AB Bank
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

প্রথম জয়ের সন্ধানে অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলংকা


Ekushey Sangbad
স্পোর্টস ডেস্ক
০৪:৫২ পিএম, ১৫ অক্টোবর, ২০২৩
প্রথম জয়ের সন্ধানে  অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলংকা

চলমান ওয়ানডে বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের লক্ষ্য নিয়ে আগামীকাল নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলংকা। নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচেই হারের তিক্ত স্বাদ পেয়েছে  এই দু’দল। তৃতীয় ম্যাচেই হারের বৃত্ত ভেঙ্গে জয়ের স্বাদ নিতে চায় অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলংকা। লক্ষেèৗতে বাংলাদেশ সময়  বেলঅ ২টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে  ম্যাচটি।

 

স্বাগতিক ভারতের কাছে হার দিয়ে এবারের বিশ^কাপ শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। চেন্নাইয়ের ঐ ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ১৯৯ রানে অলআউট হয় অসিরা। ২০০ রানের টার্গেট ছুঁড়ে দিয়ে শুরুতেই ভারতকে চাপে ফেলে দেয় অস্ট্রেলিয়ার বোলাররা। ২ রানে ৩ উইকেট হারালেও বিরাট কোহলি ও লোকেশ রাহুলের ব্যাটিং দৃঢ়তায় শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেট ম্যাচ হারে অস্ট্রেলিয়া। কোহলি ৮৫ ও রাহুল অপরাজিত ৯৭ রান করেন।

 

পরের ম্যাচে ব্যাটিং-বোলিং ও ফিল্ডিং তিন বিভাগেই ব্যর্থতার ষোলকলা পূর্ণ করে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ১৩৪ রানের বড় ব্যবধানে ম্যাচ হারে অস্ট্রেলিয়া। বিশ^কাপ ইতিহাসে সবচেয়ে ব্যবধানে লজ্জার হারের স্বাদ নেয় অসিরা। প্রথমে ব্যাট করে ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ৩১১ রানের সংগ্রহ পায় দক্ষিণ আফ্রিকা। সর্বোচ্চ ১০৯ রান করেন কুইন্টন ডি কক। দক্ষিণ আফ্রিকা  ইনিংসে ৬টি ক্যাচ ফেলেন অস্ট্রেলিয়ার ফিল্ডাররা।

 

বোলিং-ফিল্ডিংয়ের পর ব্যাটিংয়েও ব্যর্থতার শিকল ছিড়তে পারেনি অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটাররা। ১৭৭ রানে গুটিয়ে হার বরণ করে অসিরা।

 

ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কোন ম্যাচেই ২শ রান করতে  পারেনি পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। এজন্য ব্যাটারদের জ¦লে উঠার অপেক্ষায় আছেন অসি অধিনায়ক প্যাট কামিন্স, ‘প্রথম দুই ম্যাচেই খুব বাজে ব্যাটিং করেছে দল। বোলিং-ফিল্ডিং খুব বেশি খারাপ হয়নি। জয়ের ধারায় ফিরতে হলে ব্যাটিংয়ে আরও বেশি দায়িত্বশীল হতে হবে আমাদের। ব্যাটাররা লড়াই করার পুঁিজ দিলে বা বড় রান তাড়া করে  ম্যাচ জয় সম্ভব হবে। শ্রীলংকার বিপক্ষে আমরা জয়ের লক্ষ্যেই মাঠে নামবো।’

 

তবে অস্ট্রেলিয়ার মত ব্যাটিং নিয়ে চিন্তা নেই শ্রীলংকার। লংকানদের পাহাড় সমান চিন্তা বোলিং নিয়ে। প্রথম দুই ম্যাচেই ব্যাটিংয়ে ৩শর বেশি রান করেছে  লংকানরা। কিন্তু দ্ইু ম্যাচে যাচ্ছেতাই বোলিং পারফরমেন্স করেছে শ্রীলংকা। লংকানদের বোলারদের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকা ৪২৮ ও পরের ম্যাচে পাকিস্তান ৩৪৫ রান করে। দুই ম্যাচে ৯৮ দশমিক ২ ওভারে ৭ দশমিক ৮৬ ইকোনমিতে সর্বমোট ৭৭৩ রান দেয় শ্রীলংকার বোলাররা। এজন্য প্রথম দুই ম্যাচে হারের দায়টা শ্রীলংকার বোলারদের উপর দিয়েছেন দলের কোচ ক্রিস সিলভারউড। তারপরও বোলারদের উপর পূর্ণ আস্থা আছে সিলভারউডের, ‘প্রথম ম্যাচে বোলারদের পারফরমেন্স খুবই খারাপ ছিল। তবে এই বোলাররাই শ্রীলংকাকে ম্যাচ জেতানোর সামর্থ্য রাখে। আশা করবো, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচেই জ¦লে উঠবে তারা এবং বোলারদের হাত ধরেই এবারের আসরে  প্রথম জয় পাবে  শ্রীলংকা।’

 

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের আগে শ্রীলংকার বড় ধাক্কা  ডান উরুর পেশীর ইনজুরি কারনে চলতি বিশ^কাপ থেকে ছিটকে গেছেন  নিয়মিত অধিনায়ক দাসুন শানাকা। তার পরিবর্তে টুর্নামেন্টের বাকী অংশে দলকে নেতৃত্ব দিবেন পাকিস্তানের বিপক্ষে ৭৭ বলে ১২২ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলা কুশল মেন্ডিস। শানাকার জায়গায় বিশ^কাপে দলে সুডাক পেয়েছেন  চামিকা করুনারতেœ।

 

শানাকার ছিটকে পড়ায় হতাশ সিলভারউড বলেন, ‘শানাকাকে হারানো আমাদের জন্য ক্ষতি। সে দলের অধিনায়ক ও অভিজ্ঞ খেলোয়াড়। তার সার্ভিস বিশ^কাপে খুব দরকার ছিলো। আশা করবো, ইনজুরি থেকে দ্রæত সুস্থ হয়ে উঠবে শানাকা।’

 

ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত ১০২বার মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলংকা-অস্ট্রেলিয়া। এরমধ্যে জয়ের পাল্লা ভারী অসেট্রলিয়ার। ৬৩টি জয় পেয়েছে অসিরা। ৩৫টি জয় আছে শ্রীলংকার। ৪টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়।

 

বিশ্বকাপের মঞ্চেও জয়ের দিক দিয়ে এগিয়ে অস্ট্রেলিয়ার। ১১বারের লড়াইয়ে অস্ট্রেলিয়া জিতেছে আটবার, শ্রীলংকার জয় মাত্র ২টিতে ও ১টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়। ১৯৯৬ সালের পর বিশ্বকাপে সাতবারের লড়াইয়ে অস্ট্রেলিয়াকে একবারও হারাতে পারেনি শ্রীলংকা। ২০১৯ সালে সর্বশেষ বিশ্বকাপেও ৮৭ রানে জিতেছিলো অসিরা।

 

শ্রীলংকা দল : কুশল মেন্ডিস (অধিনায়ক), চামিকা করুনারত্নে, কুশল পেরেরা, পাথুম নিশাঙ্কা, দিমুথ করুনারত্নে, সাদিরা সামারাবিক্রমা, চারিথ আসালাঙ্কা, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা, দুশান হেমন্ত, মহেশ থিকশানা, দুনিথ ওয়েলালাগে, কাসুন রাজিথা, মাতিশা পাথিরানা, লাহিরু কুমারা ও দিলশান মাদুশঙ্কা।

 

অস্ট্রেলিয়া দল : প্যাট কামিন্স (অধিনায়ক), সিন অ্যাবট, মার্নাস লাবুশেন, অ্যালেক্স ক্যারি, ক্যামেরন গ্রিন, জশ হ্যাজলউড, ট্রাভিস হেড, জশ ইংলিস, মিচেল মার্শ, গেøন ম্যাক্সওয়েল, স্টিভেন স্মিথ, মিচেল স্টার্ক, মার্কাস স্টয়নিস, ডেভিড ওয়ার্নার ও এডাম জাম্পা।

একুশে সংবাদ/স ক 

Link copied!