AB Bank
ঢাকা বুধবার, ২৯ মে, ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

শ্রীমঙ্গলে তাপমাত্রা ৩৭.৫ ডিগ্রি, বিপাকে শ্রমজীবী মানুষ


শ্রীমঙ্গলে তাপমাত্রা ৩৭.৫ ডিগ্রি, বিপাকে শ্রমজীবী মানুষ

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বৈশাখের শুরু থেকেই গরমে ত্রাহি অবস্থা। তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় বেশ অস্বস্তিতে ভুগছেন উপজেলাবাসি। সূর্যোদয় থেকেই তেজদীপ্ততা শুরু হয়, সেই থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত তাপদাহে নাভিশ্বাস হয়ে উঠছে শ্রীমঙ্গলের জনজীবনে। শুধু তাই নয় রাতেও ভ্যাপসা গরমে হাঁপিয়ে উঠছেন উপজেলার মানুষ।  

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) বেলা ৩টায় শ্রীমঙ্গল উপজেলায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

এদিকে প্রচন্ড গরমে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষ। সরেজমিন শ্রীমঙ্গল শহরের কালিঘাট রোড রিক্সা স্ট্যান্ড, রেলওয়ে স্টেশন, হবিগঞ্জ রোডের রিক্সা স্ট্যান্ড, ভাড়াউড়া চা বাগান, সদর ইউনিয়ের হাইল হাওর এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, গরমের মধ্যেও খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষেরা জীবিকার সন্ধানে যার যার পেশাগত কাজে ব্যস্ত। 

কালিঘাট রোডের রিক্সা চালক মনির হোসেন বলেন, সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মাত্র একটি ট্রিপ দিয়েছি, প্রচন্ড গরম আর রোদে পেসিঞ্জার নিয়ে দূূরে যেতে পারছি না। ঘামে পুরো শরীর ভিজে অবস্থা খারাপ, আর রোদের তাপ সহ্যের বাইরে।

হাইল হাওর এলাকার কৃষক আছলাম মিয়া বলেন, রোদের তাপে মাটি পর্যন্ত গরম হয়ে গেছ। খালি পায়ে কাজ করা যাচ্ছে না, তবু গরম সহ্য করে করছি। কিছু সময় বিশ্রাম নিয়ে কৃষি ক্ষেতে কাজ করছি, কিন্তু কাজের গতি পাচ্ছি না।

ভাড়াউড়া চা বাগানের শ্রমিক দয়াল বুনার্জি বলেন, আজকে গরম বেশি। প্রচন্ড রোদ আর গরমে বাগানে কাজ করতে সমস্যা হচ্ছে। তবু পেটের ক্ষুদা নিবরণে করতে হচ্ছে।

হবিগঞ্জ রোডে দেখা হয় ভ্যানচালক রজব আলীর সাথে। আলাপকালে তিনি বলেন, গরম আর রোদে গলা-বুক শুকিয়ে কাঠ হয়ে যাচ্ছে। দীর্ঘসময় ভ্যান চালাতে পারছি না। 

মঙ্গলবার বেলা ১২ টায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ঘুরে দেখা যায়, দুর্বিষহ গরমে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা মানুষের ভিড়।

এরমধ্যে গরমে বেশি অসুস্থ হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধরা। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিকেট কাউন্টার সূত্রে জানা যায়, গত দুইদিনে প্রায় দুই হাজার রোগী বহির্বিভাগে টিকেট কেটে চিকিৎসা নিয়েছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র জানায়, স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা অধিকাংশই ডায়রিয়া, পানিশূন্যতা ও গরমে অসুস্থ হওয়া রোগী বেশি।

শ্রীমঙ্গল আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক বিভলু চন্দ্র দাস জানান, শ্রীমঙ্গল উপজেলায় প্রতিদিন তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। আজ বিকেল ৩টায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

শ্রীমঙ্গলে অবস্থিত আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের আবহাওয়া কর্মকর্তা মুজিবুর রহমান একুশে সংবাদ ডটকম-কে বলেন, আজ মঙ্গলবার বিকেল ৬টায় শ্রীমঙ্গলে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, আর এটই এ মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। 

তিনি আরও বলেন, সিলেটের বিভিন্ন এলাকায় বৃষ্টি হতে পারে, শ্রীমঙ্গলেও দুয়েকদিনের মধ্যে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

 

একুশে সংবাদ/বিএইচ

Link copied!