ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
Ekushey Sangbad
Janata Bank
করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ নির্দেশনা

বৃষ্টির পরই জেঁকে বসতে পারে শীত


Ekushey Sangbad
নিজস্ব প্রতিবেদক
নভেম্বর ২১, ২০২০, ১১:০৪ এএম
বৃষ্টির পরই জেঁকে বসতে পারে শীত

বাংলা ক্যালেন্ডারে অগ্রহায়ণ মাস শুরু হয়েছে মাত্র। শীত আসতে আরও তিন সপ্তাহের মতো বাকি। কিন্তু তার আগেই দেশের অনেক স্থানে শীত পড়তে শুরু করেছে। শীতের এই আমেজ বাড়িয়ে দিয়েছে বৃষ্টি। গতকাল ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় বৃষ্টি হয়েছে। কোথাও ছিটেফোঁটা কোথাও আবার এক পশলা। বৃষ্টির সঙ্গে ছিল কুয়াশাও।

গতকাল রাতের আকাশে ছিল মেঘের আধিক্য। বৃষ্টিও নেমেছিল। শনিবার সকাল থেকেও আবহাওয়ার ভাব একই রকম। ঢাকার আকাশে শনিবার সূর্যের দেখা মেলেনি।

আবহাওয়া অফিস বলছে আজ সূর্য নাও দেখা যেতে পারে। হতে পারে বৃষ্টিও। হয়েছেও তাই। সকালে ছিটেফোঁটা বৃষ্টি নেমেছিল। কোথাও কোথাও এখনো হচ্ছে। সেই সঙ্গে রাজধানীজুড়ে ফিনফিনে কুয়াশার চাদর। একই অবস্থা পুরো বাংলাদেশ জুড়েই।

আবহাওয়া অফিস তাদের পূর্বাভাবে জানিয়েছে, শনিবার ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও বৃষ্টি হতে পারে। আবহাওয়া অফিস এও বলছে যে, আজ দেশের বেশিরভাগ আকাশজুড়ে মেঘের ঘনঘটা থাকবে। থাকবে কুয়াশাও।

বাংলাদেশের আবহাওয়াবিদরা বলছেন, এই বৃষ্টির প্রকোপ শনিবার কিংবা রবিবার শেষ হবে। এরপর শীত জেঁকে বসতে পারে। পূর্বাভাস মোতাবেক বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। নিম্নচাপের প্রভাবে মেঘের আধিক্য। এর ফলেই বৃষ্টি হচ্ছে। আবহাওয়ার এই একই অবস্থা বিরাজ করছে ভারতেও। পশ্চিম বঙ্গে গতকাল থেকেই হালকা বৃষ্টির প্রকোপ ছিল। একদিকে বঙ্গোপসাগর থেকে ধেয়ে আসা মেঘমালা। অন্যদিকে নেপাল ও হিমালয় হয়ে শীতল উত্তরের হাওয়া পঞ্চগড় দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। ফলে অসময়ের এই বৃষ্টি শীতের আমেজ বাড়িয়ে দিয়েছে। বোঝাই যায় বৃষ্টির রেশ কেটে গেলে বাড়বে শীতের প্রকোপ।

গতকাল ঢাকায় টানা বৃষ্টি না হলেও থেকে থেকে বিভিন্ন জায়গায় ভারী বর্ষণ হয়েছে। ফলে কোথাও কোথাও পানি জমেছিল। কর্দমাক্ত সড়কে পথচারীদের ভূগিয়েছে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অফিসের ওয়েবসাইটে দেয়া মানচিত্রে দেখা যায় আটটি বিভাগের সব কয়টির আকাশেই মেঘ উড়ে বেড়াচ্ছে। আজ সকালে ঢাকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২২.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৮.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। বাতাসের আদ্রতা ৭০ শতাংশ।

একুশে সংবাদ/ঢা/এআরএম