ঢাকা শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল

Ekushey Sangbad
Janata Bank
Rupalibank

লকডাউনে বড়লোকের গাড়ি চলে, আইন-প্রশাসন কি দেখে না? আক্ষেপ পথচারির


Ekushey Sangbad
একুশে সংবাদ ডেস্ক
০৭:১৭ পিএম, ২৭ জুলাই, ২০২১
লকডাউনে বড়লোকের গাড়ি চলে, আইন-প্রশাসন কি দেখে না? আক্ষেপ পথচারির

করোনার সংক্রমণরোধে দেশজুড়ে চলছে সরকার ঘোষিত ১৪ দিনের কঠোর বিধি-নিষেধ। চট্টগ্রাম নগরীতে এই বিধি-নিষেধ উপেক্ষা করে রাস্তা-ঘাটে প্রয়োজন-অপ্রয়োজনে বের হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। মানুষের ঘুরাঘুরি ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ স্থানীয় প্রশাসন। মহানগরে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ১৮ জন ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে সেনাবাহিনী, র‌্যাব, পুলিশ দায়িত্ব পালন করছে। এছাড়াও সিটি করপোরেশনের ম্যাজিস্ট্রেটরাও মাঠে রয়েছে কিন্তু মানুষ কোন ভাবেই প্রশাসনকে গুরুত্ব দিচ্ছে না ।

আজ মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সকাল থেকে নগরীর বিভিন্ন মোড়ে দেখা গেছে ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচল ও রাস্তার মোড়ে মোড়ে মানুষের ভিড়। এছাড়া পাড়া-মহল্লা, অলিগলিতে দোকানপাট খোলা রাখছে, জনসমাগমও বাড়ছে। নগরীর প্রবেশ মুখ শাহ আমানত সেতু, সিটি গেইটে সেনা বাহিনী চেক পোস্ট বসালেও কোন ধরনের নিয়মনীতিকে তোয়াক্কা না করেই  হেটে নগরীতে প্রবেশ করছে।

নাম প্রকাশে অনিশ্চুক, দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাতকানিয়া কেরানী হাট থেকে আগত এক ব্যক্তি কর্ণফুলী ব্রীজ হেঁটে পার হওয়ার সময় শহরে আসার কারন জিজ্ঞেস করা হলে, তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, 'সরকার কি লকডাউন গরীবদের জন্য দিয়েছেন? সরকারের আইন প্রশাসনের লোকরা কেন গাড়ি ধরছে না? এই যে সাংবাদিক -মিড়িয়া -প্রশাসনের সামনে যে গাড়ি চলে কার খুটিঁর জোরে? আপনারা বলেন, আইন সবার জন্য সমান, তাহলে এসব কি দেখেন না? শুধু কেন আমাদের উপর রুলস প্রয়োগ করা হচ্ছে? সরকার আওয়ামিলীগ নেতাদের বাড়িতে মাসের খাবার পৌঁছিয়ে দিয়েছে, আমরা তো পায় নি। আমাদের বের হতে হবে। আমরা পেটের দায়ে বের হচ্ছি।'

আজ মঙ্গলবার এসিডি মোহাম্মদ নাজমুল আহসান বলেন, সরকার ঘোষিত কঠোর বিধি-নিষেধ মানাতে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন চতুর্থ দিনেও কঠোর অবস্থানে রয়েছে। প্রথমে আমরা মানুষকে বুঝানোর চেষ্টা করেছি। এখন আমরা মামলা দিচ্ছি, জরিমানা করছি তবুও তারা বিধি-নিষেধ মানছে না। বিধি-নিষেধ বাস্তবায়ন করতে আমাদের কঠোর অভিযান অব্যহত থাকবে।

এদিকে আজ (২৭ জুলাই) নগরীর লালখান বাজার, ওয়াসা, চট্টেশ্বরী মোড়, জিইসি, কাজীর দেউড়ি, চকবাজার ও জামালখান এলাকায় করোনা ভাইরাস জনিত রোগের বিস্তার রোধে সরকারি স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় ১৮ পথচারীকে জরিমানা করা হয়েছে।

চসিকের জনসংযোগ কর্মকর্তা কালাম চৌধুরী জানান, অভিযানকালে স্বাস্থ্যবিধি না মানা এবং মাস্ক না পরায় ১৯ পথচারীর বিরুদ্ধে ১৯টি মামলা রুজুসহ ৪ হাজার ৬০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

 

একুশে সংবাদ/রাজিব/প