ঢাকা সোমবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

পাপুয়া নিউগিনির দুর্দান্ত ক্যাচে সাকিবের পতন


Ekushey Sangbad
স্পোটর্স ডেস্ক
০৫:৩৯ পিএম, ২১ অক্টোবর, ২০২১
পাপুয়া নিউগিনির দুর্দান্ত ক্যাচে সাকিবের পতন

বাংলাদেশের বিপক্ষে পাপুয়া নিউগিনিকে আজ  দেখা গেছে বেশ কিছু মিস ফিল্ডিং করতে। তবে এ দলটির সবচেয়ে বড় শক্তি ফিল্ডিংকথাটি প্রমাণ করেছে দলটির ফিল্ডারদের ক্যাচে। একটি ক্যাচও ছাড়ছে না তারা। এমনকি মোটামুটি কঠিন ক্যাচগুলোও তাদের তালুবন্দী হতে দেখা যাচ্ছে।

এই যেমন মুশফিকুর রহীমের ক্যাচ। সিমন আতাইয়ের বলে ডিপ স্কয়ার লেগে খেললেন মুশফিক। বলটি খুব বেশি উপরেও উঠলো না। কিন্তু সোজা চলে গেলো ফিল্ডারের হাতে। দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় বলটি তালুবন্দী করে ফেললেন হিরি হিরি। ৮ বলে মাত্র ৫ রান করে ফিরে গেলেন মুশফিকুর রহীম।

শুধু মুশফিকুর রহীম কেন, সাকিব আল হাসানের ক্যাচ যেভাবে ধরলেন চার্লস আমিনি, তাকে রীতিমত বিস্ময়কর বলাই স্রেয়। আসাদ ভালার বল লং অনে তুলে খেললেন সাকিব। দৌড়ে এসে ঝাঁপিয়ে পড়ে আমিনি যেভাবে ক্যাচটি লুফে নিলেন, তা রীতিমত বিস্ময়কর। ৩৭ বলে ৪৬ রানের ইনিংস খেলে আউট হলেন সাকিব। ৩টি ছক্কার মার ছিল তার ইনিংসে।

এ প্রতিবেদন লেখার সময় বাংলাদেশের রান ১৪.১ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ১০৫। উইকেটে রয়েছেন ২০ রান নিয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং শূন্য রানে আফিফ হোসেন ধ্রুব।

প্রথম দুই ওভারে পাওয়ার প্লে বলতে গেলে কাজেই লাগাতে পারেনি বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। প্রথম ম্যাচে ২ উইকেট হারিয়ে তুলেছিল মাত্র ২৫ রান। দ্বিতীয় ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে ২ উইকেট হারিয়ে ২৯ রান তোলে টাইগাররা।

সে হিসেবে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে আজ প্রথম পাওয়ার প্লেতে রান পেয়েছে বাংলাদেশ। নাইম শেখের উইকেট হারিয়ে ৪৫ রান তুলেছে টাইগাররা। নাইম আউট হওয়ার পর জুটি বাধেন সাকিব এবং লিটন। তাদের ব্যাটেই উঠলো সবগুলো রান।

কিন্তু সাকিব আর লিটন মিলে ৫০ রানের জুটি গড়ে ওঠার পরই নেমে এলো বিপদ। পাপুয়া নিউগিনির অধিনায়ক আসাদ ভালা নিজেই চলে আসেন বোলিংয়ে। তিনি ডান হাতি অফ স্পিনার। স্পিন আসতেই বিপদ ডেকে আনলেন লিটন দাস।

আসাদ ভালার ওভারের প্রথম বল মোকাবেলা করতে গিয়ে স্লগ সুইপ খেলেন লিটন। বল উঠে যায় ডিপ মিডউইকেটে। ফিল্ডার ছিলেন সেই সেসে বাউ, যিনি নাইমের ক্যাচও ধরেছিলেন। ২৩ বলে ২৯ রান করে আউট হয়ে যান লিটন। বাউন্ডারি এবং ছক্কা মেরেছিলেন ১টি করে।

মাত্র তিনরানের ব্যবধানে জিতলেই সুপার টুয়েলভে খেলা নিশ্চিত করে ফেলবে বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষ এবার বিশ্বকাপে প্রথম খেলতে আসা পাপুয়া নিউগিনি। র‌্যাংকিংয়ে যাদের অবস্থান ১৬তম স্থানে। বাংলাদেশের চেয়ে তুলনামূলক দুর্বল প্রতিপক্ষ।

পরিস্থিতি যখন এমন, তখন বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মনে আত্মবিশ্বাস কিছুটা বেশিই। যার প্রমাণ দেখা গেলো শুরুতেই। অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসের বলেই কি না ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই ছক্কা মারতে গিয়ে মাঠেই ধরা পড়ে যান ওপেনার নাইম শেখ।

পাপুয়া নিউগিনির বোলার কাবুয়া মোরেয়ার প্রথম বলেই খোঁচা দিতে গিয়ে উইকেটরক্ষক কিপলিন দোরিগার হাতে প্রায় ক্যাচ দিয়ে ফেলেছিলেন নাইম; কিন্তু ভাগ্য ভালো, বলটা উইকেটরক্ষকের হাতে যাওয়ার আগেই মাটিতে পড়ে যায়। কিন্তু পরের বলেই বাংলাদেশকে হতাশায় ডুবিয়ে দেন নাইম।

পাপুয়া নিউগিনির বোলার কাবুয়া মোরেয়ার লেগ স্ট্যাম্পের ওপর করা হাফভলি বলটিকে ডিপ স্কয়ার লেগে তুলে মারতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দিলেন। সেসে বাউর হাতে গিয়ে পৌঁছায় সেই বলটি। বাতাসে ভেসে আসা বলটি তালুবন্দী করতে মোটেও কষ্ট করতে হয়নি বাউকে।

নাইম শেখ ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই বিদায় নিলেন। এমনকি তুলতে পারেনি কোন রানও।


একুশে সংবাদ/জা/তাশা