ঢাকা শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
ekusheysangbad QR Code
BBS Cables
Janata Bank
  1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. সারাবাংলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. অর্থ-বাণিজ্য
  6. খেলাধুলা
  7. বিনোদন
  8. শিক্ষা
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. অপরাধ
  11. প্রবাস
  12. পডকাস্ট

আলু ক্ষেতের সাথে এ কেমন শত্রুতা!


Ekushey Sangbad
রাঙ্গুনিয়া উপজেলা প্রতিনিধি, চট্টগ্রাম
০৭:১২ পিএম, ২৪ জানুয়ারি, ২০২৩
আলু ক্ষেতের সাথে এ কেমন শত্রুতা!

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলা চৌধুরী পাড়া এলাকায় আলু ক্ষেতে প্রতিহিংসার বশবর্তি হয়ে বিষ প্রয়োগের অভিযোগ উঠেছে, এতে অছি আহমদ সিদ্দিকি নামের এক কৃষকের আর্থিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

 

গত শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে উপজেলার ৩নং ওয়ার্ড সৈয়দনগর চৌধুরীপাড়া এলাকায় কৃষি জমিতে এ ঘটনা ঘটে।

 

সরজমিনে পরিদর্শন কালে দেখা যায়, ১৮ শতক চাষাবাদের জমিনে আলুর ক্ষেতে আগাছা নাশক বিষ প্রয়োগের ফলে আলুর ক্ষেত বিবর্ণ ধারণ করেছে।

 

৩নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত সিদ্দিক আহমেদের ছেলে মোঃ অছি আহমদ সিদ্দিকি (৫৪) পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত পরুয়া মৌজার ১৮ শতকের জায়গাতে আলুর চাষ করেছিল।

 

অছি আহমদ সিদ্দিকি বলেন, পার্শ্ববর্তী হোছনাবাদ ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আলী আমাদের ২ পুত্র নুরুল আলম (৪০) ও মোঃ শফি(৩২) জোরপূর্বক উক্ত জায়গা দখলের চেষ্টা করে আসছিল। গত ২০১৬ সালে তৎকালীন পারুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জাহিদ, ইউপি সদস্য আমিনুর রহমান ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে বিষয়টি অবহিত করলে তারা জায়গাটি দখল না করার জন্য বলে, এরপরও ভুয়া দলিল দিয়ে উক্ত জায়গাটি জোরপূর্বক দখল করতে চাইলে নুরুল আলম ও মোঃ শফির কে বাদী করে রাঙ্গুনীয়া আদালতে ২২১/১৭ নং মামলা দায়ের করি। আদালত নোটিশ দিয়ে তাদেরকে ডাকালেও তারা উপস্থিত হয়নি, পরে বিজ্ঞ আদালত মামলায় দুইপক্ষে জন্য স্থিতি অবস্থার জারি করেন। উক্ত জমিতে আমি আলুর চাষ করি। আমার ধারণা অনুযায়ী মামলার বাদীগণ আমার আলু ক্ষেতে প্রতিহিংসার বশবর্তী আগাছা নাশক বিষ প্রয়োগ করে ক্ষেত নষ্ট করলে আমি আর্থিক ক্ষতিগ্রস্ত হই।

 

পারুয়া ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ দিদারুল আলম সিকদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, কে বা কাহারা গত শুক্রবার দিবাগত রাতে  আলুর ক্ষেতে আগাছা নাশক বিষ প্রয়োগ করেছে এতে কৃষক অছি আহমদ সিদ্দিকির আর্থিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

 

একুশে সংবাদ/মু.বি.সো.প্রতি/এসএপি