AB Bank
ঢাকা মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

দেশ ছাড়লেন বিজয়


Ekushey Sangbad
ক্রীড়া প্রতিবেদক
০৪:০১ পিএম, ৩০ আগস্ট, ২০২৩
দেশ ছাড়লেন বিজয়

জ্বরে আক্রান্ত হয়ে স্কোয়াড থেকে ছিটকে গেছেন ওপেনার লিটন দাস। ক্লাসিক এই ওপেনারের পরিবর্তে স্কোয়াডে ডাক পেয়েছেন এনামুল হক বিজয়। আর স্কোয়াডে ডাক পাওয়ার চার ঘণ্টা পার হওয়ার আগেই শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্যে উড়াল দিয়েছেন উইকেটরক্ষক এই ব্যাটার। ধারণা করা হচ্ছে, বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) লঙ্কানদের সঙ্গে ম্যাচের আগেই পাওয়া যাবে তাকে।

 

জাতীয় দলের প্রাথমিক ক্যাম্পে ডাক পেয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সৌম্য সরকার ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের মতো ক্রিকেটাররা। তাদের মধ্যে ফর্মহীনতায় গত কয়েকটি সিরিজে দলের বাইরে ছিলেন রিয়াদ। অন্যদিকে ইমার্জিং এশিয়া কাপে সুযোগ পেয়েও নিজেকে মেলে ধরতে ব্যর্থ হয়েছেন সৌম্য সরকার। তবুও তাদেরকে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ডাকা হয়েছিল।


বিসিবির প্রাথমিক ক্যাম্পে রিয়াদ, সৌম্য ও মোসাদ্দেকরা ডাক পেলেও উপেক্ষিত ছিলেন ঘরোয়া লিগে রানের বন্যা বইয়ে দেওয়া এনামুল হক বিজয়। যিনি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে টানা দুই মৌসুমে শীর্ষ রান সংগ্রহকারী ছিলেন। তবুও বিসিবির ভাবনার বাইরে ছিলেন।


সবশেষ ডিপিএলে ৫৯.৫৭ গড়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮৩৪ রান করেছিলেন বিজয়। ৩ সেঞ্চুরির পাশাপাশি ছিল ৩ ফিফটি ছিল তার ঝুলিতে। এমন দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পরও এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপ সামনে রেখে এই মাসে হওয়া জাতীয় দলের কন্ডিশনিং ক্যাম্পে রাখা হয়নি তাকে। তখন গুঞ্জনের ডালপালা মেলেছিল, শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে ক্যাম্পে রাখা হয়নি বিজয়কে।


এশিয়া কাপকে সামনে রেখে গত ১২ আগস্ট ১৭ সদস্যের দল স্কোয়াড ঘোষণা করে বিসিবি। স্বাভাবিকভাবেই সেখানেও বিজয়ের থাকার কথা নয়। কেননা প্রাথমিক দলে তো তিনি ছিলেন না। এমনকি তার ফিটনেসও টেস্ট করা হয়নি।


শুধু তাই নয়, ১৭ সদস্যের বাইরে আরো ৮ জনের একটি স্ট্যান্ডবাই প্যানেল করা হয়েছে। যাদেরকে অনুশীলনের মধ্যে রাখা হবে এবং যে কোনো প্রয়োজনে তাদের কাউকে কাউকে দলে অন্তর্ভূক্তও করা হতে পারে। এদের মধ্যে ছিলেন সাইফ হাসান, তাইজুল ইসলাম, জাকির হাসান, সৌম্য সরকার, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতসহ মোট ৮ জন। কিন্তু সেখানেও উপেক্ষিত এনামুল হক বিজয়।


অর্থ্যাৎ জাতীয় দলের নির্বাচক প্যানেল, জাতীয় দল ম্যানেজমেন্ট কমিটি, কোচ-অধিনায়ক, কারো মাথাতেই ছিল না এনামুল হক বিজয়ের নাম। কেউ চিন্তাই করতে পারেনি, এই উইকেরক্ষক ব্যাটারেরও প্রয়োজন দেখা দিতে পারে।


শেষ পর্যন্ত তাই হলো। তামিম ইকবাল নেই। যে কারণে দলে নেয়া হয়েছে তানজিদ হাসান তামিমকে। ওপেনিংয়ে লিটন দাস তো আছেই। সঙ্গে তানজিদ তামিম কিংবা নাঈম শেখকে দিয়ে ওপেন করানো হবে। কিন্তু তীব্র জ্বরের কারণে শ্রীলংকা যেতে পারেননি লিটন দাস। জ্বর কমলেও তিনি খেলার মত সুস্থ হয়ে উঠতে পারেননি।


এদিকে লিটনের পরিবর্তে যাকে শ্রীলংকা পাঠানোর চিন্তা ছিল, সেই সাইফ হাসান ডেঙ্গুতে আক্রান্ত। বাধ্য হয়ে, পুরোপুরি উপেক্ষিত থাকা, কোথাও কোনো অনুশীলনে পর্যন্ত না ডাকা এমানুল বিজয়ের দ্বারস্থই হতে হলো বিসিবিকে। হুট করেই ডেকে নেয়া হলো ওপেনার বিজয়কে। বিসিবি থেকে আজ সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়ে দেয়া হলো, লিটনের পরিবর্তে বিজয়ই যাচ্ছেন শ্রীলংকায়।


বিসিবির সেই বিজ্ঞপ্তিতে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ‘সে (এনামুল বিজয়) ঘরোয়া ক্রিকেটে রানের মধ্যেই ছিল। এছাড়া তাকে বাংলাদেশ টাইগার প্রোগ্রামেও খুব কাছ থেকে মনিটর করেছি। যে কারণে, সব সময়ই সে আমাদের বিবেচনায় ছিল।’


তিনি আরো বলেন, ‘লিটন দাসের অনুপস্থিতির কারণে আমাদের একজন টপ অর্ডার ব্যাটার প্রয়োজন ছিল, যিনি একই সঙ্গে উইকেটকিপিংও করতে পারবেন। সে কারণেই মূলত এনামুল হক বিজয়কে ডাকা হয়েছে।’


এদিকে এশিয়া কাপের স্কোয়াডে ডাক পেয়ে বিজয় বলেন, ‘আমাকে চট্টগ্রামে টাইগার্সের ম্যানেজার বলেছে অনুশীলন করতে থাকো, ডাক আসতে পারে। ইনশাআল্লাহ আমি আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো সুযোগ কাজে লাগানোর জন্য।’


বাংলাদেশ স্কোয়াড: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), নাজমুল হোসেন শান্ত, তাওহীদ হৃদয়, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, হাসান মাহমুদ, মুস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, নাসুম আহমেদ, শেখ মাহেদী হাসান, মোহাম্মদ নাঈম, শামীম হোসেন, তানজিদ হাসান তামিম, তানজিম হাসান সাকিব ও এনামুল হক বিজয়।

 

একুশে সংবাদ/স ক 

Link copied!