AB Bank
ঢাকা বুধবার, ১৭ জুলাই, ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

স্বাধীনতার ৫০ বছরেও নড়াইলে গড়ে উঠেনি বিসিক শিল্প নগরী


Ekushey Sangbad
সাইফুল ইসলাম রুদ্র, নরসিংদী
০৪:০২ পিএম, ২৯ নভেম্বর, ২০২২
স্বাধীনতার ৫০ বছরেও নড়াইলে গড়ে উঠেনি বিসিক শিল্প নগরী

নড়াইলে স্বাধীনতার ৫০ বছরেও  গড়ে উঠেনি বিসিক শিল্প নগরী। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এবং নড়াইলের ব্যবসায়ী মহল শিল্পনগরী স্থাপনে নানাবিধ পদক্ষেপ নিলেও তা আলোর মুখ দেখেনি।

 

দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে নড়াইল, মাগুরা ও বান্দরবান জেলা ব্যাতীত অপর ৬১ জেলায় বিসিক শিল্পনগরী গড়ে উঠেছে। সর্বশেষ ২০২১ সালে শহরতলির ধোপাখোলার উজিরপুর মৌজার প্রায় সাড়ে ৩শ একর জায়গা নির্ধারণ করে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। গত ২০২১ সালের ২৫ ডিসেম্বর বিসিক চেয়ারম্যান নড়াইলে এসে বিসিক শিল্প নগরী স্থাপনের ব্যাপারে আশ্বাস প্রদান করেছিলেন। তবে, সে আশ্বাস এখনও আলোর মুখ দেখেনি।

 

জানা যায়, ১৯৮৪ সালে নড়াইল জেলা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর ১৯৮৮ সালে বিসিক শিল্পনগরী স্থাপনের জন্য শহরের রঘুনাথপুর মৌজায় ১৫ একর জমি নির্বাচন করা হয়। ১৯৯০ সালের ১১ জুন ভূমি মন্ত্রণালয় জমি অধিগ্রহণের চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় এবং জমির মালিকদের ক্ষতিপূরণ বাবদ ৪ লাখ ৯৮ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হলেও পরে শিল্পমন্ত্রণালয় থেকে টাকা ছাড় না পাওয়ায় জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।

 

এর ৮ বছর পর ১৯৯৮ সালে নতুন করে শহরতলি বোড়াবাদুরিয়া-সীমাখালি মৌজার ১৫ একর জমি নির্বাচন করে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে প্রতিবেদন দাখিল করা হলেও নড়াইলের ব্যবসায়ীদের একটি অংশ এটা ‘সন্ত্রাসী এলাকা’ এবং ‘অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার’ কথা বলে এ জায়গার বিরোধিতা করলে শিল্প নগরি স্থাপনের কার্যক্রম থেমে যায়।

 

এরপর ২০১৬ সালের ৮ নভেম্বর শহর থেকে ৪ কিমি. পশ্চিমে বাঁশভিটায় শিল্পনগরীর জন্য ১৫ একর জমি ক্রয়ের সুপারিশ ঢাকায় পাঠানো হলেও বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে স্থানীয় একটি মহল এর বাঁধা দিলে এখানেও শিল্পনগরী স্থাপন কার্যক্রম থেমে যায়।

 

সর্বশেষ ২০২১ সালে শহরের ধোপাখোলা এলাকায় উজিরপুর মৌজায় শিল্পনগরী গড়ে তোলার আশ্বাস দিয়ে জেলা প্রশাসককে জমি অধিগ্রহণের জন্য নির্দেশনা দেওয়ার পর সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে সংশ্লিষ্ট মৌজার জমি নির্ধারণ করে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। এভাবে ৩৪ বছরে ৪ বার জায়গা নির্ধারণ কার্যক্রমে সীমাবদ্ধ রয়েছে নড়াইল বিসিক শিল্পনগরীর দাবি ও এলাকাবাসির স্বপ্ন।

 

নড়াইলের ব্যাবসায়ী ও শিল্প স্থাপনে আগ্রহী মহল জানান, নড়াইল-মাওয়া-ঢাকা মহাসড়ক এবং চিত্রা নদীর পার্শ্বে বিসিক শিল্পনগরী গড়ে উঠলে দেশের বড়ো বড়ো ব্যবসায়ী এবং উদ্যোক্তা এখানে শিল্প প্রতিষ্ঠান করার জন্য আগ্রহী হবেন। এতে নড়াইলের উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে। তারা আরও বলেন, শুধু জায়গা নির্ধারণ নয়, চাই শিল্পনগরী গড়ে ওঠার জরুরী পদক্ষেপ।

 

বিসিক নড়াইল কার্যালয় থেকে অন্যত্র বদলি হয়ে যাওয়া উপ-ব্যবস্থাপক মামুনুর রশীদ বলেন, গত ২০২১ সালের ২৫ ডিসেম্বর বিসিক চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান অনির্ধারিত এক সফরে নড়াইলে এসেছিলেন। এদিন বিসিক শিল্পনগরী স্থাপনের ব্যাপারে তিনি আশ্বাস প্রদান করেছেন। নড়াইলে ২শ একর জমির ওপর বিসিক শিল্পনগরী স্থাপনে ডিপিপি প্রণয়ন করে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়েছে। তিনি দ্রুত বিসিক শিল্পনগরী গড়ে তোলার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

 

অপরদিকে নড়াইল বিসিক কার্যালয়ে সদ্য যেগদানকারি উপ-ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী সোলায়মান হোসেন বলেন, উজিরপুর মৌজার সাড়ে ৩শ একর জমি নির্ধারণ করে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রস্তাবনা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়েছে। তবে, প্রেরিত প্রস্তাবনার বিষয়ে কি হয়েছে তা এখনও  জানা যায়নি।

 

একুশে সংবাদ/উ.রা.প্রতি/পলাশ

Link copied!