AB Bank
ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই, ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী
ঘুরে দেখি দেশটারে

চর কুকরি মুকরি প্রকৃতির এক অপার বিস্ময়


Ekushey Sangbad
শাহ আলম ডাকুয়া
০১:৩২ পিএম, ২৯ জুন, ২০২৪
চর কুকরি মুকরি প্রকৃতির এক অপার বিস্ময়

বরিশাল বিভাগের ভোলা শহর থেকে ১২০ কিলো. দূরে বঙ্গোপাসাগরের কোলঘেঁষে মেঘনা ও তেঁতুলিয়া নদীর মোহনায় জেগে ওঠা এক অপূর্ব দ্বীপচরের নাম ‘কুকরিমুকরি’। 

চর কুকরিমুকরির সৈকত

প্রকৃতি যেন নিজ হাতে ঢেলে দিয়েছে সৌন্দর্যের উপাদান। এটি দেশের অন্যতম বৃহৎ বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য হিসেবে পরিচিত।

কুকুরমুকরিতে দেখা যায় সূর্য উদয় ও অস্ত

এখানকার ম্যানগ্রোভ বন দেখলে মনে হবে এ যেন আরেক সুন্দরবন। ভ্রমণপিপাসু পর্যটকদের জন্য এটি মনোমুগ্ধকর দর্শনীয় স্থান। স্থানীয়দের মতে, পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করতে পারলে চর কুকরিমুকরি হতে পারে দেশের তৃতীয় বৃহত্তম পর্যটন কেন্দ্র।

কুকরিমুকরিতে নারিকেল বাগান

১৯৮৯ সালের ১৪ মে বন বিভাগের তত্ত্বাবধানে প্রায় ৩ লাখ ৬০ হাজার একর জমিতে শ্বাসমূলীয় ম্যানগ্রোভ জাতীয় বৃক্ষের বনায়ন শুরু হয়। এ বনভূমিতে ৯ কোটিরও বেশি গাছ রয়েছে। এ বনভূমিতে স্থান পেয়েছে সুন্দরী, গেওয়া, পশুর, কেওড়া, নারিকেল, বাঁশ ও বেত। বর্তমানে বনভূমির পরিমাণ ৮ হাজার ৫৬৫ হেক্টর। যার মধ্যে ২১৭ হেক্টর জমি বন্যপ্রাণীর অভয়াশ্রম।


এ ছাড়া বসতি ও কৃষি আবাদের জন্য প্রায় ৪ হাজার ৮১০ হেক্টর জমি রয়েছে। এখানকার মানুষের প্রধান পেশা মাছ ধরা আর কৃষিকাজ।

এক সময় এই চরে অনেক বেশি কুকুর ও ইঁদুর (মেকুর নামে পরিচিত) বিচরণ করত। এ কারণে স্থানীয় মানুষ এটাকে চর কুকরি-মুকরি বলে ডাকত। পরে এই নামটি রয়ে যায়।

চর কুকরি-মুকরির অভয়াশ্রমে প্রাণীদের মধ্যে রয়েছে চিত্রা হরিণ, বানর, শিয়াল, উদবিড়াল, বন্য মহিষ-গরু, বন মোরগ, বনবিড়াল প্রভৃতি। এ ছাড়া বক, শঙ্খচিল, মথুরা, বন মোরগ, কাঠময়ূর, কোয়েলÑইত্যাদি নানান প্রজাতির পাখি ও সরীসৃপ রয়েছে। শীতকালে জেগে উঠা চরে বিপুল সংখ্যক অতিথি পাখির আগমন ঘটে।

এখানে রাত্রিযাপন করতে হলে এফডিএ রেস্ট হাউসে ভাড়া দিতে হবে ৩০০ টাকা। বন বিভাগের রেস্ট হাউসের ভাড়া-সিঙ্গেল রুম-২০০০ টাকা, ডবল রুম-৪০০০ টাকা। বন বিভাগের রেস্ট হাউসে থাকতে চাইলে আগেই বুকিং দেওয়া ভালো। এফডিএর যোগাযোগ নম্বর—০১৭৪৬৭৬৫৯৫৯ এবং চর কুকরি-মুকরি রেস্ট হাউসের যোগাযোগ নম্বর—০১৭৩৯৯০৮০১৩।

একুশে সংবাদ/এসএডি
 

Link copied!