাসনের আশ্বাস বাস্তবায়িত না হওয়ায় শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে। 

শনিবার (২৯ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। 

এসময় সাধারন শিক্ষার্থীরা জানান, একটি দীর্ঘসূত্রী আন্দোলনের মধ্য দিয়ে প্রশাসনের দাবি মেনে নেয়ার পরও আজ শিক্ষার্থীরা প্রত্যাখিত। যে সকল দাবিদাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৯ এর ১৮ ই সেপ্টেম্বর শিক্ষার্থীদের গণ আন্দোলনের সূত্রপাত ঘটেছিল, যা পরবর্তীতে উপাচার্য অপসার কওণের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। ফলে নতুন ভারপ্রাপ্ত প্রশাসনের কাছে দাবিদাওয়া "মুক্তি ১৭" দফা রূপে পুনরায় উপস্থাপন করা হয়। 

ততকালীন ভারপ্রাপ্ত প্রশাসন প্রশাসনিক বিভিন্ন সীমাবদ্ধতার কারণে দাবিদাওয়া পূরণে অপারগতা প্রকাশ করলে বর্তমান প্রশাসনের কাছে ২৫ শে অক্টোবর স্মারকলিপি এবং ২৭শে অক্টোবর শেষ বারের মতো উক্ত দাবি গুলো উত্থাপিত হয়। এরপর ২৮শে অক্টোবর প্রশাসনের সাথে শিক্ষার্থীদের উন্মুক্ত আলোচনার প্রেক্ষিতে ৩১ অক্টোবর প্রশাসন একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। উক্ত বিজ্ঞপ্তিতে স্পষ্ট ভাবে কিছু দাবি মেনে নেওয়া হয় এবং অবশিষ্ট দাবিগুলো অমীমাংসিত থাকার কারণে সেই খাত গুলোতে লেনদেন স্থগিত রাখা হয়।

তারা আরও বলেন, দীর্ঘ ৩ মাস অতিবাহিত হওয়ার পরেও বর্তমান সময়ে আমরা প্রত্যক্ষ করছি যে এ সকল মীমাংসিত ও অমীমাংসিত খাতে পূর্বের ন্যায় ফি গ্রহণ করা হচ্ছে। যা প্রশাসনের বিজ্ঞপ্তি ও প্রতিশ্রুতির পরিপন্থী। আগামী ৬ই ফেব্রুয়ারির মধ্যে সকল দাবিদাওয়া মেনে নিয়ে সুনির্দিষ্ট সিদ্ধান্ত না জানালে শিক্ষার্থীরা পুনরায় তাদের দাবি আদায়ে ঐক্যবদ্ধ হতে বাধ্য হবে তারা হুশিয়ারি দেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য ড. একিউএম মাহবুব জানান, এবিষয়ে আমি জানি । আমি এসে মিটিং করে তারপর এব্যাপারে কথা বলব। 


একুশে সংবাদ/মোস্তাফিজুর রহমান/এইচআই/