ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank

বিয়ের পরেও হস্তমৈথুন? মেয়েদের ক্ষতি নেই, বরং লাভই, বলছেন বিশেষজ্ঞরা


Ekushey Sangbad
লাইফস্টাইল ডেস্ক
০৩:০১ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২
বিয়ের পরেও হস্তমৈথুন? মেয়েদের ক্ষতি নেই, বরং লাভই, বলছেন বিশেষজ্ঞরা

আমাদের শরীরকে ফিল গুড করানোর জন্য অনেক ধরনের শারীরিক চাহিদা রয়েছে, যেমন মানসিক শান্তি, সুস্থ দেহ এবং যৌন ইচ্ছা পূরণ। সাধারণত শরীরের যৌন চাহিদা সম্পর্কীয় বিষয় নিয়ে বেশি কথা বলে না বেশিরভাগ মানুষ। যাদের পার্টনার আছে তারা তাদের সঙ্গীর সঙ্গে যৌন মিলন করে সন্তুষ্ট হন। যাদের পার্টনার নেই তারা হস্তমৈথুনের মাধ্যমে তাদের যৌন ইচ্ছা প্রশমিত করেন বলে বিশ্বাস করা হয়।

 

চিকিৎসকরা বলছেন, হস্তমৈথুন সুস্থ যৌন জীবনেরই একটি অংশ, যা আমাদের শরীরের একটি মৌলিক চাহিদা পূরণ করে। অনেক ব্যায়াম এবং স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণের পরও যখন শরীর সুস্থ থাকে না, তখন মানুষ মনে করে যে হস্তমৈথুনদুর্বলর্বতার অন্যতম কারণ। কিন্তু এটা ঠিক ধারণা নয়।

 

ইউরোলজিস্টদের মতে, হস্তমৈথুন একটি প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া এবং এটি শরীরে কোন খারাপ প্রভাব ফেলে না। আজকের ছেলে-মেয়েদের হস্তমৈথুনের অভ্যাস সম্পর্কে তিনি বলেন, শৈশবের পর বয়ঃসন্ধিতে পৌঁছানোর পর শরীরে অনেক হরমোনের পরিবর্তনর্ত ঘটে এবং বিভিন্ন ধরনের শারীরিক চাহিদা দেখা দিতে শুরু করে।

 

আগে মানুষ অল্প বয়সে বিয়ের কারণে তাদের সঙ্গীর সাথে তাদের শারীরিক চাহিদা পূরণ করত, কিন্তু এখন দেরিতে বিবাহের কারণে মানুষ তাদের কামশক্তি পূরণের জন্য হস্তমৈথুন করেন।

 

আরও পড়ুন- ফ্যাট ঝরাতে নিয়মিত জিমে ব্যস্ত শ্রাবন্তী! ওয়ার্ক আউটের ভিডিও হল ভাইরাল

 

এক নজরে দেখে নিন হস্তমৈথুনের কী কী উপকারিতা রয়েছে:

 

১. ইউরোলজিস্টদের মতে, শরীরে অর্গা জম র্গা পূরণ করার দুটি উপায় আছে, যার মধ্যে প্রথমে যদি আপনি বিবাহিত হন, তাহলে আপনি আপনার সঙ্গীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে তা পূরণ করেন। কিন্তু যদি আপনি অবিবাহিত হন তাহলে আপনাকে হস্তমৈথুন করতে হবে।

 

২. বিয়ের পর হস্তমৈথুন করা কোন ভুল কাজ নয়, কিন্তু যদি আপনি এখনও হস্তমৈথুন করেন তাহলে এটি দেখায় যে আপনার যৌনতার প্রবল ইচ্ছা আছে এবং এটি আপনাকে আপনার সঙ্গীর সাথে আরও বেশি সংযোগ স্থাপন করতে দেবে। আপনি যদি সপ্তাহে একবার বা দুবার হস্তমৈথুন করেন, তাহলে এটি আপনার বিবাহিত জীবনে কোন খারাপ প্রভাব ফেলবে না।

 

৩. যদি আমরা বিজ্ঞানের দৃষ্টিকোণ থেকে হস্তমৈথুনকে বুঝি, তাহলে এ সম্পর্কে না খারাপ কিছু বলা হয়েছে, না বলা হয়েছে যে শরীরে কোন বড় উপকার আছে। চিকিৎসা বিজ্ঞানে বলা হয় যে শরীর প্রতিদিন তার প্রয়োজন অনুযায়ী বীর্য (বীর্য) র্যতৈরি করে এবং যখন এটি অতিরিক্ত হয় তখন শরীর তা বের করে দেয়। সেটা সহবাসের সময় বা হস্তমৈথুনের সময় অথবা ঘুমের সময় বীর্যপা র্য তের সময় বেরিয়ে আসে।

 

৪. চিকিৎসা বিজ্ঞানে হস্তমৈথুনের কারণে শারীরিক বৃদ্ধিবৃ বন্ধ করার কোন তথ্য নেই। শুধুমাত্র মানুষের ধারণা আছে যে এটি একটি খারাপ অভ্যাস এবং এটি শরীরকে দুর্বলর্ব করে। যে ভাবে বেশি কথা বলা জিভকে দুর্বলর্ব করে না এবং কথা না বললে তা শক্তিশালী হয় না, একইভাবে খুব বেশি হস্তমৈথুন করলে দুর্বলর্বতা হয় না এবং তা না করলে শক্তি বাড়ে না।

 

৫. অনেকে বিশ্বাস করেন যে অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের কারণে পুরুষদের মধ্যে টেস্টোস্টেরন হরমোনের ঘাটতি রয়েছে, কিন্তু এই চিন্তাও সম্পূর্ণ ভুল। হস্তমৈথুনের সাথে টেস্টোস্টেরনের মাত্রার কোন সম্পর্ক নেই! কিন্তু এটা অবশ্যই একটা বিষয় যে আপনি যখন আপনার সঙ্গীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক করেন, তখন এই হরমোন দ্রুত বৃদ্ধিবৃ পেতে শুরু করে।

 

৬. অনেক নারী বিয়ের পরপরই শারীরিক সম্পর্ক নিয়ে খুব একটা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না, এই ধরনের পরিস্থিতিতে তারা একাই হস্তমৈথুনের সাহায্যে তাদের শারীরিক ইচ্ছা পূরণ করে। আপনি যদি আপনার সঙ্গীর থেকে দূরেদূ থাকেন, তাহলে আপনি ফোন কলের মাধ্যমে হস্তমৈথুন করে একে অপরের ইচ্ছা পূরণ করতে পারেন।

 

একুশে সংবাদ.কম/জা.হা