AB Bank
ঢাকা শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

জাবির ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে ভর্তিচ্ছুদের অসন্তোষ


জাবির ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে ভর্তিচ্ছুদের অসন্তোষ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ভর্তি পরীক্ষায় বরাবরই দ্রুত ফল প্রকাশ করলেও, এবারের প্রকাশিত ফলাফল নিয়ে অসন্তুষ্টি ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ভর্তিচ্ছু ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

 

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২৩-২৪ সেশনের ভর্তি পরীক্ষা গত ২২ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলে। এ পরীক্ষায় ১৮৪৪ টি আসনের বিপরীতের আবেদন করেন ১ লাখ ৯৭ হাজার ৮৫১ জন ভর্তিচ্ছু। সেই হিসাবে আসনপ্রতি লড়েন প্রায় ১০৮ জন শিক্ষার্থী।

এতে গত ২২,২৫ ও ২৯ ফেব্রুয়ারি যথাক্রমে ‍‍`এ‍‍`, ‍‍`সি‍‍` ও ‍‍`বি‍‍` ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ২৭ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি ‍‍`ডি‍‍` ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও ৩ মার্চ থেকে ৫ মার্চ পর্যন্ত নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ব্যবহারিক পরীক্ষা এবং ৫ মার্চ চারুকলা বিভাগের ব্যবহারিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

পরীক্ষায় গত ২৫ তারিখে ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন অ্যান্ড টেকনোলজি (আইআইটি) এবং গাণিতিক ও পদার্থবিষয়ক অনুষদভুক্ত ‘এ’ ইউনিটের ফলাফল প্রকাশ করা হয়। এতে ছেলেদের মধ্যে সর্বোচ্চ নাম্বার পান অভিজ্ঞান পোদ্দার। তার মোট স্কোর ৯৪.৬। অন্যদিকে মেয়েদের মেরিট লিস্টে প্রথম হন রুবাইয়া সুলতানা। তার স্কোর ৯০.২।

পরে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি কলা ও মানবিকী অনুষদ এবং বঙ্গবন্ধু তুলনামূলক সাহিত্য ও সংস্কৃতি ইনস্টিটিউটভুক্ত ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়। ছেলেদের ফলাফলে  সর্বোচ্চ ৮৭ দশমিক ৯১ নম্বর নাম্বার পেয়ে প্রথম হন শাহরিয়ার প্রত্যয়। অন্যদিকে ছাত্রীদের মধ্যে প্রথম হয়ে শুভ্রা আলি মোট ৮৪ নম্বর অর্জন করেন।

সর্বশেষ গত ২৯ ফেব্রুয়ারি প্রকাশ হয় জীববিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ডি ইউনিটের ফলাফল। ডি ইউনিটে ছাত্রদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন রেদোয়ানুল হক মারুফ। তিনি ৮৯ দশমিক ৬০ নম্বর পেয়েছেন। অন্যদিকে ছাত্রীদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন ফাহরিমা ইউসুফ ইলমা। তিনি ৯০ দশমিক ৮০ নম্বর পেয়েছেন।

তবে এ রেজাল্ট নিয়ে সমালোচনা করেছেন অনেকেই। বিশেষত ফল প্রকাশের পরেও পুনঃনিরীক্ষণের ব্যবস্থা না থাকায় ভর্তিচ্ছু ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করছেন।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে এক ভর্তিচ্ছু বলেন, পরীক্ষা আমি যথেষ্ট ভালোভাবে দিয়েছি। কিন্তু ফলাফলে যা নম্বর এসেছে তা আমি কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছি না। বিশেষত আমি ম্যাথ প্রশ্ন শিওর হয়ে বেশি দাগিয়েছিলাম। অথচ ম্যাথেই আমার কম নম্বর এসেছে। অন্যদিকে জিকে অনেক কম দাগানোর পরেও আমার সেখানে নম্বর প্রত্যাশার বাহিরে এসেছে।
অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী শাহিদুজ্জামান সরকার বলেন, জাবির ভর্তি পরীক্ষায় শিফট বৈষম্যের ব্যাপারটি বরাবরই আলোচনায় থাকলেও এবারের অভিযোগগুলো সম্পূর্ণ ভিন্ন। বিশেষত সাবজেক্ট অনুযায়ী নাম্বারে অসামঞ্জস্যতা দেখা গিয়েছে। অনেক পরীক্ষার্থী কোনো বিষয়ে যতটা দাগিয়েছে, তার থেকেও নম্বর বেশি পেয়েছে। আবার অনেকে কোন বিষয়ে শিওর দাগিয়েও প্রত্যাশা মাফিক নম্বর পায়নি। আবার অনেকের  যতটা উত্তর করেছে, তার থেকেও কম উত্তর কাউন্ট করা হয়েছে। এ কারণে এবারের পরীক্ষার খাতা নিরীক্ষণে যান্ত্রিক ত্রুটি হলেও হতে পারে। তাই পুনরায় খাতা নিরীক্ষণ করে রেজাল্ট পাবলিশ করা হোক।

অন্যদিকে এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. আবু হাসান বলেন, এবারের ভর্তি পরীক্ষা অত্যন্ত সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তা সত্ত্বেও যদি কোনো পরীক্ষার্থী তার ফল নিয়ে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেন, তাহলে সে চাইলেই তার পরীক্ষা দেয়া সংশ্লিষ্ট ইউনিউটের ডীন বরাবর অভিযোগ জানাতে পারে।

কলা ও মানবিকী অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো. মোজাম্মেল হক বলেন, পরীক্ষায় আশানুরূপ নম্বর নিয়ে কোনো পরীক্ষার্থীর অভিযোগ থাকলে সে সংশ্লিষ্ট ইউনিটের ডীন বরাবর আবেদন করতে পারে। সেক্ষত্রে ডীন সংশ্লিষ্টদের সাথে আলোচনার মাধ্যমে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।
 

একুশে সংবাদ/এনএস

Link copied!