AB Bank
ঢাকা রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

বাংলাদেশের দ্বিতীয় সাফল্য এনে দিলো তাসকিন


Ekushey Sangbad
স্পোর্টস ডেস্ক
০৮:৫১ পিএম, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
বাংলাদেশের দ্বিতীয় সাফল্য এনে দিলো তাসকিন

এশিয়া কাপের সুপার ফোর পর্বের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে পাকিস্তান ও বাংলাদেশ। আগে ব্যাট করতে নেমে বড় সংগ্রহ করতে পারেনি টাইগাররা।যেখানে দলকে দ্বিতীয় সাফল্য এনে দিয়েছেন তাসকিন আহমেদ।

 

পাকিস্তানের লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে রান তাড়া করতে নামা পাকিস্তানের সংগ্রহ ১৫.৩ ওভারে দুই উইকেটে ৭৪ রান। এর আগে ৩৮.৪ ওভারে ১৯৩ রানে অল আউট হয়েছে বাংলাদেশ।


পাকিস্তানের হয়ে রান তাড়া করতে নামেন ফখর জামান ও ইমাম উল হক। শুরু থেকেই দেখে খেলতে থাকেন দুজন। পঞ্চম ওভার শেষে ফ্লাডলাইট বিভ্রাটে প্রায় ১৮ মিনিট খেলা বন্ধ থাকে। খেলা শুরুর কিছু পরেই সাফল্য পায় বাংলাদেশ।


শরিফুল ইসলামের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন ফখর। এর আগে ২০ রান করেন তিনি। তার বিদায়ের পর অবশ্য ভালোভাবেই এগোচ্ছিল পাকিস্তান। তবে বাবরকে ১৭ রানে বোল্ড করে সেখানে বাধা দিয়েছেন তাসকিন আহমেদ।


এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তবে পাক বোলারদের তোপে দলীয় অর্ধশতকের আগেই ৪ উইকেট হারায় টাইগাররা।


ঠিক ২৮ ম্যাচ পর দলের সংগ্রহ ৫০ পূরণের আগেই এমন পরিস্থিতির মুখে পড়ে বাংলাদেশ। যেখানে মেকশিফট ওপেনার ও আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান মেহেদী হাসান মিরাজ ফেরেন রানের খাতা খোলার আগেই।


নাঈম শেখ ২০ রানে ফেরেন। এ ম্যাচে দলে যোগ দেওয়া লিটন দাস ১৬ রানের বেশি করতে পারেননি। তাওহীদ হৃদয়ও মাত্র ২ রানে বোল্ড হলে অল্পেই অল আউট হওয়ার শঙ্কায় পড়ে বাংলাদেশ।


এমন সময় দলের হাল ধরেন দীর্ঘদিনের দুই পরীক্ষিত সৈনিক সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিম। তাদের ব্যাটে ধীরে ধীরে এগোতে থাকে টাইগাররা। তবে যখন মনে হচ্ছিল ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ প্রায় চলে এসেছে, ঠিক তখনই সাকিবের বিদায়।


ফাহিম আশরাফকে পুল করতে গিয়ে সাকিব যখন সাজঘরে ফেরেন, তার একটু আগেই মুশফিকের সঙ্গে জুটিটা ১০০ ছুঁয়েছিল। সাকিব নিজেও দীর্ঘদিন পর পেয়েছিলেন ফিফটির স্বাদ। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৫৪তম ফিফটির ইনিংসটি অবশ্য বড় করতে পারেননি তিনি।


এরপরের গল্পটা শুধুই আসা যাওয়ার। আরেক ভরসার নাম মুশফিকও অবশ্য ফিফটি করেছেন। সপ্তম উইকেট হিসেবে আউট হওয়ার আগে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৪ রান করেন তিনি। এর আগে শামীম পাটোয়ারি ফেরেন ১৬ রানে।


বাকি গল্পটা শুধুই হতাশার। মাত্র ৩ রানে শেষ চার উইকেট হারায় বাংলাদেশ। যার ফলে এক পর্যায়ে ভালো রানের স্বপ্ন দেখা টাইগারদের ইনিংস পেরোতে পারেনি ২০০ রানের গণ্ডি। ব্যাটিং উইকেটে ব্যাটারদের আত্মহত্যার মিছিলে অল্পেই থামে সাকিবের দল।


পাকিস্তানের হয়ে এ ম্যাচে একাই চার উইকেট শিকার করেন হারিস রউফ। এছাড়া নাসিম শাহ তিনটি এবং শাহিন শাহ আফ্রিদি, ফাহিম আশরাফ ও ইফতিখার আহমেদ একটি করে উইকেট শিকার করেন।

একুশে সংবাদ/স ক  

Link copied!