ঢাকা রবিবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

নেশার টাকা না পেয়ে ৩ শিশুপুত্রকে বিষ খাওয়ালেন পাষণ্ড বাবা!


Ekushey Sangbad
জেলা প্রতিনিধি
০৫:০৮ পিএম, ১৪ নভেম্বর, ২০২১
নেশার টাকা না পেয়ে ৩ শিশুপুত্রকে বিষ খাওয়ালেন পাষণ্ড বাবা!
ছবি: একুশে সংবাদ

ছবি: একুশে সংবাদ

স্ত্রীর কাছে নেশার টাকা না পেয়ে নিজের তিন শিশুপুত্রকে বিষপান করিয়েছেন আলম শেখ নামে মাদকাসক্ত এক ব্যক্তি। আজ রবিবার সকাল ৮টার দিকে চারদিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে তার ছোট ছেলে হোসেন শেখ (৩) ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যায়। 

এর আগে গত বৃহস্পতিবার সকালে স্ত্রীর কাছে নেশার টাকা চেয়ে না পেয়ে তাকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেন। পরে আলম শেখ তিন শিশুপুত্রকে জোর করে বিষপান করান। বাকি দুই শিশু সিয়াম শেখ (১০) ও হাসান শেখ (৩) ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু  শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। তাদের অবস্থাও সংকটাপন্ন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার সীমান্তবর্তী (মহাসড়কের বিপরীত পার্শ্বে) মুকসুদপুর উপজেলার খান্দারপাড়া ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের মাদকাসক্ত মো. আলম সেখ (৪০) তিন সন্তানকে জমির আগাছানাশক (বিষ) পান করিয়ে হত্যার চেষ্টা চালান। 

শিশুদের মা সিমা বেগম জানিয়েছেন, তার স্বামী আলম শেখ মাদকাসক্ত। গত বৃহস্পতিবার নেশার টাকা চান। টাকা না দেওয়ায় তাকে ব্যাপক মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেন। ছেলেদের জোর করে বিষপান করান। তিনি বলেন, ‘এতে আমার এক ছেলে মারা গেছে। অন্য দুই শিশুও মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। আমি আমার স্বামী আলম শেখের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও বিচার দাবি করছি। যাতে অন্য কোনো পিতা তার সন্তানদের সঙ্গে এমন কাজ করতে না পারে।’

মুকসুদপুর থানায় ওসি আবু বকর মিয়া বলেন, ‘ওই শিশুদের পিতা আলম শেখ মাদকাসক্ত। নেশার টাকার জন্য তিনি প্রায়ই স্ত্রী সীমা বেগমকে মারপিট করতেন। গত বৃহস্পতিবার স্ত্রীর কাছে নেশার টাকা চাইলে না দেওয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দিয়ে নিজ হাতে তিন সন্তানকে জোর করে বিষপান করান। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মুকসুদপুর হাসপাতালে ভর্তি করে। তাদের অবস্থার অবনতি হলে ওই দিনই ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। গত শুক্রবার ওই তিন শিশুকে মা সীমা বেগম বাড়িতে নিয়ে আসেন। গতকাল শনিবার তাদের অবস্থা আবার খারাপ হলে স্থানীয়দের আর্থিক সহায়তায় আবার ফরিদপুর মেডিক্যালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ রবিবার সকালে হোসেন শেখ মারা যায়।’

তিনি আরো বলেন, ‘ওইদিনই (বৃহস্পতিবার) খালাতো ভাই মিলু ওই শিশুদের পিতা আলমকে শেখকে আসামি করে হত্যাচেষ্টা মামলা করেন। এঘটনায় ওই বাবাকে গ্রেপ্তার করা হয়। বর্তমানে ইতনি গোপালগঞ্জ জেলা কারাগারে রয়েছেন। একটি শিশু মারা যাওয়ায় ওই মামলাটি হত্যা মামলা রূপান্তরিত হবে।’

একুশে সংবাদ/আরএইচকে/ এএমটি