ঢাকা সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

শেষ পর্যন্ত ভালই সাফল্য দেখিয়েছে টাইগাররা


Ekushey Sangbad
একুশে সংবাদ ডেস্ক
১১:৪৬ এএম, ২৩ মার্চ, ২০২১
শেষ পর্যন্ত ভালই সাফল্য দেখিয়েছে টাইগাররা

৬ উইকেট হারিয়ে ২৭১ রানের সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে বাংলাদেশ। ম্যাচের শুরুতে উইকেট হারায় বাংলাদেশ। তবে শেষ পর্যন্ত ভালই সাফল্য দেখিয়েছে টাইগাররা। অধিনায়ক তামিমের দেখানো পথে হেঁটেছেন মিথন-মুশফিকরা।  

তামিমের পর বড় অবদান রাখেন মোহম্মদ মিথুন। ২ ছয় ও ৬ চারে ৭৩ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন মিথুন। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন মুশফিক, মাহমুদুল্লাহ ও সাইফউদ্দিন।

দলকে শক্ত ভিত গড়ে দেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। কিন্তু দুর্ভাগ্য রান আউটে ফিরতে হয় তামিমকে। তার আগে ১১টি চারে ব্যক্তিগত ৭৮ করে যান এই ওপেনার। দলীয় ১৩৩ রানের মাথায় মুশফিকের কলে রান নিতে গিয়ে আউট হন তিনি।

তামিমের আউটের পর মুশফিকের সঙ্গী হন মিথুন। এই জুটি ১৩৩ রান থেকে দলের সংগ্রহ নিয়ে যান ১৮৩তে। এরপর স্যাটনারের বলে হেনরি নিকোলসের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন মুশফিক। তার আগে ৩ চারে ৩৪ রান করে যান এই ব্যাটসম্যান কাম উইকেট কিপার। 

মুশি চলে যাওয়ার পর মিথুনের সঙ্গী হন মাহমুদুল্লাহ। এই জুটি দলের সংগ্রহ নিয়ে যান ২৪৭ রানে। মাহমদুল্লাহ নিজের ১৬ রানের মাথায় জেমিসনের বলে গাপটিলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। এরপর মিথুনের সঙ্গে যোগ দেন মেহেদী হাসান। এক ছয়ে ৭ রানে বোল্ডের বলে আউট হন মেহিদী।

এরপর পেসার সাইফুদ্দিন নেমে ৪ বলে ৭ রান নিতে সক্ষম হলেও মিথুন ছয়-চার মেরে দলের সংগ্রহ নিয়ে যান সম্মানজনক অবস্থানে।

এর আগে ব্যাটিংয়ে নেমেই শূন্য রানে মাঠ ছাড়েন লিটন দাস। তখনই প্রথম ম্যাচের ব্যাটিং দুর্দশার শঙ্কা দেখা দেয় টাইগার শিবিরে। কিন্তু সৌম্য সরকারকে নিয়ে অধিনায়ক তামিম ইকবাল শক্ত অবস্থান সেই বিপর্যয়কে কিছুটা হলেও স্বস্তি এনে দেয়। 

বাংলাদেশ একাদশ :
 
তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহীম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদি হাসান মিরাজ, শেখ মেহেদি হাসান, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান এবং তাসকিন আহমেদ।

নিউজিল্যান্ড একাদশ : 

মার্টিন গাপটিল, হেনরি নিকলস, ডেভন কনওয়ে, টম লাথাম (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), উইল ইয়ং, জেমস নিশাম, ড্যারেল মিচেল, মিচেল স্যান্টনার, ম্যাট হেনরি, কাইল জেমিসন এবং ট্রেন্ট বোল্ট।


একুশে সংবাদ / এ / এস