AB Bank
ঢাকা শুক্রবার, ০৯ জুন, ২০২৩, ২৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

করোনার মারণ থাবায় সোহম


Ekushey Sangbad
একুশে সংবাদ ডেস্ক
১২:০৬ পিএম, ১ অক্টোবর, ২০২০
করোনার মারণ থাবায় সোহম

ঢাকাঃ চার দেয়ালের মধ্যে আবদ্ধ থেকেও যেন করোনার প্রভাবকে আটকানো যাচ্ছে না। চলচ্চিত্র জগত থেকে শুরু করে ক্রীড়া, রাজনীতি বাদ যাচ্ছেন না কেউই। এবার টলিউডে আবারো হানা দিল করোনা। কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হলেন অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী।বর্তমানে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন এ অভিনেতা।

গত সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) অভিনেতা সোহমের করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। সে দিনই তাঁকে অ্যাপেলো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, বেশ কয়েক দিন ধরেই মৃদু উপসর্গ দেখা দিয়েছিল ‘বোঝে না সে বোঝে না’ নায়কের শরীরে। এতেই সন্দেহ দানা বাঁধে তার মনে। সেই কারণে কোনোরকম ঝুঁকি না নিয়ে করোনা পরীক্ষা করান। সোমবার রাতে রিপোর্ট এলে জানা যায়, সোহমের শরীরে বাসা বেঁধেছে মারণ ভাইরাস। এরপরই হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে।

হাসপাতালের তরফে জানানো হয়, সোহমের অবস্থা আশঙ্কাজনক নয়। পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে তাকে।

আরও জানা যায়, সোহমের স্ত্রী ও দুই সন্তানেরও করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তবে তারা কেউ-ই আক্রান্ত নন। তবে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ব্যাপারে এখনও কোনও আনুষ্ঠানিক বিবৃতি জারি করেননি সোহম।

এর আগে মারণ ভাইরাসের কবলে পড়েছিলেন কোয়েল মল্লিক, রঞ্জিত মল্লিক, নিসপাল সিং এর পর রাজ চক্রবর্তী। তবে তাঁরা সকলেই সকলেই প্রায় সুস্থ আছেন। কোয়েল মল্লিক এবং রাজ চক্রবর্তী আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে বর্তমানে ফের শ্যুটিং শুরু করেছেন। রাজ চক্রবর্তী সদ্য বাবাও হয়েছেন।

নির্দিষ্ট নিয়ম শৃঙ্খলার মধ্যে থেকেও কিন্তু রেহাই পাওয়া যাচ্ছে না। মাঝে মাঝেই এমন খবরগুলো এসে পড়ছে। বড় পর্দার পাশাপাশি ছোট পর্দার বেশ কয়েকজন অভিনেতা এবং অভিনেত্রীর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়।

বর্তমান ভারতে প্রতি ২৪ ঘন্টায় প্রায় ৭০-৮০ হাজার আক্রান্ত হচ্ছেন। তবে সুস্থও হয়ে উঠছেন অনেকে। ফলে এদিক থেকে একটু নিশ্চিত। নমুনা পরীক্ষার সংখ্যাও বাড়ানো হচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গে গত মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ২৪ ঘণ্টায় ৪৩ হাজার ৭৫৯টি করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩,১৮৮ জন। দৈনিক সংক্রমণের সবচেয়ে বেশি হচ্ছে কলকাতায়। হিসেব অনুযায়ী কলকাতায় একদিনে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৬৯১ জন। সব মিলিয়ে কল্কাতায় মঙ্গলবার পর্যন্ত সর্বমোট করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২,৫৩,৭৬৮ জনে।মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন মোট ২ লক্ষ ২২ হাজার ৮০৫ জন। সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ২৬ হাজার ৬৪ জন। পশ্চিমবঙ্গে সুস্থতার হার হচ্ছে ৮৭.৮০%।