ঢাকা শনিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

ডায়াবেটিসের ইনসুলিন সংরক্ষন করা যাবে স্বাভাবিক তাপমাত্রায়


Ekushey Sangbad
একুশে সংবাদ ডেস্ক
০৩:৩৭ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১
ডায়াবেটিসের ইনসুলিন সংরক্ষন করা যাবে স্বাভাবিক তাপমাত্রায়

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য সুখবর।ডায়াবেটিস রোগীদের ব্যবহৃত ইনজেকশন ইনসুলিন।এটি এতদিন সংরক্ষন হতো রেফিজারেটরে তবে সাম্প্রতি ভারতের বিজ্ঞানীরা জানান তারা এমন এক ধরনের ইনসুলিন বাজারে আনছেন যেটা সংরক্ষনে রেফিজারেটরের প্রয়োজন নেই।


নতুন ধরনের এই ইসুলিনের নাম দেওয়া হয়েছে ইনসোলক।

ভারতের জাতীয় দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- বোস ইনস্টিটিউট, ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব কেমিক্যাল বায়োলজি (আইআইসিবি) এবং ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব কেমিক্যাল টেকনোলজি এই তিন গবেষণা সংস্থার একদল বিজ্ঞানীর চার বছরের গবেষণার ফসল এই ইনসোলক।

মানবদেহের একটি হরমোনের নাম ইনসুলিন, যার কাজ রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করা। যখন মানবদেহে প্রাকৃতিকভাবে এই হরমোন সৃষ্টি বন্ধ হয়ে যায়, তখনই তাকে ডায়াবেটিস বলা হয়।

এ রোগের চিকিৎসার অংশ হিসেবে কৃত্রিমভাবে তৈরি ইনসুলিন টিকার মাধ্যমে আক্রান্ত রোগীদের দেওয়া হয়। তবে সেই ইনসুলিন সংরক্ষন করতে হয় ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা। এর বেশি তাপমাত্রায় থাকলে সেটি জমে যায় এবং কার্যকারিতা নষ্ট হয়।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইনসুলিনের অনুতে অ্যামিনো এসিডের চারটি বিশেষ অনু প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে তৈরি করা হয়েছে এই ইনসোলক। ফলে, এটি বাজারে প্রচলিত ইনসুলিনের চেয়ে অনেক বেশি তাপ সহনশীল।

গবেষক দলের অন্যতম সদস্য শুভ্রাংশু চ্যাটার্জী, ‘আপনি এটিকে রেফ্রিজারেটরের বাইর যতক্ষণ খুশি রাখতে পারেন, এর গুণাগুণের কোনো পরিবর্তন হবে না। ইনসোলক ৬৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপ সহ্য করতে সক্ষম।’

‘বিশ্বজুড়ে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা বাড়ছে, কিন্তু সংরক্ষণ সুবিধা না থাকার কারণে অনেক অঞ্চলের ডায়াবেটিস রোগীরা সময়মতো এই ওষুধটি পাচ্ছেন না। আমাদের বিশ্বাস, ব্যাপকমাত্রায় ইনসোলকের উৎপাদন ও ব্যাবহার শুরু হলে ডায়াবেটিস চিকিৎসায় বিপ্লব ঘটে যাবে।’
আর সে সুবিধা পাওয়া যাবে অন্য সব দেশেও।


একুশে সংবাদ/ঢ.নি/মু