ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১, ৩ মাঘ ১৪২৭
Ekushey Sangbad
Janata Bank
করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ নির্দেশনা

এবার ইন্দোনেশিয়ায় ‍‍`মায়ার জঞ্জাল‍‍`


Ekushey Sangbad
বিনোদন ডেস্ক
০২:৩৪ পিএম, নভেম্বর ২৫, ২০২০
এবার ইন্দোনেশিয়ায় ‍‍`মায়ার জঞ্জাল‍‍`

বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত চলচ্চিত্র ‘মায়ার জঞ্জাল’ ইন্দোনেশিয়ায় জোগজা-নেটপ্যাক এশিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের ১৫তম আসরে আমন্ত্রণ পেয়েছে। এটির ইংরেজি নাম ‘ডেব্রি অব ডিজায়ার’। উৎসবটির এশিয়ান পার্সপেক্টিভস বিভাগে দেখানো হবে ছবিটি। 

খবরটি নিশ্চিত করেছেন ‘মায়ার জঞ্জাল’এর বাংলাদেশি প্রযোজক  জসীম আহমেদ। তিনি বলেন,‘এশিয়ান পার্সপেক্টিভস হলো উৎসবটির প্রধান প্রতিযাগিতা বিভাগ। তবে করোনার কারনে এ বছর সকল বিভাগই প্রতিযোগিতার বাইরে। এশিয়ান সিনেমার আগামী প্রতিনিধি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত ও উদীয়মান পরিচালকদের ছবি জায়গা দেওয়া হয় এই বিভাগে। সাংহাই উৎসবে আমাদের ছবি দেখে জোগজা-নেটপ্যাক এশিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল কর্তৃপক্ষ আগ্রহ দেখিয়েছে। এজন্য আমরা আনন্দিত।’

২০০৬ সাল থেকে অনুষ্ঠিত হচ্ছে জোগজা-নেটপ্যাক এশিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল। এশিয়ার বিভিন্ন দেশের ছবি উপস্থাপন করা হয় এতে। শুরু থেকে ইউনেস্কো সমর্থিত নেটপ্যাকের (নেটওয়ার্ক ফর দ্য প্রোমোশন অব এশিয়ান সিনেমা) সঙ্গে অংশীদারিত্ব স্থাপন করে কর্তৃপক্ষ। বার্লিন, লোকার্নো, কার্লোভি ভ্যারি, রটারডাম, বুসানসহ এশিয়া, ইউরোপ ও আমেরিকার বিভিন্ন উৎসবে এশিয়ান ছবিকে পুরস্কার দিয়ে থাকে নেটপ্যাক। 

এর আগে চীনের সাংহাই ও রাশিয়ার মস্কোতে অফিসিয়াল সিলেকশনে জায়গা পেয়েছে ‘মায়ার জঞ্জাল’। সম্প্রতি ছবিটির আন্তর্জাতিক সাফল্য উদযাপন করলো ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশন। এতে অংশ নেন ছবির কলাকুশলীরা। 

চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতির আন্তর্জাতিক ফেডারেশনের (এফআইএপি) এ-গ্রেডের তালিকাভুক্ত সাংহাই ও মস্কো উৎসব। মস্কোতে ফিল্মস অ্যারাউন্ড দ্য ওয়ার্ল্ড বিভাগে ছিল ‘মায়ার জঞ্জাল’। 

এর আগে চীনের মর্যাদাসম্পন্ন সাংহাই আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের এশিয়ান নিউ ট্যালেন্ট অ্যাওয়ার্ডের অফিসিয়াল সিলেকশনে জায়গা পায় ‘মায়ার জঞ্জাল’। এই আয়োজনেই ছবিটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী হয়।

ছবিটির মাধ্যমে ১৫ বছর পর বড় পর্দার জন্য কাজ করলেন অপি করিম। ছবিটিতে তার চরিত্রের নাম সোমা। মেয়েটি কলকাতার। সে বিবাহিতা। স্বামী আর একমাত্র সন্তানকে নিয়ে তার সংসার। তার স্বামী চাঁদু চরিত্রে আছেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেতা ঋত্বিক চক্রবর্তী।

কথাসাহিত্যিক মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুটি ছোটগল্প অবলম্বনে সাজানো হয়েছে ছবিটির চিত্রনাট্য। অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের নাট্যদল প্রাচ্যনাটের সোহেল রানা (সত্য), কলকাতার পরাণ বন্দোপাধ্যায়, চান্দ্রেয়ী ঘোষ (বিউটি) ও ব্রাত্য বসু (গণেশ বাবু)। ছবিটির শুটিং হয়েছে ঢাকা ও কলকাতায়।

‘মায়ার জঞ্জাল’ পরিচালনা করেছেন ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরী। ২০১৩ সালে ‘ফড়িং’ ছবির মাধ্যমে পরিচালনায় আসেন তিনি। এরপর টেলিভিশনের জন্য ‘একটি বাঙালি ভূতের গপ্পো’ ও ‘ভালোবাসার শহর’ নামের একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি পরিচালনা করেন। 

একুশে সংবাদ /ব /এস