AB Bank
ঢাকা শুক্রবার, ০২ জুন, ২০২৩, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. রাজধানী

করিনার জেদে ‘জব উই মেট’ থেকে বাদ পড়েছিলেন কোন অভিনেতা?


Ekushey Sangbad
বিনোদন ডেস্ক
০৬:৫৭ পিএম, ২৭ অক্টোবর, ২০২২
করিনার জেদে ‘জব উই মেট’ থেকে বাদ পড়েছিলেন কোন অভিনেতা?

কেরিয়ারের পথ বদলে দিয়েছিল ‘জব উই মেট’। করিনা কপূর আর শাহিদ কপূর— দু’জনেরই। যদিও মূল চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিল ববি দেওলের। করিনার বায়নাতেই সিদ্ধান্ত বদলাতে বাধ্য হয়েছিলেন পরিচালক ইমতিয়াজ় আলি। সে কথা পরে ফাঁস করেন ববি।

 

ছবিতে ব্যবসায়ীর পুত্র আদিত্যর ভূমিকায় শুরু থেকেই অভিনয় করার কথা ছিল ববির। শ্রী অষ্টবিনায়ক স্টুডিয়ো, যাঁরা এই ছবিটির প্রযোজনা করেছিলেন, তাঁরাও জানতেন ধর্মেন্দ্র-পুত্রই নায়ক হবেন। কিন্তু তার পর? অদ্ভুত কাণ্ড!

 

প্রযোজকরা অবশ্য ববির প্রস্তাব শুনে শুরুতে উৎসাহিত হননি। আশঙ্কা প্রকাশ করেন, ইমতিয়াজ়ের সঙ্গে কি কাজ করতে চাইবেন করিনা? তা ছাড়া ইমতিয়াজ় ছবিতে হাত দিলে অহেতুক বাজেট বাড়ে। কিন্তু তা-ও কথাবার্তা এগোয়। করিনা একটু দর কষাকষি করে রাজি হয়ে যান। তবে শর্ত দেন, ছ’মাস পর শুটিংয়ের কাজ শুরু করতে পারবেন। তাই তাঁর কথা মতো সেই দফায় আটকে যায় ‘জব উই মেট’-এর কাজ।

 

এর পর হঠাৎ এক দিন চমকে ওঠেন ববি। ‘বরসাত’-এর নায়ক জানান, “দেখি, ছবির শুটিং শুরু হয়ে গেল আমাকে বাদ দিয়েই। করিনা, ইমতিয়াজ়— সবাই আমার পরিকল্পনা মতো যে যাঁর ভূমিকায় এলেন। কেবল নায়কের জায়গায় করিনার তৎকালীন প্রেমিক শাহিদ কপূর। আমি বলি, বাহ্ রে বাহ্! এ কেমন হল?”

 

শুধু তাই নয়, ববি জানান, ‘হাইওয়ে’ ছবিতেও ইমতিয়াজ়ের সঙ্গে কাজ করার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু সে বারও বাদ পড়েছিলেন কোনও এক অজ্ঞাত কারণে। তবে এ নিয়ে ইমতিয়াজ়ের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হয়নি অভিনেতার।

 

হাসতে হাসতে ববি তাঁকে বলেন, “ইমতিয়াজ়, তুমি যত ক্ষণ না আমায় তোমার ছবিতে নেবে আমি তোমার একটাও কাজ দেখব না। বিশ্বাস করো, আমি যেটায় থাকব, সেটাই তোমার সেরা ছবি হবে।”

 

তবে ববির আক্ষেপ থাকলেও মোটের উপর বিপুল জনপ্রিয়তা পেয়েছিল ‘জব উই মেট’। যদিও শোনা যায়, সেই উথালপাথাল প্রেমের ছবির সেটেই নাকি চার বছরের প্রেমের সম্পর্কে ইতি টেনেছিলেন শাহিদ এবং করিনা। এবং শেষ দৃশ্যে স্মরণীয় চুমুর মুহূর্তের শুটিংও হয়েছিল বিচ্ছেদের পরই।

একুশে সবাদ/ আ.বা/ রখ