ঢাকা সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

ট্রেনের ধাক্কায় নিখোঁজ যুবকের ২ দিনেও সন্ধান মেলেনি


Ekushey Sangbad
উপজেলা প্রতিনিধি
০৪:১৮ পিএম, ২৫ অক্টোবর, ২০২১
ট্রেনের ধাক্কায় নিখোঁজ যুবকের ২ দিনেও সন্ধান মেলেনি

নরসিংদীর পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল রেলসেতুতে ছবি তুলতে গিয়ে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় শীতলক্ষ্যা নদীতে পড়ে নিখোঁজ যুবক অলি মিয়া (১৮) এর সন্ধান ২ দিন পরও মেলেনি। শনিবার (২৫ অক্টোর) সন্ধা সাড়ে চারটায় ঘোড়াশাল নতুন রেলসেতুর মাঝামাঝি অংশে এ দুর্ঘটনা ঘটার পর নরসিংদী রেলওয়ে পুলিশ, পলাশ ফায়ার সার্ভিস ও টঙ্গীর ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবরি দল সন্ধা ৭টা পর্যন্ত খোঁজাখুঁজি করেন। কিন্তু তার কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি।

রবিবার (২৪ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে সন্ধা সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ফের শীতলক্ষ্যা নদীতে ঘটনাস্থলের আশে পাশে নিখোঁজ অলি মিয়াকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও উদ্ধার করতে পারেনি নরসিংদী রেলওয়ে পুলিশ, পলাশ ফায়ার সার্ভিস ও টঙ্গী ফয়ার সার্ভিসের সদস্যরা। এছাড়াও অলি মিয়ার পরিবারের সদস্যরাও নদীতে খুঁজাখুঁজি করে। কিন্তু কেউ নিখোঁজ যুবককে উদ্ধার করতে পারেনি। নিখোঁজ যুবক নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার বড়পাড়া গ্রামের মো. বজলুর রহমানের ছেলে। সে তার চাচার বাড়ি নরসিংদীর মাধবদীতে চাচার বাড়িতে থেকে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চালাতেন।

শনিবার (২৪ অক্টোবর) নিখোঁজ অলি মিয়ার বন্ধু শাহজাহান জানান, বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে অলিকে নিয়ে ঘোড়াশাল রেলস্টেশন এলাকায় ঘুরতে আসি। এরপর ছবি তুলতে আমি ও অলি রেলসেতুর মাঝখানে যাই। এসময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নোয়াখালীগামী আন্তঃনগর উপকূল ট্রেন সেতুতে আসার পর আমি দৌড়ে একপাশে চলে আসি। কিন্তু সে আসার চেষ্টা করেও নিরাপদ স্থানে আসতে পারেনি। ট্রেনের ধাক্কায় শীতলক্ষ্যা নদীতে পড়ে নিখোঁজ হয়।

এব্যাপারে রবিবার সন্ধায় পলাশ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মোঃ হাদিউর ইসলাম শুভ জানান, আমরা পলাশ ফায়ার সার্ভিস ও টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবরি দল শনিবার সন্ধা ৬টা থেকে রাত ৭টা পর্যন্ত নিখোঁজ যুবক অলিকে খুঁজে পেতে শীতলক্ষ্যা নদীতে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করি। কিন্তু স্রোতের কারণে সেদিন উদ্ধার কাজ ব্যাহত হওয়ায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে বন্ধ রাখা হয়েছিলো।

রবিবার সকাল ৯টা থেকে ফের উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে সন্ধা সন্ধা সাড়ে ৫টা পর্যন্ত নিখোঁজ অলিকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। উর্ধ্বধন কর্তৃপক্ষ নির্দেশ পেলে কাল সোমবার আবারও উদ্ধার কাজ চালানো হবে। এদিকে অলিকে খুঁজে পেতে তার আত্মীয় স্বজনরা দিনভর শীতলক্ষ্যা নদীর পাড়ে বসে নিখোঁজ অলির সন্ধানের জন্য কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

একুশে সংবাদ/এসএইচ/এএমটি