ঢাকা রবিবার, ০১ আগস্ট, ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

আষাঢ় নিয়ে এলো বর্ষা


Ekushey Sangbad
নিজস্ব প্রতিবেদক
০২:৫৯ পিএম, ১৫ জুন, ২০২১
আষাঢ় নিয়ে এলো বর্ষা

আজ পহেলা আষাঢ়। বর্ষার প্রথম দিন।আষাঢ় বাংলা সনের তৃতীয় মাস। ষড়ঋতুর এ দেশে আষাঢ়-শ্রাবণ এই দুই মাস নিয়েই বর্ষা ঋতু। গ্রীষ্মের তাপদাহ থেকে তপ্ত প্রকৃতিকে শীতলতার ছোঁয়া এনে দেয় বর্ষা। যদিও বৈশাখ থেকেই কম বেশি বর্ষার দেখা পাওয়া যায়। তবে বর্ষার রুপ  ধরা পরে এই আষাঢ়-শ্রাবণ মাসেই।

মেঘাচ্ছন্ন আকাশ আর প্রিয় মানুষের হাতের একগুচ্ছ কদমফুল জানিয়ে দেয় বর্ষার আগমন বার্তা। 
আষাঢ় নিয়ে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ  লিখেছেন-
 “আবার এসেছে আষাঢ় আকাশ ছেয়ে–
আসে বৃষ্টির সুবাস বাতাস বেয়ে।
এই পুরাতন হৃদয় আমার আজি
পুলকে দুলিয়া উঠিছে আবার বাজি
নূতন মেঘের ঘনিমার পানে চেয়ে
আবার এসেছে আষাঢ় আকাশ ছেয়ে।”

চিরকালই কবিদের বর্ষাবন্দনায় বাঙ্ময় হয়ে উঠেছে এই বর্ষার মোহিনী রূপ। ব্যক্ত হয়েছে অনেক- অব্যক্ত রয়ে গেছে আরো বেশি।

আষাঢ় নামটি এসেছে পূর্বাষাঢ়া ও উত্তরাষাঢ়া নক্ষত্রে সূর্যের অবস্থান থেকে। এমাসে প্রচুর বৃষ্টি হয়। গ্রীষ্মের দাবদাহ শেষে আষাঢ়ে বৃষ্টির ছোঁয়ায় বাংলার প্রকৃতি যেন প্রাণ ফিরে পায়। নতুন আনন্দে জেগে উঠে প্রকৃতি। গ্রীষ্মের রুদ্র প্রকৃতির গ্লানি আর জরাকে ধুয়ে মুছে প্রশান্তি স্নিগ্ধতা আর সবুজে ভরে তোলে বর্ষা।

বর্ষার ভারী বর্ষণে শরীর ধুয়ে নেয় প্রকৃতি। পরিচ্ছন্ন হয়, নতুন করে জেগে ওঠে পরিবেশ।
বর্ষা যেমন বাঙালির জীবনে শান্তি বয়ে আনে তেমনি অতিবৃষ্টিতে দুঃখের কারণও হয়ে ওঠে।বর্ষাকালে শহুরে ও গ্রামীণ জীবনযাপন ভিন্নতা দেখা যায়। বর্ষার অকৃত্রিম দান কৃষকের  সৌভাগ্য বয়ে আনে। তবে বর্ষায় অতিবৃষ্টি  শহর এবং গ্রামে বন্যার কারন হয়। তাই বর্ষার সঙ্গে মিশে আছে আমাদের আনন্দ-বেদনার গল্প। বর্ষার আগমনে আমাদের সবার জীবনে বয়ে আসুক সুখ ও সমৃদ্ধি।

একুশে সংবাদ/পলাশ