ঢাকা শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

ঘরে বসেই নখের যত্ন


Ekushey Sangbad
একুশে সংবাদ ডেস্ক
১২:৩২ পিএম, ২৯ জুলাই, ২০২১
ঘরে বসেই নখের যত্ন

আমাদের হাত ও পায়ের সৌন্দর্যের এক অন্যতম অংশ নখ। সুন্দর নখ হাতকে যেমন করে আকর্ষনীয় তেমন পা’কে করে মনকাড়া। পরিচ্ছন্ন নখ শুধু হাত-পায়ের সৌন্দর্যই বৃদ্ধি করে না। একইসঙ্গে এটি ব্যক্তিত্বও তুলে ধরে। ঝাঁ তকতকে, ঝকঝকে, আকর্ষনীয়, সুন্দর নখ কার না পছন্দ। নারীদের জন্য হাতের নখের সৌন্দর্য রক্ষা করা একটু কঠিন। নখ সুন্দর রাখতে পানির ব্যবহার যত কম করা যায় ততই ভাল। কিন্তু নারীদের প্রায় সব কাজেই পানির ছোঁয়া আছে। একটু ইচ্ছা এবং সচেতন থাকলেই সম্ভব নখের যত্ন নেওয়া। সময় কিংবা অর্থের কারণে যারা পার্লারে গিয়ে নখের পরিচর্চা করতে পারেন না তারা ঘরে বসেই নিতে পারেন যত্ন।  তাই আসুন জেনে নেই নখের যত্নের কিছু করণীয়।

কুসুম গরম পানিতে খানিকটা মৃদু ধাঁচের (লাইট) শ্যাম্পু মিলিয়ে নিন। এতে হাত ডুবিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। এরপর ব্রাশে মৃদু শ্যাম্পু নিয়ে সেটির সাহায্যে নখ পরিষ্কার করে ফেলুন। নখের পাশ থেকে হালকা চামড়া ওঠা থাকলে কিউটিকল কাটার দিয়ে এবার সাবধানে কেটে ফেলুন (চামড়ার এ ধরনের অংশ কখনো টেনে তোলার চেষ্টা করবেন না)। এরপর নেইলফাইল ব্যবহার করুন। ঘষে নিন। চাইলে এরপর নেলপলিশ লাগাতে পারেন। এরপর নখ ও নখের চারপাশে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে নিন। নখ ও ত্বকের এই অংশটুকু কোমল থাকবে। 

পায়ের নখের যত্নের জন্যও নিয়মটা একই। সপ্তাহে একবার করে এভাবে হাত ও পায়ের নখের যত্ন নিলে সুস্থ-সুন্দর নখ পাবেন। কোনো কারণে তা সম্ভব না হলেও নিদেনপক্ষে ১৫ দিন অন্তর এভাবে হাত ও পায়ের নখের যত্ন নিতেই হবে।

কাজে ও বিশ্রামে
রান্নাঘরে কাজ করার সময় হাত ও নখে নানান ধরনের কষ লেগে যেতে পারে। এ রকম হলে সঙ্গে সঙ্গে টমেটো কিংবা লেবুর টুকরা ঘষে হাত-নখ পরিষ্কার করে নেওয়া ভালো। তাহলে আর কালচে দাগ বা আঠালো ভাব হবে না, নখের তেমন কোনো ক্ষতিও হবে না।

রান্নাঘরের কাজের সময় হাতে গ্লাভস পরতে পারেন। 

ঘুমানোর আগে নখে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে নিতে পারেন।

নখ ও আঙুলের চারপাশ, নখের খাঁজ কিংবা আঙুলের ভাঁজে পানি লাগানোর পর অবশ্যই ভালোভাবে মুছে শুকিয়ে নিন। দীর্ঘ সময় ভেজা অবস্থায় থাকলে ছত্রাকের সংক্রমণ হতে পারে।

খুব বড় নখ রাখলে ভেঙে গিয়ে বিপাকে পড়তে হতে পারে, তাই এমনটা না রাখাই ভালো। 

নখে কোনো অস্বাভাবিকতা লক্ষ করলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন। এসব ক্ষেত্রে বাড়ির টোটকা কাজে লাগাতে গিয়ে হিতে বিপরীত হতে পারে।

 

একুশে সংবাদ/বর্না