ঢাকা শনিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২২, ১৬ মাঘ ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

ব্যবসার আড়ালে অবৈধ অস্ত্র কেনাবেচা


Ekushey Sangbad
নিজস্ব প্রতিবেদক
০৫:১৬ পিএম, ১ নভেম্বর, ২০২১
ব্যবসার আড়ালে অবৈধ অস্ত্র কেনাবেচা
ছবি: একুশে সংবাদ

ছবি: একুশে সংবাদ

রাজধানী যাত্রাবাড়ি হতে আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলিসহ চার অবৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ এর কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট। গ্রেফতারকৃতরা হলো- মোঃ হোসেন, লাল তন পাংখোয়া, মোঃ আলী আকবর ও মোঃ আদিলুর রহমান সুজন।

গতকাল ৩১ অক্টোবর, ২০২১ রবিবার সন্ধ্যা ৬:৫০টায় রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানার সায়েদাবাদ বাসস্ট্যান্ড এলাকা হতে তাদেরকে গ্রেফতার করে স্পেশাল এ্যাকশন গ্রুপের এন্টি ইললিগ্যাল আর্মস এন্ড ক্যানাইন টিম। এ সময় তাদের হেফাজত থেকে ৫টি আগ্নেয়াস্ত্র এবং ৩০১ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

আজ সোমবার ১ নভেম্বর  ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে বিস্তারিত জানান ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ও সিটিটিসি প্রধান মোঃ আসাদুজ্জামান।

সিটিটিসি প্রধান বলেন, যাত্রাবাড়ী থানার ৩৩/১ জনপথ মোড়, সায়েদাবাদ বাসস্ট্যান্ড শ্যামলী ৬ নং বাস কাউন্টারের সামনে কয়েকজন ব্যক্তি অবৈধ অস্ত্র-গুলি হেফাজতে রেখে ক্রয় বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছিল বলে তথ্য পাওয়া যায়। এমন সংবাদের ভিত্তিতে উক্ত স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি বলেন, গ্রেফতারকৃত হোসেন ও লাল তন পাংখোয়া ছাড়াও ঢাকার অস্ত্র ব্যবসায়ী স্বপনসহ বিভিন্ন অবৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ীদের থেকে অস্ত্র-গুলি ক্রয় করে আকবর ও আদিলুরের মাধ্যমে কক্সবাজার এলাকার বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠিসহ চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে সেগুলো সরবরাহ করতো। গ্রেফতারকৃত লাল তন পাংখোয়া রাঙ্গামাটি বরকল সীমান্ত দিয়ে ভারতের মিজোরাম হতে চোরাচালানের মাধ্যমে অস্ত্র-গুলি নিয়ে এসে বাংলাদেশের পার্বত্য অঞ্চলসহ ঢাকা ও কক্সবাজার এলাকায় সেগুলো বিক্রয় করতো। বিভিন্ন সময় অবৈধ অস্ত্র-গুলি কেনা-বেচা করার উদ্দেশ্যে হোসেনের সঙ্গে দেশের বিভিন্ন স্থানে তার যাতায়াত ছিলো।

তিনি আরা বলেন, গ্রেফতারকৃত আকবর ও আদিলুর রহমান সুজন হলো হোসেনের ঘনিষ্ঠ সহযোগী এবং তারা দীর্ঘদিন যাবৎ হোসেনের নিকট হতে অবৈধ অস্ত্র-গুলি ক্রয় করে বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠি ও ব্যক্তির নিকট বিক্রয় করতো।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সারাদেশে বৈধ আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবসা যারা পরিচালনা করে তাদেরকে নজরদারিতে আনা হবে। এ বিষয়ে সার্বক্ষণিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছে।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ী থানায় অস্ত্র আইনে একটি মামলা রুজু হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদেরকে দশ দিনের পুলিশ রিমান্ড আবেদনসহ বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে মর্মে পুলিশের এ কর্মকর্তা জানান।

কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের স্পেশাল এ্যাকশন গ্রুপের উপ-পুলিশ কমিশনার আব্দুল মান্নান, বিপিএম এর সার্বিক নির্দেশনায় এবং অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ আহমেদুল ইসলাম এর তত্ত্বাবধানে এন্টি ইললিগ্যাল আর্মস এন্ড ক্যানাইন টিমের টিম লিডার সহকারী উপ-পুলিশ কমিশনার ওবাইন এর নেতৃত্বে এই অভিযানটি পরিচালিত হয়।

একুশে সংবাদ/বেলাল দেওয়ান/আল-আমিন