ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭
Ekushey Sangbad
Janata Bank
করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ নির্দেশনা

বিয়ে না করেই ৩ মাস সংসার, প্রেমিকের বাড়িতে অনশনে প্রেমিকা


Ekushey Sangbad
একুশে সংবাদ
০৪:০৬ পিএম, জানুয়ারি ১০, ২০২১
বিয়ে না করেই ৩ মাস সংসার, প্রেমিকের বাড়িতে অনশনে প্রেমিকা

বিয়ের দাবিতে এক কলেজছাত্রী তার প্রেমিকের বাড়িতে তিন দিন ধরে অবস্থান নিয়েছেন। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন প্রেম এবং ভাড়া বাসায় তিন মাস একসাথে থাকলেও এখন বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় প্রেমিকের বাড়ির দরজায় এসে বিয়ের দাবিতে অনশন করছেন প্রেমিকা।

এদিকে প্রেমিকার আসার খবর শুনে ঘরে উধাও হয়েছেন প্রেমিক। গত বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) নাটোর জেলার নলডাঙ্গা  উপজেলার পিপরুল ইউনিয়নের ঠাকুর লক্ষীকোল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

প্রেমিকা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, একই ইউনিয়নের সোনার মোড় গ্রামের আব্দুস সোবাহান মন্ডলের কলেজ পড়ুয়া মেয়ে পপি খাতুনের সাথে দীর্ঘদিন বছর ধরে প্রেম চালিয়ে আসছিল পাবনা পাড়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম। সে ঠাকুর লক্ষীকোল পাবনা পাড়া গ্রামের সিদ্দিক মোল্লার ছেলে। দুই বছর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক।

গত বছরের আগস্ট মাসে পপিকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গাজিপুরের কামরাঙ্গার চালা এলাকায় ভাড়া বাসা নিয়ে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে সংসার শুরু করে। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে মেয়েটি তার প্রেমিক সাইফুলকে বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকে। সে তাতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে পপি বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকলে গত বছরের নভেম্বর মাসে তারা নাটোর ফিরে আসে। এক পর্যায়ে গত ৭ জানুয়ারি রাতে ওই প্রেমিকাকে সাইফুল তার বাড়িতে আসার জন্য বলে। তার কথামত, সে বাড়িতে আসলে সাইফুলের অভিভাবকরা মেয়েটিকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে বলে। কিন্তু সে বিয়ের দাবিতে অনড় থাকে। 

বিকেলে ওই বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে, মেয়েটি তার প্রেমিকের বাসার ভিতরে বসে আছে। কথা হলে ওই মেয়েটি জানায়, প্রায় দুই বছর আগে সাইফুলের সাথে পরিচয় ও পরে সম্পর্ক হয়। এরপর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সাইফুল তার সাথে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তুলে। গাজীপুর তিন মাস একসাথে থাকে। পরে তাকে বিয়ে করার প্রস্তাব দিলে সে তাতে অস্বীকৃতি জানায়।

এ ব্যাপারে প্রেমিক সাইফুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায় নি।

প্রেমিকের বাবা সিদ্দিক মোল্লা বলেন, দরকার হলে ২০ লাখ খরচ করব। তবু এ মেয়েকে ছেলের বউ মানব না।

নলডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ বলেন, বিষয়টি শুনেছি। অভিযোগ দিতে বলেছি। সমাধানের চেষ্টা করা হবে।

একুশে সংবাদ/বাপ্র/এআরএম