ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট, ২০২২, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

মদনে কৃষকদের প্রণোদনার বীজ-সার বিতরণে অনিয়ম


Ekushey Sangbad
জেলা প্রতিনিধি
০৪:৪০ পিএম, ২৭ নভেম্বর, ২০২১
মদনে কৃষকদের প্রণোদনার বীজ-সার বিতরণে অনিয়ম
ছবি: একুশে সংবাদ

ছবি: একুশে সংবাদ

নেত্রকোনা প্রতিনিধি: নেত্রকোনার মদনে কৃষদের জন্য বরাদ্দকৃত প্রণোদনার বীজ-সার বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। প্রকৃত কৃষকদের বাদ দিয়ে জনপ্রতিনিধি ও তাদের স্বজনদের নামে তালিকা তৈরী করে চলছে প্রণোদনার বীজ-সার বিতরণ কার্যক্রম। 


জনপ্রতিনিধি ও কৃষি অফিসের লোকজনের জোগসাজোসে মাস্টার রোলের স্বাক্ষর ও টিপসহি জাল করে ১৫/২০ জন কৃষকের বরাদ্দ এক জনেই উত্তোলণ করে নিয়ে যাচ্ছে। হরিলুটের এমন অবস্থায় কৃষকদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তবে বিষয়টি খোজ নিয়ে ব্যবস্থা নিবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন নেত্রকোনা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক।


মদন কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, মদন উপজেলায় ২৯ হাজার ৮৩১ কৃষক পরিবার রয়েছে। রবি শষ্য, বোরো আবাদের বীজ-সার প্রণোদনার আওতায় এসেছে ৭ হাজার ১৬০ কৃষক পরিবার। এরি মধ্যে উপশি প্রণোদনার আওতায় ২ হাজার ২০০ কৃষকের জন্য ১১ মেট্রিকটন বীজ, এমওপি ২২ মেট্রিকটনও ডিএপি ২২ মেট্রিকটন স্যার বরাদ্দ রয়েছে। প্রত্যেক কৃষক পাবেন ৫ কেজি বীজ ধান, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি স্যার। অপর দিকে ৪ হাজার ৪০০ কৃষকের জন্য ২ কেজি করে হাইব্রীড বীজ বরাদ্দ রয়েছে। রবি শষ্যর মধ্যে ১ কেজি করে ৫১০ কৃষকের জন্য সরিষা ও ১০ কেজি করে ৫০ কৃষকের জন্য বাদাম বরাদ্দ রয়েছে।


গত বুধবার ও বৃহস্পতিবার মদন কৃষি অফিস ঘুরে দেখা গেছে, অনিয়মের মধ্যে দিয়ে প্রণোদনার বীজ সার বিতরণ করা হয়েছে। জনপ্রতিনিধি ও কৃষি অফিসের লোকজনের জোগসাজোসে মাস্টার রোলের স্বাক্ষর ও টিপসহি জাল করে ১০/১৫ জন কৃষকের বরাদ্দের বীজ-সার একজনেই উত্তোলণ করে নিয়ে যাচ্ছেন। মাস্টার রোলে নারীদের ছবি ও জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর ব্যবহার করে বীজ সার উত্তোলণ করে বিক্রিও করেছেন। দলীয় নেতাকর্মীদের প্রভাব কাটিয়ে অনৈতিক ভাবে বীজ সার উত্তোলণকালে বাক-বিতন্ডায় লিপ্ত হয়েছেন অনেকেই।    


প্রণোদনার বীজ-সার নিতে আসা রুদ্রশ্রী গ্রামের কৃষক রুবেল মিয়া বলেন, একজন নেতা এসে একাই ১০/১৫ জন কৃষকের বীজ-সার উত্তোলন করে নিয়ে গেছে। বিষয়টি কৃষি অফিসের লোকজনদের বললে তারা বলেন, আওয়ামীলীগ নেতাদের স্বাক্ষরের দাম আছে তাই একাই নিয়ে গেছে।


গোবিন্দশ্রী গ্রামের কৃষক সোহাগ খান, আজম আলী, মাঘান আরাধন মিয়া বলেন, যারা কৃষক তারা প্রণোদনার বীজ সার পাচ্ছে না। জনপ্রতিনিধিরা তাদের স্বজনদের নাম দিয়েই বীজ-সার নিয়ে যাচ্ছে। যেসব কৃষকদের নামে বীজ-সার উত্তোলণ করা হয়েছে তারা নিজেরাও জানেন না।  


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ইউনিয়ন উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা বলেন, দূর-দূরান্ত এলাকা থেকে অনেক কৃষকেই আসেন না। জন প্রতিনিধি ও স্থানীয় নেতারা অনেকইে বীজ-সার নিয়ে যাচ্ছে।


এ ব্যাপারে মদন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান জানান, আমি নিজে উপস্থিত থেকে সচ্ছতার সাথে কৃষকদের মাঝে প্রণোদনার বীজ-সার বিতরণ করেছি। অনিয়মের কোন সুযোগ নেই।  


এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদ বলেন, উৎসব মুখর পরিবেশে কৃষকদের মাঝে প্রণোদনার বীজ-সার বিতরণ করা হচ্ছে। বীজ-সার কারো মাধ্যমে না দিয়ে সরাসরি কৃষকেদর হাতে দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। যদি বিতরণে অনিয়ম হয় তবে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


নেত্রকোনা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক এফ এম মোবারক আলী জানান, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


একুশে সংবাদ/আল-আমিন