AB Bank
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

সুশাসন প্রতিষ্ঠায় দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সে সরকার


Ekushey Sangbad
হাসান কাজল
০৫:০০ পিএম, ২৯ জুন, ২০২৪
সুশাসন প্রতিষ্ঠায় দুর্নীতির বিরুদ্ধে  জিরো টলারেন্সে সরকার

  বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি মেয়াদে ক্ষমতায় থাকা আওয়ামী লীগ সরকারের সামনে এবার দুর্নীতি নির্মূল ও সুশাসন প্রতিষ্ঠাকেই বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে মনে করা হচ্ছে। এ দু’টি বিষয়কে বেশ গুরুত্বের সাথে নিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার এ ঘোষণার পূর্ণ বাস্তবায়নের অপেক্ষায় দেশবাসী। সম্প্রতি সুশাসন প্রতিষ্ঠায় দুর্নীতি বিরোধী অভিযান অব্যাহত । এবিষয়ে মিডিয়াসহ দুর্নীতি দমন কমিশনের তৎপরতা চোখে পড়ার মতো।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও দুর্নীতি দমনকে অগ্রাধিকার হিসেবে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে মন্ত্রণালয়ে তদবিরবাজদের দৌরাত্ম্য বন্ধ করা, রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের যাতায়াত নিরুৎসাহিত করা, টেন্ডার বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণ করা, নিয়োগ বাণিজ্য বন্ধ করা, দ্রুত ফাইল নিষ্পত্তি করা এবং মন্ত্রণালয়ের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করাসহ বিভিন্ন বিষয় রয়েছে। অর্থাৎ জনকল্যাণ ও জনবান্ধব একটি সরকারের লক্ষ্য নিয়ে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । তিনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ ঘোষণা দিয়েছেন অনেক আগেই । যত বড় রাঘব বোয়ালই হোক না কেন দুর্নীতি করলে কেউ পার পাবেন না।

অসৎ ব্যবসায়ী ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির কথা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ২২ জুন শনিবার রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশস্থল পরিদর্শনের সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান। কাদের বলেন, রাজনীতিবিদদের দুর্নীতিবাজ বানানোর জন্য অপতৎপরতা চালাচ্ছে একটি মহল। রাজনীতি মানুষের জন্য, মানুষের সঙ্গে আওয়ামী লীগ ছিল, আছে, থাকবে৷  অসৎ ব্যবসায়ী ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জিরো টলারেন্স। 

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বর্তমান সরকার দুর্নীতি দূর করে দেশে সুনীতি প্রতিষ্ঠা করতে বদ্ধপরিকর। শনিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডাচ-বাংলা ব্যাংক থেকে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতে অধ্যায়নরত দুই সহস্রাধিক দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। আনিসুল হক বলেন, বর্তমানে সমাজের একটি বড় সমস্যা হলো দুর্নীতি। দুর্নীতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক নীতি, যা সমাজের বিরাট অংশকে শোষিত ও বঞ্চিত করছে। সমাজে ব্যাপক বৈষম্য তৈরি করছে। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নকে বাধাগ্রস্থ করছে। সে কারণেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছে এবং এই নীতি বাস্তবায়নের জন্য দুর্নীতি বিরোধী অভিযান চালানো হচ্ছে।

বাংলাদেশে বড় ধরনের দুর্নীতি ঠেকাতে দেশের সরকারি চাকরিজীবীদের কাছ থেকে প্রতি বছর সম্পদের হিসাব নেয়া এবং তা নিয়মিত হালনাগাদ করতে সরকারকে পরামর্শ দিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। বাংলাদেশ বিষয়ে ওয়াশিংটন ভিত্তিক ঋণদাতা সংস্থাটির কান্ট্রি রিপোর্টে এই পরামর্শ দেয়া হয়েছে। ১৪ জুন সোমবার বাংলাদেশকে ঋণের তৃতীয় কিস্তি ছাড়ের অনুমোদনের পরই এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

এমন এক সময়ে আইএমএফ  সরকারকে এই পরামর্শ দিলো যখন সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদ ও এনবিআরের মতিউর রহমানের বিপুল পরিমাণ অবৈধ সম্পদের সন্ধান পাওয়ার পর সারা দেশে সরকারি চাকরিজীবীদের দুর্নীতির ব্যাপকতা নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে। শুধু আইএমএফ নয়, সরকারি চাকরিজীবীদের দুর্নীতি ঠেকানোর কথা জাতীয় সংসদে সরকার ও বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্যরাও বলেছেন।

একই সাথে আইনশৃঙ্খলা ও শান্তি প্রতিষ্ঠার নামে আইনের রক্ষকদের বিরুদ্ধে ভক্ষক হয়ে ওঠার অভিযোগ ছিল। নিরপরাধ সাধারণ মানুষকে হয়রানি, মিথ্যা মামলা, গ্রেফতার-বাণিজ্য আর জামিন-বাণিজ্যেরও অভিযোগ ছিল। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জিম্মায় থাকাবস্থায় নির্যাতন, বিচারবহির্ভূত হত্যা, গুম, ব্যাংকসহ আর্থিক প্রতিষ্ঠানে নানা দুর্নীতি, অনিয়ম ও লুটপাট সরকারকে বিভিন্ন সময়ে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলেছিল। দেশে-বিদেশে প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে সরকারের নীতিনির্ধারকদের। সেজন্য বারবার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করে রেকর্ড করা শেখ হাসিনা এবার সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও দুর্নীতি প্রতিরোধে সিরিজ পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছেন।

 

একুশে সংবাদ/ হা.কা/ হা.কা

 

 

Link copied!